ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৮ ২১:৫৩:১০

ট্রাম্পের কটুক্তির বিরুদ্ধে ৩০০ মিডিয়া

ট্রাম্পের কটুক্তির বিরুদ্ধে ৩০০ মিডিয়া

মিডিয়ার বিরুদ্ধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ধারাবাহিক আক্রমণের প্রতিবাদে প্রায় ৩০০ এর বেশি মার্কিন সংবাদ মাধ্যম প্রতিষ্ঠান এক ক্যাম্পেইন চালু করেছে। এদিকে বস্টন গ্লোব গত সপ্তাহে সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ‘নোংরা যুদ্ধের’ নিন্দা জানিয়ে ‘#EnemyOfNone’ হ্যাশটাগ ব্যবহার করার ডাক দিয়েছে। ট্রাম্প মিডিয়াকে নিন্দা জানিয়ে ‘ভুল সংবাদ’ এবং সাংবাদিকদেরকে ‘জনগণের শত্রু’ বলে আখ্যায়িত করেছে।   মিডিয়ার বিরুদ্ধে ট্রাম্পের এই ধারাবাহিক মন্তব্য ঝুঁকি হিসেবে দেখা দিতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন।  এদিকে বস্টন গ্লোবের ডাকে সাড়া দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান সংবাপত্রগুলোর পাশাপাশি ছোট ছোট স্থানীয় গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানগুলোও তাদের প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে। ট্রাম্পের সমালোচনার কারণে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে সহিংসতা শুরু হতে পারে- এমন উদ্বেগের সঙ্গে একমত নন ৫২ শতাংশ উত্তরদাতা। অপরদিকে ৬৫ শতাংশ উত্তরদাতা বলেছেন, সংবাদ মাধ্যম যে গণতন্ত্রের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ, তা তারা বিশ্বাস করেন। বস্টন গ্লোবের সম্পাদকীয়র শিরোনাম করা হয়েছে, ‘সাংবাদিকরা শত্রু নয়’। সেখানে মনে করিয়ে দেওয়া হয়েছে- ২০০ বছরের বেশি সময় ধরে আমেরিকান মূলনীতিগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা।   তথ্যসূত্র: বিবিসি।   এমএইচ/ এসএইচ/  
ইমরান হচ্ছে পাকিস্তানের ডোনাল্ড ট্রাম্প: ট্রেভর নোয়াহ  

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার অপেক্ষায় থাকা ইমরান খানকে পাকিস্তানের ডোনাল্ড ট্রাম্প হিসেবে অাখ্যায়িত করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকান কমেডিয়ান, রেডিও ও টেলিভিশন উপস্থাপক এবং অভিনেতা ট্রেভর নোয়াহ।   এই মন্তব্য করায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পাকিস্তানিরা ট্রেভরকে নিয়ে তুমুল সমালোচনা করেছে।   আফ্রিকান এই কমেডিয়ান মার্কিন কেবল টেলিভিশন চ্যানেলর ডেইলি শো-এর উপস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছেন। ওই ডেইলি শো’র সর্বশেষ এপিসোডে ইমরানকে নিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।    এসময় তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ইমরান খানের পার করে আসা সময়ের জীবন-যাপন ও ব্যক্তিগত সম্পর্কগুলো সামনে নিয়ে আসেন। তাদের জীবন কাহিনী উল্লেখ করে তিনি বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ইমরান খানের রাজনীতিতে আসার প্রারম্ভিক জীবন কাহিনী প্রায় একই। তিনি ইমরান খানের শোয়ার ঘরের কিছু দৃশ্য দেখিয়ে বলেন, এটি পাকিস্তানি ট্রাম্প টাওয়ার। উল্লেখ্য, ট্রেভর নোয়াহ হাস্যরসাত্মক ও কৌতুকপূর্ণ সংবাদ পরিবেশনের জন্য বিশ্বজুড়ে তার ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। সূত্র: গাল্ফ নিউজ এমএইচ/এসি       

ভারতকে ‘চুরি যাওয়া’ বুদ্ধমূর্তি উপহার ব্রিটেনের   

নালন্দা সংগ্রহশালা থেকে ৫৭ বছর আগে চুরি হয়েছিল এই দুষ্প্রাপ্য বুদ্ধমূর্তি। ঠিক ৭২ তম স্বধীনতা দিবসের প্রাক্কালে এই মূর্তিটিই উদ্ধার করে ভারতকে উপহার দিল ব্রিটেন। তবে খুব সহজে মূর্তিটি পাওয়া যায়নি। তার সঙ্গে জড়িয়ে আছে এক লম্বা গল্প।   ১৯৬১ সালে এই মূর্তিটির সঙ্গে নালন্দা সংগ্রহশালা থেকে চুরি হয়ে গিয়েছিল আরও চোদ্দটি বুদ্ধমূর্তি। তারপর অ্যান্টিকের চোরাবাজারে তা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন হাতে ঘুরতে থাকে। কয়েক বছর আগে রূপোয় মোড়া ব্রোঞ্জের তৈরি এই মূর্তিটি লন্ডনের একটি নিলাম ঘরে প্রথম নজরে আসে প্রত্নতাত্ত্বিকদের। যদিও নিলাম সংস্থাটি জানতো না, এই মূর্তিই ভারত থেকে চুরি করা হয়েছিল। ভারত ও ইংল্যান্ডের প্রত্নতত্ত্ববিদেরা তখন ব্রিটিশ পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এরপর আর নিলাম হাউস থেকে যিনি মূর্তিটি কিনেছিলেন, তিনি আপত্তি করেননি। মূর্তি আসে স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের হাতে। বুধবার ৭২ তম স্বাধীনতা দিবসে লন্ডনের ইন্ডিয়া হাউসে ভারতীয় হাই কমিশনারকে এই মূর্তিটি উপহার হিসেবে তুলে দেয় স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড। হাজির ছিলেন ব্রিটিশ সরকারের সংস্কৃতি দফতরের কর্তাব্যক্তিরাও। যেভাবে এতপুরনো বুদ্ধমূর্তি খুঁজে বের করেছেন ব্রিটিশ গোয়েন্দারা তার জন্য স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডকে বিশেষ ধন্যবাদ দিয়েছে ভারতও। এসি   

সিঙ্গাপুরে ব্যাপক হারে বৃদ্ধদের আত্মহত্যা বেড়েছে       

সিঙ্গাপুরে বৃদ্ধদের আত্মহত্যার হার অনেক বেড়ে গেছে। গত বছর ষাট বছরের বেশি বয়সিদের আত্মহত্যার হার যে কোনো বছরের তুলনায় বেশি ছিল৷ বৃদ্ধদের মাঝে এই আত্মহত্যার প্রবণতার কারণ এবং তা প্রতিরোধে কী উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে তা জানতে ডয়চে ভেলে কথা বলেছে এক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে৷    গত বছর সিঙ্গাপুরে ষাট বছরের বেশি বয়সি ১২৯ ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন৷ এর আগে কখনো এক বছরে দেশটিতে প্রবীণদের এত বেশি আত্মহত্যা করতে দেখা যায়নি৷ আত্মহত্যা রোধে কাজ করা সংগঠন ‘সামারিটানস অফ সিঙ্গাপুর (এসওএস)` মনে করে, সিঙ্গাপুরে বয়োজ্যেষ্ঠ মানুষের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে৷ অথচ তাঁদের জীবনমান উন্নয়নের দিকে তেমন গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে না৷ সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশটিতে ৬৫ বছর বয়সি মানুষের সংখ্যা ২০৩০ সাল নাগাদ বর্তমানের দ্বিগুন হবে৷ সিঙ্গাপুরে বয়োজ্যেষ্ঠরা বন্ধুবান্ধব এবং পরিবারের সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগে ঘাটতিসহ শারীরিক দুর্বলতা এবং নিজেকে পরিবারের বোঝা মনে করাসহ নানা সমস্যায় ভোগে৷ সাক্ষাৎকারে এসওএস-এর ক্রিস্টিন ওয়াং সিঙ্গাপুরে বৃদ্ধদের মাঝে আত্মহত্যা বৃদ্ধির কারণ এবং তা প্রতিকারের উপায় জানিয়েছেন৷ ডয়চে ভেলে: সিঙ্গাপুরে ২০১৭ সালে আত্মহত্যার হারের সঙ্গে অন্যান্য বছরের তুলনা করলে কী বেরিয়ে আসে? ক্রিস্টিন ওয়াং: ২০১৭ সালে আসলে সিঙ্গাপুরে আত্মহত্যার সামগ্রিকহার অন্যান্য বছরের তুলনায় সবচেয়ে কম ছিল৷ দেশটির প্রতি একলাখ বাসিন্দার মধ্যে আত্মহত্যায় মৃত্যুর হার ছিল মাত্র ৭ দশমিক চুয়াত্তর শতাংশ৷ অথচ ২০১২ থেকে ২০১৬ সাল অবধি এই হার ছিল ৯ দশমিক ১৪ শতাংশ৷ যদিও ২০১৭ সালে আত্মহত্যার সংখ্যা আগের পাঁচ বছরের তুলনায় সবচেয় কম, মানে ৩৬১টি ছিল, ষাট বছরের বেশি বয়সি মানুষের কথা বিবেচনা করলে তা ছিল আগের যে কোনো বছরের তুলনায় সবচেয়ে বেশি - ১২৯টি৷ বৃদ্ধদের মাঝে আত্মহত্যার এই উচ্চহার সিঙ্গাপুরের জন্য অত্যন্ত উদ্বেগের ব্যাপার৷ সামগ্রিকভাবে আত্মহত্যার হার কমলেও বৃদ্ধদের মাঝে তা বাড়ছে কেন? মুলত আত্মহত্যা বিষয়ক সামাজিক এবং সম্প্রদায়ভিত্তিক সচেতনতাই এর হার সামগ্রিকভাবে কমানোর পেছনে সহায়তা করেছে৷ এক্ষেত্রে এসওএস-এর সদস্যদেরও ধন্যবাদ দেয়া উচিত৷ এসওএস সক্রিয়ভাবে আত্মহত্যার কুফলের বিষয়ে মানুষকে সচেতন করছে এবং কারো মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা দেখা দিলে তার উপযুক্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা করছে৷ তবে, বয়োজ্যেষ্ঠরা সম্ভবত আত্মহত্যারোধে যেসব প্রচারণা চালানো হচ্ছে এবং উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে, সেসবের ব্যাপারে যথেষ্ট অবগত নন৷ যখন তাঁরা এসব জানেন না, তখন আরো বেশি অসহায়বোধ করেন৷ আর তাতে তাঁরা আরো বেশি সমাজ থেকে দূরে সরে যান৷ সিঙ্গাপুরে বয়োজ্যেষ্ঠ মানুষের সংখ্যা বাড়ছে এবং একইসঙ্গে পরিবারের আকারও ছোট হচ্ছে৷ তাছাড়া বিশ্বায়নেরও একটা ভুমিকা আছে এখানে৷ কেননা, সিঙ্গাপুরের অনেক মানুষ অন্য দেশে কাজের জন্য যাচ্ছেন এবং সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন৷ তাঁদের অনেকেই পরিবারের বৃদ্ধ সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে যান না৷ ফলে তাঁরা আরো বেশি একাকি হয়ে যান৷ সেক্ষেত্রে বৃদ্ধদের মাঝে আত্মহত্যার প্রবণতা কমাতে কী করা যেতে পারে? আমাদের বিভিন্ন এজেন্সির মাধ্যমে তাঁদের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি তাঁদের ভালোবাসার মানুষদের এবং শুশ্রুষাকারীকে বয়োজ্যেষ্ঠদের মানসিকভাবে সহায়তার বিষয়ে আরো জ্ঞান দিতে হবে৷ আমাদেরকে আরো প্রচারণা চালাতে হবে এবং সতর্ক হতে হবে৷ কারো মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা দেখা দিলে তা প্রতিরোধে দ্রুত উদ্যোগ নিতে হবে৷ সূত্র: ডয়েচে ভেলে   এসি   

‘গড’ শব্দটি শুনেই যৌন নির্যাতন!

যাজকদের যৌন নিগ্রহ ও নিপীড়নের কথা বললেন ভুক্তভোগী রবার্ট ও ক্যারোলাইন। রবার্টের বয়স এখন ৮৩ বছর। ক্যারোলাইনের ৩৭। তারা বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের ছয়টি রোমান ক্যাথলিক গির্জা এলাকায় যাজকদের যৌন নিগ্রহ ও নিপীড়নের শিকার হয়েছে ১ হাজারের বেশি শিশু। যাদের মধ্যে আমরা দুজনও ছিলাম। রবার্ট বলেন, যাজক তাকে যৌন নির্যাতন করতেন। নির্যাতনে তিনি এতটাই দুঃসহ জীবযাপন করতেন যে স্ত্রীর সঙ্গে সময় কাটাতে পারতেন না। সন্তানদের প্রাণভরে কাছেও টানতে পারতেন না। ক্যারোলাইন বললেন, শিশু বয়সে তিনি যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যৌন নির্যাতন বেড়েছে। যখনই ‘গড’ শব্দটি শুনতেন, তারপরই যৌন নির্যাতন চলত। জীবনের সবটাই তার মিথ্যে বলে মনে হতো। এদিকে গ্র্যান্ড জুরির একটি তদন্ত প্রতিবেদন ১৪ আগস্ট প্রকাশিত হয়েছে। যাজকদের ধর্ষণ, উৎপীড়ন, মদ খাইয়ে যৌনতার কাজে ব্যবহারের শিকার ছেলে ও মেয়ে উভয় শিশুরা হলেও সবচেয়ে বেশি শিকার ছেলেশিশুরা। তদন্তে দেখা গেছে, কয়েক দশক ধরে তিন শতাধিক খ্রিষ্টান যাজক এসব ছেলে ও মেয়েশিশুর ওপর ভয়াবহ যৌন নির্যাতন চালান। গ্র্যান্ড জুরির ৮৮৭ পাতার প্রতিবেদন বলছে, নির্যাতিত শিশুর সংখ্যা প্রকৃতপক্ষে আরো অনেক বেশি হতে পারে। সূত্র-সিএনএন আরকে//  

পাকিস্তানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ৪ সেপ্টেম্বর

পাকিস্তানের বর্তমান প্রেসিডেন্ট মামনুন হুসাইনের মেয়াদ শেষ হবে আগামী ৯ সেপ্টেম্বর। তাই মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই এই পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৪ সেপ্টেম্বর। তবে দেশটির নিয়ম অনুসারে মেয়াদ শেষ হওয়ার এক মাস আগেই প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সম্পন্ন করার কথা। বৃহস্পতিবার দেশটির নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের এ তারিখ ঘোষণা দিয়েছে। কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী, আগ্রহী প্রার্থীরা ইসলামাবাদ ও চার প্রদেশে (বালুচিস্তান, খাইবার পাখতুনখওয়া, পাঞ্জাব ও সিন্ধ) প্রিসাইডিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারবেন। মনোনয়নপত্র আগামী ২৭ আগস্ট দুপুর ১২টার মধ্যে জমা দিতে হবে। আর এসব মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হবে ২৯ আগস্টের মধ্যে। এবং ৩০ আগস্ট দুপুর ১২টার মধ্যে প্রার্থীরা তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করতে পারবেন। একই দিন দুপুর ১টায় ঘোষণা হবে বৈধ প্রার্থীদের নাম। এরপর আগামী ৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টায় শুরু হবে ভোট গ্রহণ, চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এতে ভোট দেবেন জাতীয় পরিষদের সদস্য ও প্রাদেশিক পরিষদের সংশ্লিষ্ট সদস্যরা। প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের সদ্য অনুষ্ঠিত সংসদ নির্বাচনে জয় লাভ করে সরকার গঠন করতে যাচ্ছেন ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন তেহরিক-ই-ইনসাফ। এখন ধারণা করা হচ্ছে, তার দল থেকে মনোনীত কেউই নির্বাচনে জিতে পাকিস্তানের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্বে আসবেন। বর্তমানে প্রেসিডেন্ট পদে দায়িত্ব পালন করছেন ৭৭ বছর বয়সী মামনুন হুসাইন। তিনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান মুসলিম লিগ ক্ষমতায় আসার পর ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে রাষ্ট্রের প্রধান পদে দায়িত্ব নেন। সূত্র: ডন একে//

ধার করা কোর্ট পরে শপথ ইমরান খানের

পাকিস্তানের তারকা ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া ইমরান খান সব সময় একই পোশাক পড়েন। লম্বা সাদা পাঞ্জাবির সঙ্গে পাজামা। মঙ্গলবার পাকিস্তানের জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে অংশগ্রহণ করার সময়ও এই পোশাকেই ঢুকলেন ভাবী প্রধানমন্ত্রী। সংসদের রীতি অনুযায়ী নতুন এমপিদের ছবি তোলার প্রথা রয়েছে। আর এই ছবি তুলতে গিয়েই বিপত্তি বাধল ৬ ফুটের হ্যান্ডসাম প্রাক্তন ক্রিকেটারের। কেন? যিনি ছবি তুলবেন, তাঁর মোটেও পছন্দ হয়নি ইমরানের পোশাকখানি। সংসদের ছবি বলে কথা। জহর কোট বা জ্যাকেট না হলে চলে! সংসদের এই চিত্রগ্রাহকের আবদার ফেরালেন না ইমরান। তবে, তিনি এমন কান্ড করে বসলেন যা দেখে বিস্মিত খোদ চিত্রগ্রাহকই। বরাবরের স্মার্ট ইমরান এগিয়ে এসে চিত্রগ্রাহকের পরা ওয়েস্ট কোর্টটাই ধার চাইলেন। ভাবী প্রধানমন্ত্রীর এমন আবদার শুনে প্রথমে অবাক হয়ে যান চিত্রগ্রাহক। পরে অবশ্য কোটটি ইমরানকে শুধু দিয়েই ক্ষান্ত হননি, পরাতেও সাহায্য করেছেন তিনি। আর এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই বিশ্ব জুড়ে তা রীতিমতো ভাইরাল। ইমরান খানের এমন ব্যবহারে পরিনত কূটনীতি খুঁজে পাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। নির্বাচনে জয়লাভ করার পরই প্রাসাদপ্রমাণ ভবন ছেড়ে সাদামাটা ভবনে থাকার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। এমনকি শপথ গ্রহণে জাঁকজমক ব্যবস্থা করতে রাজি হননি। প্রথম থেকেই তিনি বার্তা দিয়েছেন গরিবের সরকার তৈরি হবে। এর জন্য নিজের জীবনযাপনেও পরিবর্তন আনেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক। আর এ দিন কোট ধার নিয়ে নয়া নজির গড়লেন ভাবী প্রধানমন্ত্রী। সংসদে এসে এদিন বিরোধী দলের নেতাদের সঙ্গে তাঁর সৌজন্যবোধ নজর কেড়েছে সবার। এদিন পাকিস্তান পিপলস পার্টির সমন্বয়ক বিলওয়াল ভুট্টো জারদারির সঙ্গে ছবি তোলেন ইমরান। উল্লেখ্য, মঙ্গলবারই প্রথম সংসদে পা দিলেন ২৯ বছর বয়সী বেনজির-পুত্র। তাঁকে শুভেচ্ছা জানান এই প্রবীণ রাজনীতিক। এ দিন ১৫ তম জাতীয় সংসদে শপথগ্রহণ পর্ব চলে। সংসদ সদস্য হিসাবে ইমরানকে শপথবাক্য পাঠ করান বিদায়ী অধ্যক্ষ আয়াজ সাদিক। ৩৪২ জন সাংসদ এ দিন শপথ পাঠ করেছেন। প্রসঙ্গত, জাতীয় সংসদে মোট আসনের ৩৪২টির মধ্যে ১৫৮টি আসন পেয়েছে পিটিআই। যার মধ্যে  ১১৬টি আসন নির্বাচনে জিতেছে ইমরান খানের দল। পিটিআইয়ের শরিক হয়েছেন ৯জন। বাকি সংরক্ষিত আসনে ২৮ জন মহিলা এবং ৫ জন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সাংসদ প্রতিনিধিত্ব করছেন। নওয়াজ় শরিফের দলের রয়েছে ৮২টি আসন। পাশাপাশি বিলওয়ালের পিপিপি পেয়েছে ৫৪টি আসন। সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন ও জিওটিভি। / এআর /

লাইফ সাপোর্টে অটলবিহারী বাজপেয়ী

সংকটজনক অবস্থায় ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী৷ নয়াদিল্লির এইমসে চিকিৎসা চলছে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর৷ গত দু’মাস ধরে এইমসে ভর্তি ছিলেন বাজপেয়ী৷ গত দু’দিন ধরে ভেন্টিলেশনে আছেন ৷   বুধবার রাত থেকেই অবস্থার আরও অবনতি ঘটে তার ৷ আপাতত লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন বাজপেয়ী৷ বুধবার বিকেলে এইমসে বাজপেয়ীকে দেখতে যান দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই লোকচক্ষুর আড়ালে ছিলেন বিজেপির প্রথম প্রধানমন্ত্রী৷ কিন্তু গত ১১ জুলাই থেকে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি৷ মূত্রনালীতে সংক্রমণ, শ্বাসকষ্টের জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তবে বাজপেয়ীর শারীরিক অবস্থা নিয়ে সরকারিভাবে কিছু জানানো হয়নি। সূত্র: নিউজ ১৮ একে//

বিস্ময় বালিকা এস্থার লি!

সিডনির পাঁচ বছরের খুদে শিশু এস্থার লি। তার মুখের দিকে তাকালে সত্যি অবাক হতে হয়। নিজের কানকে বিশ্বাস নাও হতে পারে। মনে প্রশ্ন জাগতে পারে, এও কীভাবে সম্ভব? বয়স মাত্র পাঁচ। অথচ এই বয়সেই সে ১৯৫টি শহরের নাম অনর্গল বলতে পারে। তাঁর এমন পাণ্ডিত্যের কারণে তাঁকে বিস্ময় বালিকা ছাড়া আর কীই বা বলা যেতে পারে!     ২০১৬ সালে মাত্র তিন বছর বয়সে বিরল কীর্তি করে সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছিল সে। বিশ্বের ১৯৫টি দেশের রাজধানীর নাম এক নিমেষে বলে দিতে পারত। এখন, যত বড় হচ্ছে দুনিয়াকে ততই বিস্মিত করে দিচ্ছে সে। কারণ বর্তমানে এই খুদে শিশু চোখ বন্ধ করে বলে দিতে পারে শেক্সপিয়ারের বড় বড় কবিতাও। এখানেই শেষ নয়। প্রতিভাবান লি এখন তিনটি ভাষায় সাবলীলভাবে কথা বলতে পারে। উচ্চারণে শৈশবের ছোঁয়া থাকলেও তার মস্তিষ্ক যে কোনও প্রাপ্তবয়স্ককেও হার মানায়। পাঁচ বছরের এই শিশু খেলাধুলো, পড়াশোনা খুব বেশি হলে নাচ-গান নিয়ে ব্যস্ত থাকবে, এমনটা দেখেই অভ্যস্ত সাধারণ মানুষের চোখ। কিন্তু এস্থার তো আর যে সে মেয়ে নয়। বাবা-মা তাঁকে কী খাইয়ে মানুষ করছেন, এমন প্রশ্ন অনেকের মনেই জাগে। সম্প্রতি একটি লাইভ অনুষ্ঠানে শেক্সপিয়রের ‘রোমিও জুলিয়েট’ শুনিয়েছে সে। যা ভাবতেও অনেকের অবাক লাগবে, তা বাস্তবে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে করে চলেছে লি। স্বাভাবিকভাবেই তার অসামান্য পারফরম্যান্স হাততালি কুড়িয়েছে দর্শকদেরও। শেক্সপিয়ার তার কতটা প্রিয়, সে কথাও জানাতে ভোলেনি খুদে ওস্তাদ। বলে, ‘শেক্সপিয়রের সব লেখাই আমার পছন্দ। উনি দারুণ কবি ছিলেন।’  মাত্র ১৮ মাস বয়সেই এস্থারের বাবা-মা বুঝেছিলেন তাঁদের সংসারে বিস্ময় বালিকার জন্ম হয়েছে। কারণ তখন থেকেই তাকে কোনও এক শহরের নাম বললে সে আর তা ভুলত না। এমন সন্তানের জন্ম দিয়ে গর্বিত ও আপ্লুত এস্থারের অভিভাবক। কেআই/এসি   

এবার মার্কিন পণ্যের উপর তুরস্কের দ্বিগুণ শুল্ক       

গত শুক্রবার তুরস্ক থেকে আমদানি করা অ্যালুমিনিয়াম ও স্টিলের ওপর দ্বিগুণ শুল্কারোপের ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।    এরই পাল্টা জবাবে মার্কিন পণ্যের উপর দ্বিগুণ শুল্কারোপ করে গেজেট প্রকাশ করেছে তুরস্ক। এরই মধ্যে রয়েছে যাত্রীবাহী গাড়ি, অ্যালকোহল ও তামাক।   মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পণ্যের উপর দ্বিগুণ শুল্কারোপের বিষয়ে তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘তুরস্কের অর্থনীতিতে মার্কিন হামলার জবাবে এ শুল্ক বসানো হয়েছে।’ মার্কিন যাজককে সন্ত্রাসবাদ মামলায় বিচার ও বিভিন্ন কূটনৈতিক কারণে দুই ন্যাটো মিত্রের মধ্যে উত্তেজনা চলছে দু’দেশের মধ্যে। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের সই করা ওই গেজেটে বলা হয়েছে, ‘মার্কিন যাত্রীবাহী গাড়িতে ১২০ শতাংশ, অ্যালকোহলে ১৪০ ও তামাক পাতায় ৬০ শতাংশ শুল্কারোপ করা হয়েছে। এছাড়া প্রসাধনী, চাল ও কয়লার মতো পণ্যে দ্বিগুণ শুল্ক বসিয়েছে তুরস্ক।   তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান আরও বলেন, ‘তুরস্ক অর্থনৈতিক যুদ্ধের টার্গেটে পরিণত হয়েছে। অর্থনীতিকে জাগিয়ে তুলতে তুর্কি নাগরিকদের নিজেদের ইউরো ও ডলারগুলো বিক্রি করে দিতে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত ওকাট বলেছেন, ‘আমাদের অর্থনীতির ওপর মার্কিন প্রশাসনের ইচ্ছাকৃত হামলার জবাবে তাদের বেশ কয়েকটি পণ্যে শুল্ক বাড়ানো হয়েছে।’    কেআই/এসি   

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি