ঢাকা, রবিবার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৩ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প উদ্বোধন করলেন চুমকি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:৫০ ৯ মার্চ ২০১৮ | আপডেট: ০৯:৫৪ ১০ মার্চ ২০১৮

আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০১৮উদযাপন উপলক্ষ্যে ‘উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প ২০১৮’ এর উদ্বোধন করেন নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বেগম মেহের আফরোজ চুমকি। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম এর আয়োজনে গতকাল বৃহস্পতিবার এর উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী। পাশাপাশি ‘উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প-২০১৭’-এর বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বেগম মেহের আফরোজ চুমকি। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম, এনডিসি, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী রওশন আক্তার এবং জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী মেহরীন। অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) এবং এটুআই প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার।

নারীদের বিভিন্ন সমস্যা চিহ্নিত করে উদ্ভাবনী আইডিয়ার মাধ্যমে সেগুলো সমাধানের জন্য এটুআই প্রোগ্রাম, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের যৌথ উদ্যোগে ২০১৬ সাল থেকে প্রতিবছর উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প আয়োজিত হয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় ‘নারীর দুর্ভোগ নিরসনে নারীর উদ্ভাবন’- প্রতিপাদ্য বিষয়ে ২০১৭ সালে আয়োজন করা হয়েছিল ‘উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প-২০১৭’। 

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এই প্রতিযোগিতার মূল উদ্দেশ্য হলো সমাজে নারীদের গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা চিহ্নিত করা এবং একটি উন্মুক্ত প্রতিযোগিতার মাধ্যমে নারীদের দ্বারা এগুলোর উদ্ভাবনী সমাধানের ব্যবস্থা করা। উক্ত প্রতিযোগিতায় নারীদের বিরুদ্ধে সাইবার অপরাধ, কর্মজীবী মায়েদের বিড়ম্বনা, নারীর সম্ভাবনাময় দক্ষতার ব্যবহার এবং বৃদ্ধ নারীদের বিবিধ সমস্যা এই ৪ টি ক্ষেত্রের আইডিয়া বিজয়ী হয়েছে।

বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রতিমন্ত্রী বেগম মেহের আফরোজ চুমকি। ২০১৬ ও ২০১৭ এর সফলতার ধারাবাহিকতায় চলতি বছরেও এটুআই এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত হচ্ছে “উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প-২০১৮”।

চিহ্নিত খাতগুলোর সমস্যা সমাধানে যে কোন বয়সের নারীদেরকে ব্যক্তিগতভাবে বা দলগতভাবে প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে অনলাইনে চিহ্নিত সমস্যাসমূহের উদ্ভাবনী সমাধান প্রদানের জন্যে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। আইডিয়া জমা দিতে এবং বিস্তারিত তথ্য জানতে প্রতিযোগিতার ওয়েবসাইট http://challenge.gov.bd/wic এ আগ্রহীদের যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। কার্যকর ও বাস্তবায়নযোগ্য শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনসমূহ প্রতিযোগিতায় চূড়ান্ত মনোনয়ন পাবে।

এছাড়াও বিজয়ী প্রকল্পসমূহ পাইলট আকারে বাস্তবায়নে এটুআই প্রোগ্রাম থেকে ২৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত অনুদান প্রদান করা হবে।

 

//এস এইচ এস//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি