ঢাকা, শনিবার   ২৩ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

বন্ধুত্ব অটুট রাখবেন যেভাবে

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:১৫ ২৯ অক্টোবর ২০১৯ | আপডেট: ১২:১৫ ২৯ অক্টোবর ২০১৯

জীবন বদলানো একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। সম্পর্কে এর প্রভাব পড়লে তখন দূরত্ব সৃষ্টি হয়। এছাড়া ব্যস্ততা ও ভুল বোঝাবুঝিতে বন্ধুত্বে ফাটল ধরে। তখন বন্ধুত্বের রং বদলায়। কিন্তু বন্ধুত্ব এমন একটি বন্ধন, এতে থাকা উচিত স্বার্থহীন ভালোবাসা। একে অন্যের খুশি এবং দুঃখে দাঁড়াতে হবে পাশে। তবেই এই বন্ধুত্ব হবে দৃঢ়।

আমরা অনেকেই বন্ধুত্বের অর্থ, মর্যাদা, গুরুত্ব না বুঝে সম্পর্কে জড়াই। এভাবে কিছু দিন যাবার পর বন্ধুত্বে চির ধরতে থাকে, যা একসময় ফাটলে রূপ নেয়। এ রকম পরিস্থিতিতে অনেকে কষ্টও পেয়ে থাকেন। তাই বন্ধু নির্বাচনে ভুল করলে জীবনে ছন্দ পতন ঘটাই আবশ্যক হয়ে দাঁড়ায়। এবার জেনে নেওয়া যাক কি কি করলে বন্ধুত্ব ধরে রাখা সম্ভব...

মনোভাবের পরিবর্তন
মনোভাব সম্পর্ক ভাঙতেও পারে আবার গড়তেও পারে। তাই কখন একপেশে মনোভাব পোষণ করা উচিত নয়। অবস্থানগত দিক সম্পর্কে দু’জনেরই ধারণা থাকা ভালো। এতে দূরত্ব সৃষ্টি হওয়া থেকে বাঁচা যায়। অন্যের জরুরিকে মনে প্রাধান্য দিন। তাতে দু’জনই মনের দিক থেকে ভাল থাকবেন।

পারস্পরিক সমঝোতা
চাকরি বা বিয়ের আগে যে বন্ধু জুটিকে সর্বত্রই একসঙ্গে দেখা যেত, সেই ছবিটা বদলে যাওয়াই স্বাভাবিক। পরিস্থিতি এমনটার জন্য দায়ী হবে পারে, তবে পারস্পরিক সমঝোতা থাকলে এগুলো মানিয়ে নেওয়া কোন অসম্ভব নয়। পারস্পরিক সমঝোতা থাকলে কঠিনতম পরিস্থিতি সামলে নেওয়া যায়।

সময় দিন
বন্ধুত্ব বাঁচিয়ে রাখতে হলে সময় দিন। সেটা দেখাসাক্ষাৎ হতে পারে, ফোন বা মেসেজ দিয়ে হতে পারে, উপহার দিয়ে হতে পারে। মোটকথা আপনার মন যে তার কথাই বলছে, এর একটি জানান দেওয়া।

দূরত্বও যখন জরুরি
কথায় বলে, দূরত্বে আসলে সম্পর্কের টান বাড়ে। রোজ দেখা, ঘন ঘন ফোনে কথা কিংবা একে অপরের সমস্ত খুঁটিনাটি সম্পর্কে অবগত থাকলেও একটা সময়ের পরে বন্ধুত্বও সজীবতা হারায়। তখন দেখা হলে নতুন কিছু ভাগ করে নেওয়ার মতো অবশিষ্ট থাকে না। তাই কোন কারণে যদি দুই বন্ধুর মধ্যে সাময়িক দূরত্ব তৈরি হয়, সেটা কিন্তু আখেরেই ভাল। তখন দেখা করার টান বাড়বে।

বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সম্পর্কের রং যেমন বদলায়, তেমনই বাড়তে থাকে নিজেদের পরিসরও। আত্মীয়ের সংখ্যা যেমন বাড়ে তেমনি বাড়ে বন্ধুর সংখ্যাও। কিন্তু এর মাঝেওপ্রিয়জনের জায়গা ঠিকই অটুট থাকে। তাই শঙ্কিত না হয়ে বরং ব্যক্তিগত সময়টুকু ভাল কাটানোর চেষ্টা করুন। তাতে বন্ধুত্ব দৃঢ় হবে আপনা থেকেই।

এএইচ/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি