ঢাকা, রবিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৮ ২:০৮:২৯

রিয়াল মাদ্রিদকে ২-১ এ হারালো লেভাতে

রিয়াল মাদ্রিদকে ২-১ এ হারালো লেভাতে

স্প্যানিশ লা লিগায় লেভাতের কাছে ২-১ এ হেরেছে জুলেন লোপেতেগি’র দল রিয়াল মাদ্রিদ। এর মধ্যে দিয়ে শেষ পাঁচ ম্যাচে চতুর্থ পরাজয়ের স্বাদ নিলো এই স্প্যানিশ জায়ান্ট।
সোশ্যাল মিডিয়ার সব সেলিব্রেটিকে ছাড়িয়ে রোনালদো

নিযুত ফুটবল ভক্তের হৃদস্পন্দন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। প্রায় এক দশক ধরে ফর্মের তুঙ্গে রয়েছে পর্তুগিজ এ তারকা। গত বিশ্বকাপে দল বাজে খেললেও রোনালদো তাঁর নিজের খেলাটাই খেলেছেন। বিশ্বকাপের পর রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ছেড়ে বড় অংকের অর্থ নিয়ে যোগ দিয়েছেন জুভেন্টাসে। এর কিছু দিন পরই তাঁর বিরুদ্ধে উঠে ধর্ষণের অভিযোগ। মার্কিন এক তরুণী অভিযোগ করেন রোনালদো হোটেল কক্ষে তাকে জোর করে ধর্ষণ করেন। এতোকিছুর পরও জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়ে নি রোনালদোর। যেমনটি দেখা যাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে তাঁর শুভানুধ্যায়ীদের দেখে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আর্জেন্টিনা ফুটবলের কিংবদন্তী লিওনেল মেসি কেন, বহু আন্তর্জাতিক সেলিব্রেটিকেও পেছনে ফেলে শীর্ষে আছেন রোনালদো। এমনকি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে পোপ ফ্রান্সিস, ডোনাল্ড ট্রাম্প, বারাক ওবামাদের চেয়েও অনেক বেশি জনপ্রিয় তিনি। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ফুটবল তারকাদের ক্ষেত্রে রোনালদোর জনপ্রিয়তা কতটা তা ফলোয়ারদের সংখ্যা দেখলেই বুঝা যায় (মিলিয়নের হিসাবে): ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (৩৪০): ফেসবুক-১২৩, ইনস্টাগ্রাম-৩৪৩, টুইটার-৭৫ নেইমার জুনিয়র (২০৫): ফেসবুক-৬১, ইনস্টাগ্রাম-১০৩, টুইটার-৪১ লিওনেল মেসি (১৮৯): ফেসবুক -৯০, ইনস্টাগ্রাম-৯৯, টুইটার-নেই হামেস রদ্রিগেজ (৯১): ফেসবুক-৩৩, ইনস্টাগ্রাম-৪০, টুইটার-১৮ গ্যারেথ বেল (৮৩): ফেসবুক-২৯, ইনস্টাগ্রাম-৩৭, টুইটার-১৭ অন্যসব খেলার তারকা যেমন, লেব্রোন জেমস, স্টিফেন কারি কিংবা কনর ম্যাকগ্রেগরের মতো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তুমুল জনপ্রিয় খেলা এনবিএ’র মহাতারকাদের অনেক বড় ব্যবধানে পেছনে ফেলে দিয়েছেন পর্তুগিজ ফুটবলের যুবরাজ রোনালদো। রোনালদোর ৩৪০ মিলিয়ন ফলোয়ারের বিপরীতে এনবিএ তারকা লেব্রোন জেমসের ফলোয়ার সংখ্যা ১০৬ মিলিয়ন। আরেক এনবিএ তারকা স্টিফেন কারির ফলোয়ার সংখ্যা ৪৩ মিলিয়ন। রোনালদো তারকা খেলোয়াড়দের ক্ষেত্রে এক নতুন মাইলফলক গড়েছেন। তার জনপ্রিয়তার কাছে পিছিয়ে পড়েছেন অনেক বড় সেলিব্রেটিরাও। রোনালদোর চেয়ে ঢের পেছনে কানাডিয়ান পপ তারকা জাস্টিন বিবার (২৮৪ মিলিয়ন)। আরেক মার্কিন সঙ্গীতশিল্পী টেলর সুইফটের ফলোয়ার সংখ্যা ২৬৮ মিলিয়ন। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ফলোয়ার সংখ্যা ১৭৬ মিলিয়ন, বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ৯০ মিলিয়ন আর পোপ ফ্রান্সিসের ১১ মিলিয়ন। / এআর /

সবচেয়ে কম বয়সে ৫ গোল করে রেকর্ড লুকা জুভিকের

জামার্নির বান্দেরস লীগের খেলায় সবচেয়ে কনিষ্ঠ খেলোয়ার হিসেবে পাঁচ গোল করে রেকর্ড গড়েছেন ইন্ট্রাক্ট ফ্রাঙ্কফুর্ট দলের খেলোয়ার লুকা জুভিক। শুক্রবার খেলায় তার এই পাঁচ গোলের সুবাধে ফরচুনা ডাসেলড্রফকে ৭-১ গোলে হারিয়েছে লুকা জুভিকের দল ইন্ট্রাক্ট ফ্রাঙ্কফুর্ট। ২০ বছর বয়সী সার্বিয়ান এই ফরওয়ার্ড ২৬ মিনিটের মাথায় ইন্ট্রাক্ট ফ্রাঙ্কফুর্টের হয়ে এক গোলের সুবাধে ফরচুনা ডাসেলড্রফকে ২-০ গোলে পিছিয়ে দেন। এরপর তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। পরে যথাক্রমে ৩৪, ৫৫, ৬৯ এবং ৭২ মিনিটের মাথায় আরো চারটি গোল করে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন তিনি। জুভিকের হ্যাট্টিকটি আসে দ্বিতীয়ার্ধ শুরু হওয়ার দশ মিনিট পরেই। বাকী দুটি গোল করেন ইন্ট্রাক্ট ফ্রাঙ্কফুর্ট দলের অন্যতম খেলোয়ার হ্যালার। তিনি দলের হয়ে ২০ এবং ৫০ মিনিটে দুটি গোল পান। এদিকে জামার্নির বান্দেরসলীগের খেলায় ৭ গোল নিয়ে গোল করার দিক থেকে লুকা জুভিক সবার শীর্ষে রয়েছেন।  তথ্যসূত্র: বিবিসি   এমএইচ/

সাবেক ক্লাবের প্রতি সম্মান দেখাবেন মরিনহো

আজকের খেলায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড চেলসিকে হারালেও তাদের প্রতি অসম্মান প্রদর্শন করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন জোসে মরিনহো। কারণ মরিনহোর পুরনো ক্লাব চেলসির প্রতি রয়েছে তার অসম্ভব শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা। দু’বছর আগে চেলসি ইপিএলের একটা ম্যাচে ৪-০ গোলে হারিয়েছিল ম্যান ইউ’কে। এবং ম্যাচের শেষে রীতিমতো বিশ্রী অঙ্গভঙ্গী করেছিলেন তখনকার চেলসি ম্যানেজার আন্তোনিয়ো কন্তে। সেই ঘটনাকেই ইঙ্গিত করে শুক্রবার মোরিনহো বলেন, ‘স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে আমার দল গোল করলে বা জিতলে আমি কি অসভ্যতা করব? কখনওই না। উল্টো চূড়ান্ত সংযম দেখাব। যাতে চেলসির মতো ক্লাব আর ওদের ভক্তদের প্রতি কোনও অসম্মান না হয়।’ প্রতিপক্ষকে অসম্মান না করলেও আজ শনিবার যে তার ফুটবলাররা এক ইঞ্চি জমিও ছাড়বে না, সেটাও পরিষ্কার করে দিলেন পর্তুগিজ এই ম্যানেজার, ‘এমনিতে এটা আমার কাছে আর একটা ম্যাচ ছাড়া অন্য কিছুই নয়। তবে এই ম্যাচটায় আমাদের ভাল কিছু করতেই হবে। মনে রাখবেন এখন আমি শতকরা একশো ভাগ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের লোক। আমার ক্লাবকে জেতানো ছাড়া অন্য কিছুই এখন ভাবতে পারি না।’ মোরিনহো মনে করেন, ইপিএলে শেষ ম্যাচে নিউক্যাসলের বিরুদ্ধে ০-২ পিছিয়ে থেকে ৩-২ জেতাটা তার দলের কাছে বাড়তি প্রেরণা হয়ে উঠবে। চেলসির বিরুদ্ধে যা দারুণভাবেই কাজে দেবে বলে তার বিশ্বাস। জোসের কথায়, ‘এমনিতে আজও দলের সবাই এসে পৌঁছায়নি। আন্তর্জাতিক ছুটির পরে সব ক্লাবেই এ রকম হয়। তবে আশা করব, শেষ ম্যাচে অসাধারণ জয়ের স্মৃতি আমার ফুটবলাররা ভোলেনি। তাই খেলা থেকে ওদের মন সরে যাবে না।’ ইপিএল লিগ টেবলে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এখন আট নম্বরে রয়েছে। স্বভাবতই সমর্থকরা এই পরিস্থিতি নিয়ে খুশি নয়। তা ছাড়া বহু বছর পরে ম্যান ইউ এত খারাপ শুরু করেছে। দু’একটি ম্যাচে তো পর্তুগিজ ম্যানেজারকে সমথর্কদের বিদ্রুপের সামনেও পড়তে হয়েছে। পাশাপাশি চেলসি টেবলে দু’নম্বরে থাকলেও এক নম্বর ম্যানচেস্টার সিটির মতো তাদের পয়েন্টও ২০। অবশ্য বিশ পয়েন্টে আছে লিভারপুলও। তবু চেলসির নতুন ম্যানেজার মাউরিসিয়ো সাররি মনে করেন, মোরিনহোকে অসম্মান করা খুব খারাপ একটা ব্যাপার। তিনি মনে করেন, ‘মরিনহো এমন একজন কোচ যে সব জায়গাতেই জিতেছে। তাই ওকে সম্মান করাটা অবশ্য কর্তব্য। তা ছাড়া ওর প্রশিক্ষণে এ বারও ম্যান ইউ যথেষ্ট শক্তিশালী। ভাল করেই জানি যে নিজেদের মাঠেও ওদের হারানোটা মুখের কথা নয়।’ তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার এমএইচ/একে/

সর্বকালের সেরা অ্যাথলেট মেসি

আর্জেন্টিনার হয়ে এখনও পর্যন্ত বড় কোনও টুর্নামেন্টের শিরোপা জিততে পারেননি লিওনেল মেসি। তবে একটি বিশ্বকাপ জিতলেই অমরত্ব পেয়ে যাবেন আর্জেন্টাইন তারকা। মর্যাদা পাবেন সর্বকালের সেরা ফুটবলারের। তবে এখনও তা সুদূর পরাহত। কিন্তু সর্বকালের সেরা অ্যাথলেটের খেতাব পেয়ে গেলেন তারকা ফুটবলার। সেরা অ্যাথলেট নির্বাচনে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে ভোট পরিচালনা করে বিশ্ববিখ্যাত ক্রীড়া সাময়িকী স্পোর্টবাইবেল। তাতে মোহাম্মদ আলি, রজার ফেদেরার ও মাইকেল জর্ডানকে হারিয়ে সর্বকালের সেরা অ্যাথলেট হন ছোট ম্যাজিসিয়ান। বার্সার সুপারস্টার পেয়েছেন ২২ হাজার ভোট। দ্বিতীয় হয়েছেন বক্সিং কিংবদন্তি মোহাম্মদ আলি। সর্বকালের সেরার দৌড়ে ফুটবলের বরপুত্রের সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে তার। শেষ পর্যন্ত মাত্র ২ শতাংশ ভোট কম পেয়ে পরাজয় বরণ করতে হয়েছে মার্কিন বক্সারকে। একে//

মেসির সঙ্গে কোনো দিনও খেলব না: মদ্রিচ

সবাইকে চমকে দিলেন রাশিয়া বিশ্বকাপের গোল্ডেনবল জয়ী ক্রোট তারকা লুকা মদ্রিচ। এক সাক্ষাত্কারে বন্ধু ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে অন্য উচ্চতার ফুটবলার বললেও, লিওনেল মেসি সম্পর্কে এক অন্য সুর শোনা গেল এলএমটেনের গলায়। ক্লাব ফুটবলে মেসির সতীর্থ হতে চান না মদ্রিচ।  চলতি বছর ফিফা এবং উয়েফার বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন ক্রোয়েশিয়ার লুকা মদ্রিচ। প্রাক্তন রিয়াল সতীর্থ ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে টপকে এই সাফল্য পেয়েছেন তিনি। রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্তাসে যোগ দিয়েছেন। রোনালদোর সঙ্গে এখন তিনি আর একই ক্লাবে খেলেন না। কিন্তু তাদের সম্পর্কও আজও বন্ধুর মতোই। বন্ধু রোনালদো সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘ক্রিস্টিয়ানো অন্যান্য ফুটবলারের তুলনায় অন্য স্তরের একজন খেলোয়াড়, যখন তার রিয়াল ছাড়ার গুজব উঠেছিল তখন আমরা লকার রুমে বেট করেছিলাম, আমাদের মধ্যে বেশিরভাগই নিশ্চিত ছিলেন যে তিনি থেকে যাচ্ছেন।’ তবে জিনেদিন জিদান এবং ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো কোনও দিন রিয়াল ছাড়বেন ভাবতেই পারেননি লুকা মদ্রিচ। তবে আর এক তারকা ফুটবলার লিও মেসি সম্পর্কে কিন্তু অন্য সুর শোনা গেল তার মুখে। এক সাক্ষাত্কারে মেসিকে নিয়ে তিনি জানান, ‘আমি ওর (মেসি) বিরুদ্ধে খেলি ওর সঙ্গে নয়। হ্যাঁ, মেসি সর্বকালের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়। তবে আমি ওর সঙ্গে কোনও দিনও খেলব না।’ আগামী ২৮ অক্টোবর চলতি মৌসুমে লা লিগায়  প্রথম এল ক্লাসিকোতে স্যান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা। সূত্র: জিনিউজ একে//

এবার জার্মানিকে হারাল ফ্রান্স

বিশ্বকাপ হতাশা এখনও কাটিয়ে উঠতে পারছে না জার্মানি। বহু প্রচেষ্টার পরও হারের মধ্যেই ঘুরপাক খাচ্ছেন চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। আবারও পরাজয়ের স্বাদ নিতে হল তাদের। আঁতোয়া গ্রিজম্যানের জোড়া গোলে জার্মানদের ২-১ গোলে হারিয়েছে ফ্রান্স। এ নিয়ে উয়েফা নেশন্স লিগে টানা দ্বিতীয় জয় পেলেন ডিফেন্ডিং বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।এ নিয়ে তিন ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ লিগের গ্রুপ-১ এর টেবিলে শীর্ষে উঠল ফ্রান্স। ৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেদারল্যান্ডস। ১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে জার্মানি। মঙ্গলবার রাতে প্যারিসের আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় শুরুটা ছন্দময় করে জার্মানি। স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলার গল্প লেখার ইঙ্গিত দেন জার্মানরা। ১৩ মিনিটে তাদের লিড এনে দেন টনি ক্রস। লেরয় সানের কাটব্যাক পল পগবার হাতে লাগলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সফল স্পট কিকে লক্ষ্যভেদ করেন ক্রস।এগিয়ে গিয়ে আরও আত্মবিশ্বাসী ফুটবল উপহার দেয় জার্মানি। মুহুর্মুহু আক্রমণে ফ্রান্সকে চেপে ধরেন অতিথিরা। একাধিক সুযোগও তৈরি করেন জোয়াকিম লোর শিষ্যরা। তবে প্রথমার্ধে আর প্রতিপক্ষের গোলমুখ খুলতে পারেননি তারা।দ্বিতীয়ার্ধে গোল পরিশোর্ধে মরিয়া হয়ে পড়ে ফ্রান্স। শুরু থেকেই ঝটিকা অভিযান চালান ফরাসিরা। এ যাত্রায় সফলও হন তারা। ৬২ মিনিটে দলকে সমতায় ফেরান গ্রিজম্যান। লুকা অ্যারনদেসের ক্রসে দুর্দান্ত হেডে নিশানাভেদ করেন তিনি।সমতায় ফিরে ‘পাওয়ার ফুটবলের’ পসরা সাজিয়ে বসে ফ্রান্স। ফলে কোণঠাসা হয়ে পড়ে জার্মানি। এগিয়ে যেতেও বেগ পেতে হয়নি দিদিয়ের দেশমের শিষ্যদের। ৮০ মিনিটে ঠিকানায় বল পাঠান গ্রিজম্যান। ডি-বক্সে ব্লেইস মাতুইদিকে মাটস হুমেলস ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। তা থেকে বল জালে জড়াতে মোটেও ভুল করেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড। শেষ পর্যন্ত সেটিই ম্যাচের ভাগ্য লিখে দেয়। হয়ে থাকে জয়সূচক গোল।এসএ/    

৩১ বছর পর স্পেনের মাঠে ইংল্যান্ডের জয়

রাশিয়া বিশ্বকাপে সেমিতে বিদায় নেওয়া ইংল্যান্ড ৩১ বছর পর স্প্যানিশদের মাটিতে স্পেনকে হারানোর স্বাদ নিয়েছে। সেইসঙ্গে দীর্ঘ ১৫ বছর পর ঘরের মাঠে কোনও প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে হার দেখলো স্পেন।  সেভিয়ায় মঙ্গলবার সকালে উয়েফা নেশন্স লিগে স্পেনকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যরা। স্পেনের বিপক্ষে স্পেনেই ইংল্যান্ডের আগের জয়টা ছিলো ১৯৮৭ সালে। সেবার তারা জেতে ৪-২ গোলে। প্রতিপক্ষের মাঠে খেলতে নেমে ম্যাচের ১৬তম মিনিটে রহিম স্টারলিংয়ের গোলে লিড পায় ১৯৬৬ বিশ্বকাপজয়ীরা। পরে ২৯তম মিনিটে মার্কাস রাশফোর্ড ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। আর ৩৮তম মিনিটে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করে ইংলিশদের ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন স্ট্রাইকার স্টারলিং। ফলে ৩-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় ইংল্যান্ড। বিরতি থেকে ফিরি ঘুর দাঁড়ায় স্বাগতিকরা। ম্যাচের ৫৮তম মিনিটে পাকো আলকাসেরের গোলে ব্যবধান কমায় ২০১০ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। আর শেষ দিকে আক্রমণের ধার বাড়িয়ে আরও একটি গোল পেলেও হার এড়াতে পারেনি তারা। ম্যাচের নির্ধারিত সময়ের পর অতিরিক্ত সপ্তম মিনিটে গোল করেন সার্জিও রামোস। ম্যাচের স্কোরলাইন ৩-২ হলেও ইংল্যান্ডের কাছে আসলে পাত্তাই পায়নি স্পেন। এ ম্যাচ হারলেও তিন ম্যাচে দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ লিগের গ্রুপ-৪ এ শীর্ষে আছে স্পেন। একটি জয়ে ইংল্যান্ড ৪ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। একে//

মেসি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ প্রাণী: গার্দিওলা  

২০০৮ থেকে ২০১২ সালে বার্সেলোনায় কাটানো সময়গুলো কখনই ভুলতে পারবেন না পেপ গার্দিওলা। ঐ সময়টাতে ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলে এক ‍অপ্রতিদ্বন্দ্বী দল হিসেবেই নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছিল কাতালান জায়ান্টরা। সে সময়ে দল গোছানো থেকে শুরু করে দল সাজানো এবং নির্বাচনেও ছিলেন সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী। সেই দলটিও ছিল একগাদা তারকা ও প্রতিভাবান ফুটবলারে ঠাসা। যারা নান্দনিক ফুটবলের পসরা সাজিয়ে করেছেন স্প্যানিশ ফুটবলে একচ্ছত্র আধিপত্য।    বার্সায় কাটানো সুখের দিনগুলোর স্মৃতি রোমন্থন করেছেন পেপ গার্দিওলা। সেই সাথে তার সাবেক শিষ্য লিওনেল মেসিকে ‘প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ও হিংস্র প্রাণী’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। গার্দিওলার অধীনে অপ্রতিরোধ্য বার্সা দুটি চ্যাম্পিয়নস লিগে জয় পায়। সেই সাথে স্প্যানিশ ঘরোয়া লিগের সর্বোচ্চ আসর লা লিগার টানা তিনটি শিরোপাও ঘরে তোলে তারা। পেপ গার্দিওলা বলেন, সবসময় আমার ওপর আস্থা রাখত বার্সা। দল সাজানো, গোছানো ও নির্বাচনের সম্পূর্ণ ভার আমার ওপর অর্পণ করা হয়েছিল। শূন্যস্থান বা ঘাটতি পূরণে উপযুক্ত খেলোয়াড়টি কিনতে পারতাম। পেপ বলেন, আমরা দুবার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছিলাম। দুই দুবার ইউরোপসেরার মুকুট জেতায় বিশ্ব ক্লাব ফুটবলে আমাদের অবস্থান আরও সুদৃঢ় হয়েছিল। লা মেসিয়া থেকে সাতজন দারুণ তরুণ ফুটবলার উঠে এসেছিল। এদের মধ্যে ছিল মেসি, জাভি, ইনিয়েস্তা ও ভালদেস। সবাই পরে তারকা বনে গিয়েছিল। তিনি বলেন, আমাদের হাতে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়ও ছিল। বলা বাহুল্য সে মেসি। ও ছিল ‘হিংস্র ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ প্রাণী’। যে পরাজয়কে ঘৃণা করত। হার বলে কোনো শব্দ তার অভিধানে ছিল না। প্রসঙ্গত, এর আগেও প্রিয় দল বার্সেলোনা নিয়ে কথা বলেন তিনি। গত সেপ্টেম্বরে ক্লাবটিতে প্রত্যাবর্তনের ইচ্ছাও পোষণ করেছিলেন তিনি। ন্যু ক্যাম্পে ফিরে যুব দল নিয়ে কাজ করে ক্যারিয়ার শেষ করতে চান এ স্প্যানিশ কোচ    এসি    

ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা ম্যাচ কাল 

রাশিয়া বিশ্বকাপ শেষেই জানা গিয়েছিল পরবর্তী আন্তর্জাতিক সূচিতে প্রীতি ম্যাচ খেলবে দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। তবে তখনো নিশ্চিত ছিলো না কবে, কোথায় মুখোমুখি হবে মেসির আর্জেন্টিনা ও নেইমারের ব্রাজিল। অপেক্ষায় প্রহর শেষ করে আগামীকাল জেদ্দায় বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় অগ্নিগর্ভ প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। দু’দলই এখন সৌদি আরবে। রিয়াদে প্রস্তুতিপর্ব শেষ করে এখন ‘সুপার ক্লাসিকো’ মহারণের অপেক্ষায় প্রহর গোনা।      সব কিছু ঠিক থাকলেও আপত্তি শুধু ‘প্রীতি ম্যাচ’ শব্দযুগল নিয়ে। আপত্তি উঠেছে দুই শিবির থেকেই। শুক্রবার স্বাগতিক সৌদি আরবকে ২-০ গোলে হারানোর পর ব্রাজিল কোচ তিতে বলেন, ‘ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনা কখনও প্রীতি ম্যাচ হয় না।’ সেই কথাটাই কাল বের হয়ে আসলো আর্জেন্টিনা ফরোয়ার্ড মাউরো ইকার্দির কণ্ঠে, ‘আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের মধ্যে কখনও প্রীতি ম্যাচ হয় না। এ ম্যাচ ঘিরে থাকে অনেক আবেগ ও উত্তেজনা। গত মাসে আমরা কলম্বিয়ার মতো দলের বিপক্ষে খেলেছি। তারাও দুর্দান্ত দল। কিন্তু ব্রাজিলের বিপক্ষে খেলা মানে অন্য কিছু। ওদের বিপক্ষে মাঠে নামলে সেটা আর প্রীতি ম্যাচ থাকে না। নতুন চেহারার এক দল নিয়ে ব্রাজিলের মুখোমুখি হচ্ছে আর্জেন্টিনা। মেসি, আগুয়েরো, হিগুয়াইন ও ডি মারিয়ার মতো মহাতারকাদের অনুপস্থিতিতে দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে ইরাককে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিলেও ব্রাজিলের বিপক্ষে কোনোভাবেই ফেভারিট বলা যাচ্ছে না আর্জেন্টিনাকে। তরুণ দলটি এই দলটিকেই আর্জেন্টাইন ফুটবলের ভবিষ্যৎ মনে করছেন ইকার্দি, ‘আমরা একটি নতুন প্রকল্প অনুসরণ করছি। অনেক নতুন খেলোয়াড় আসছে, যাদের অনেকের গায়ে প্রথমবারের মতো উঠছে আর্জেন্টিনার জার্সি। পালাবদলের এই সময়ে সবাইকে ধৈর্য ধরতে হবে। আমরা সবাই মিলে ভবিষ্যতের জন্য একটি ভিত তৈরি করার চেষ্টা করছি। কিছু নির্মাণের চেষ্টা চলছে। এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’ ব্রাজিলের বিপক্ষে অনভিজ্ঞ এই দলটিকে নেতৃত্ব দেবেন পাওলো দিবালা ও ইকার্দি। শতভাগ ফিট না হওয়ায় ইরাকের বিপক্ষে খেলা হয়নি ইকার্দির। চোট কাটিয়ে ব্রাজিলের বিপক্ষে মাঠে নামতে প্রস্তুত ইন্টার মিলান তারকা, ‘এখন আমি পুরোপুরি সুস্থ। মাঠে নামতে প্রস্তুত।’   এসি    

আর টাকা দেব না ক্যাথরিনকে: রোনালদো

ধর্ষণের শিকার মার্কিন মডেল ক্যাথরিনকে আর টাকা দেবেন না পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগের তদন্ত নতুন করে শুরু হওয়ার পর একথা বললেন সিআর সেভেন। সম্প্রতি বোমা ফাটিয়েছে জার্মানির বিখ্যাত পত্রিকা ডার স্পাইগেল। সংবাদমাধ্যমটির ভাষ্য, রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন সাবেক মার্কিন মডেল ক্যাথরিন মায়োরগা। ২০০৯ সালে লাস ভেগাসের এক হোটেলে তাকে ধর্ষণ করেন পর্তুগিজ যুবরাজ। ২০১০ সালে আদালতের বাইরে অর্থের বিনিময়ে তা মিটমাট করে ফেলেন তারা। ওই সময় বর্তমানে শিক্ষকতা করা সেই নারীকে ২ কোটি ৭৫ লাখ ১৫ হাজার ৬২৫ টাকা দেন হালের ফুটবল মহাতারকা। তবে বিষয়টি গোপন রাখতে রোনালদোর সঙ্গে করা চুক্তিকে এখন গুরুত্বহীন মনে করছেন ক্যাথরিন। তাই ফের তদন্তের অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। নতুন করে তদন্তে নেমেছে লাস ভেগাস পুলিশ। কিন্তু এবার বেঁকে বসেছেন ৩৩ বছর বয়সী ফুটবলার। সাফ জানিয়ে দিলেন, ক্যাথরিনকে আর কোনো টাকা পয়সা দেবেন না তিনি। ধর্ষণের ঘটনা নতুন করে প্রকাশ্যে আসার পর তা অস্বীকার করে আসছেন রোনাল্ডো। এখন পর্যন্ত নিজের অবস্থানে অনড় আছেন। ইতোমধ্যে ক্যাথরিনের তোলা অভিযোগ খণ্ডন করতে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছেন তিনি। দিয়েছেন একাধিক আইনজীবী নিয়োগ। তারা বাদীপক্ষের আইনজীবীর বিরুদ্ধে লড়ছেন। রোনালদোর আইনজীবী পিটার ক্রিশ্চিয়ানসেন বলেন, আমরা আর অতীতের ভুল করতে চাই না। কথিত ধর্ষিতাকে আর কোনো অর্থকড়ি দিতে চাই না। আইনের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা আছে। দোষ না করলে আমাদের মক্কেল নির্দোষ প্রমাণিত হবেই। মায়োরগার অভিযোগ, তাঁর সঙ্গে রোনালদো পরিচয় হয় এক বিখ্যাত নাইটক্লাবে। তখন মায়োরগা ওই নাইটক্লাবে চাকরি করতেন। ২০০৯-এ  রোনালদো সেই সময় ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে বিশ্বের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় হিসেবে রিয়াল মাদ্রিদে যাওয়ার জন্য পা বাড়িয়েছেন। সে যাই হোক, একটা সময়ের পর সেই নাইটক্লাবে দুজনের মধ্যে বন্ধুত্ব হয়ে যায়। একপর্যায়ে তাঁকে নিজের হোটেলের ঘরে আসার আমন্ত্রণ জানান সিআরসেভেন। আমন্ত্রণ রক্ষা করতে গিয়েই মহাবিপদে পড়েন মায়োরগা। দ্য গার্ডিয়ান-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, মায়োরগা বলেছেন, `রোনালদো আমাকে ওঁর গোপনাঙ্গ ৩০ সেকেন্ডের জন্য ধরতে বলে। আমি প্রথম হেসে উড়িয়ে দেই। বলি, তুমি নিশ্চয়ই মজা করছ! রোনাল্ডোর যৌন আবেদনে অনেকে মুগ্ধ। কিন্তু তখন ওঁর ভিতরে থাকা নোংরা মানুষটার পরিচয় পাই। মায়োরগা বলেন, ও (রোনালদো) আমাকে অ্যানাল সেক্সের প্রস্তাব দেয়! বিপদ বুঝতে পেরে ছাড়া পাওয়ার আশায় আমি বড়জোর চুম্বনে রাজি হই। কিন্তু সে আরও উত্তেজিত হয়ে পড়ে। আমাকে হোটেল রুমে আটকে রাখে ও। একপর্যায়ে জোর করে আমার সঙ্গে সে বিকৃত যৌনতা শুরু করে। আমি ওর কাছে অনুরোধ করি। কিন্তু ও তখন কোনও কিছু শোনার মতো অবস্থায় ছিল না। ও যেন মত্ত হয়ে উঠেছিল। নির্যাতনের পরও ও আমাকে রুম থেকে বেরোতে দিচ্ছিল না। শেষে অনেক কষ্টে বেরিয়ে আসি। পরদিন থানায় গিয়ে পুলিশে অভিযোগ জানাই। অবশ্য এবারই প্রথম নয়। বছর দেড়েক আগে এই ম্যাগাজিন আরও একবার মায়োরগার পক্ষ থেকে রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তোলে। সেবারও সে অভিযোগ ধোপে টেকেনি। আবারও সেই একই অভিযোগ তোলায় রোনালদোর আইনজীবী ম্যাগাজিনের বিপক্ষে আদালতে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন। এ সংক্রান্ত আরো খবর রোনালদোর ধর্ষণ: সেদিন কী হয়েছিল, জানালেন মার্কিন তরুণী   / এআর /

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি