ঢাকা, রবিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৮ ১:৩৪:৪৬

বিশ্ব অস্টিওপোরোসিস দিবস আজ

বিশ্ব অস্টিওপোরোসিস দিবস আজ

বিশ্ব অস্টিওপোরোসিস দিবস আজ। প্রতিবছর অক্টোবর মাসে আজকের দিনে অর্থাৎ ২০ অক্টোবর বিশ্বব্যাপী নানা সচেতনতামূলক কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি পালন করা হয়। দেশে সরকারি পর্যায়ে এই দিবসটি পালনে তেমন গুরুত্ব দেওয়া হয় না। তবে বেসরকারি পর্যায়ে বিভিন্ন হাসপাতাল ও সংস্থা দিবসটি পালন করে থাকে।বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অস্টিওপোরোসিস হলো ছিদ্রযুক্ত হাড়। মানুষের ৪০ বছর বয়সের পর থেকেই হাড়ের ভেতরে খনিজের বিশেষ করে ক্যালসিয়াম ও ফসফেটের পরিমাণ কমতে শুরু করে। এ কারণে হাড় ভঙ্গুর হয়ে যায়। এই হাড় ক্ষয় ধীরে ধীরে বাড়লেও কোনো লক্ষণ প্রকাশ পায় না। তবে যখন লক্ষণ প্রকাশ পায় তখন ঝুঁকি বেড়ে যায়।অস্টিওপোরোসিসে কোমরের হাড়, মেরুদণ্ড ও হাতের কব্জির হাড় সবচেয়ে বেশি ভঙ্গুর হয়ে থাকে। সামান্য আঘাত কিংবা কাজকর্মের সময় এই হাড়গুলো ভেঙে যাওয়ার ঝুঁকি তৈরি হয়। হরমোনজনিত সমস্যাসহ ডায়াবেটিস, হাইপার প্যারাথাইরয়েডিজম, যৌন হরমোন কমে যাওয়া এবং এড্রেনাল হরমোনের অপ্রতুলতা, কুশিং সিনড্রম, হাইপো পিটুইটারিজম কারণে হাড়ের ক্ষয় রোগ হয়। রিউমাটোলজি সোসাইটির এক গবেষণায় বলা হয়েছে, পঞ্চাশ বছর বয়সের পর প্রতি ৫ জন পুরুষের মধ্যে ১ জনের এবং প্রতি ৩ জনে ১ জন নারীর অস্টিওপোরোসিসের কারণে হাড় ভেঙে যায়। এসএ/  
আজ আন্তর্জাতিক ক্রেডিট ইউনিয়ন দিবস

আন্তর্জাতিক ক্রেডিট ইউনিয়ন দিবস আজ ১৮ অক্টোবর। প্রতিবছর অক্টোবর মাসের তৃতীয় বৃহস্পতিবার বিশ্বজুড়ে আনুষ্ঠানিক উদযাপিত হয় এ দিবসটি। এ বছরও বাংলাদেশসহ পৃথিবীর ১০৯টি দেশে ৬৮ হাজার ৮৮২টি ক্রেডিট ইউনিয়ন দিবসটি উদযাপন করছে। দিবসটি উপলক্ষে এ বছরের প্রতিপাদ্য হলো ‘সুরক্ষিত ভবিষ্যৎ অন্বেষণে ক্রেডিট ইউনিয়ন’। বাংলাদেশে ক্রেডিট ইউনিয়নসমূহের কেন্দ্রীয় প্রতিষ্ঠান দি কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লীগ অব বাংলাদেশ লিঃ (কাল্ব) এর নেতৃত্বে প্রতি বছর  জাঁকজমকপূর্ণভাবে দিবসটি উদযাপিত হয়ে থাকে।আন্তর্জাতিক ক্রেডিট ইউনিয়ন দিবস উদযাপন উপলক্ষে আজ সকালে কাল্ব এর আয়োজনে রাজধানীর আগারগাঁও-এ বর্ণাঢ্য র্যালি ও সমবায় অধিদপ্তর ভবনের মিনি অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন কাল্ব চেয়ারম্যান মি. জোনাস ঢাকী এবং প্রধান অতিথি থাকবেন সমবায় অধিদপ্তরের রেজিস্ট্রার ও মহাপরিচালক মোঃ আব্দুল মজিদ। এ ছাড়া বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় কাল্ব সদস্যভুক্ত ক্রেডিট ইউনিয়নসমূহ ওয়ার্ল্ড কাউন্সিল অব ক্রেডিট ইউনিয়নস্ (উকু) এর ডিজাইনকৃত পোস্টার, লিফলেট ও বুকলেট বিতরণ, প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিবসটি উদযাপন করছে। এসএ/  

আজ জগন্নাথ হল ট্র্যাজেডি দিবস

আজ জগন্নাথ হল ট্র্যাজেডি দিবস। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শোক দিবস। ১৯৮৫ সালের ১৫ অক্টোবর, দিনটি ছিল মঙ্গলবার। বিটিভির পর্দায় চলছিল মুক্তিযুদ্ধের পটভূমিতে নির্মিত জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘শুকতারা’।জগন্নাথ হলের ১৫০ বছরের পুরনো অনুদ্বৈপায়ন নামে ভবনের দোতলায় ছিল হলের টিভি কক্ষ। নাটকটি দেখার জন্য টিভি কক্ষে ভিড় করেছিলেন ২৫০-৩০০ জন। আগে থেকেই বৃষ্টি হচ্ছিল সেদিন। হঠাৎ বিকট শব্দে ছাদের মাঝের অংশ ভেঙে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে ধুলায় অন্ধকার হয়ে যায় পুরো কক্ষ। ঘটনাস্থলেই মারা যান ৩৪ জন। পরে মারা যান আরও ছয়জন। তাদের মধ্যে ২৬ জন ছিলেন ছাত্র, ১৪ জন ছিলেন কর্মচারী ও অতিথি। সেই দিনটিকে স্মরণ করতে আজকের এই দিবস। এ দিনটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শোক দিবস হিসেবে পালন করা হয়। এসএ/  

বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস আজ

আজ বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও দিবসটি পালন করা হচ্ছে। এ উপলক্ষে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে আলোচনা সভা, শোভাযাত্রাসহ সচেতনতামূলক বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। ‘স্বনির্ভর চলাই সাদাছড়ি নিরাপত্তার প্রতীক’- এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে দিবসটি পালন করা হবে।দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের অধিকার সুরক্ষা, সামাজিক মর্যাদা এবং তাদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে ১৯৭৪ সালে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে ১৫ অক্টোবরকে বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সাদাছড়ি বহনকারী দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে নিরাপদে পথ চলতে সাহায্য করার উদ্দেশ্যে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোই এ দিবসের মূল লক্ষ্য।চক্ষুরোগীদের নিয়ে কাজ করা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান লায়ন্স ইন্টারন্যাশনালের এক পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে, বিশ্বজুড়ে প্রায় ২৯ কোটি মানুষ পুরোপুরি ও আংশিকভাবে চোখে দেখে না। এসব দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী মানুষ চলাচলের জন্য হাতে সাদাছড়ি ব্যবহার করে থাকে। কারণ যারা চোখে দেখে তারা যাতে তাদের সহযোগিতা করে।নিরাপদে সড়কে ও অন্যান্য স্থানে চলাচলের সুযোগ করে দেওয়ার প্রতীক হিসেবে সাদাছড়ির ব্যবহার করা হয়।সমাজসেবা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, দেশে বর্তমানে প্রায় ৪০ লাখ দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী রয়েছে। অপুষ্টি, টাইফয়েড, আমাশয়, ডায়রিয়া, পোলিও, এসিড নিক্ষেপসহ বিভিন্ন দুর্ঘটনায় আক্রান্ত হয়ে দিন দিন এ সংখ্যা বাড়ছে।দিবসটি উপলক্ষে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সমাজসেবা অধিদপ্তর আজ সোমবার অধিদপ্তরে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে। এর আগে সকালে সচেতনতামূলক শোভাযাত্রা বের করা হবে। এ ছাড়া জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন, জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন আলোচনা সভা, শোভাযাত্রা, সাদাছড়ি বিতরণ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন সচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করবে। এসএ/    

আজ আবাইপুর গণহত্যা দিবস

আজ ১৪ অক্টোবর। ১৯৭১ সালের এই দিনে শৈলকূপার আবাইপুর ইউনিয়নে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর অতর্কিত আক্রমণে নির্মমভাবে শহীদ হয়েছিলেন অকুতোভয় ৪১ মুক্তিযোদ্ধা। এরপর থেকেই প্রতি বছর ১৪ অক্টোবর শৈলকূপায় আবাইপুর গণহত্যা দিবস হিসেবে নানা কর্মসূচি পালিত হয়ে আসছে। ঝিনাইদহ জেলার শৈলকূপা উপজেলা সদর থেকে ১৪ মাইল পূর্বে আবাইপুর ইউনিয়নের একটি অজপাড়াগাঁর নাম কুমিড়াদহ গ্রাম। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মনোয়ার হোসেন মালিথা জানান, তখন ১৯৭১ সালের ১৩ অক্টোবর দুপুর বেলা। সোর্স খবর নিয়ে এলো পাকিস্তানি সেনারা পার্শ্ববর্তী শ্রীপুর থানার খামারপাড়া গ্রামের বাড়িঘরে আগুন লাগিয়ে দিচ্ছে। পাকিস্তানি সেনারা আবাইপুর হয়ে এ পথেই শৈলকূপা থানা সদরে যাবে। তড়িঘড়ি করে মুক্তিযোদ্ধারা গোপন বৈঠকে বসলেন। দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো, পাকিস্তানি সেনাদের প্রতিরোধ করার। প্রতিরোধ সংগ্রামের মূল নেতৃত্ব স্বেচ্ছায় নিজ হাতে তুলে নিলেন পাকিস্তান বিমান বাহিনী থেকে পালিয়ে আসা এয়ারম্যান মজিবর রহমান। আবাইপুরের শ্রীপুর-শৈলকূপা প্রধান সড়কের পাশে খনন করা হলো পরিখা। ১৩ অক্টোবর বিকেল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত প্রধান সড়কের পাশে পরিখার মধ্যে মুক্তিযোদ্ধাদের অ্যাম্বুশরত অবস্থানের খবর গোপন থাকে না। মধ্যরাতের অন্ধকারে হানাদাররা শ্রীপুর থেকে এসে মুক্তিযোদ্ধাদের ওপর আক্রমণ চালায়। আকস্মিক এ আক্রমণে ৪১ মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন।এসএ/  

বিশ্ব মান দিবস আজ

‘চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের প্রেক্ষাপটে আন্তর্জাতিক মান’- এ প্রতিপাদ্য সামনে রেখে আজ পালন করা হচ্ছে বিশ্ব মান দিবস। পণ্য ও সেবার মানের বিষয়ে সচেতনতা তৈরিতে প্রতি বছর বিশ্বব্যাপী এ দিবসটি পালন করা হয়। অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও দিবসটি পালিত হচ্ছে। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু ও ভারপ্রাপ্ত শিল্পসচিব মো. আবদুল হালিম পৃথক বাণী দিয়েছেন। দিবসটি উপলক্ষে জাতীয় মান সংস্থা হিসেবে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই) বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে বিএসটিআইর প্রধান কার্যালয়ের পাশাপাশি আঞ্চলিক অফিসসমূহে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। বাংলাদেশ টেলিভিশনে বিশেষ সাক্ষাৎকারভিত্তিক আলোচনা অনুষ্ঠান সম্প্রচার এবং বাংলাদেশ বেতারে আলোচনা অনুষ্ঠান ও কথিকা সম্প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ব্যানার, ফেস্টুন, প্লাকার্ড লাগানো হয়েছে। যে কোনো সেবা ও পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণ ও সংরক্ষণে ভোক্তাদের সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি উৎপাদক ও সেবাদাতাদের জবাবহিদিকে অধিক গুরুত্ব দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।এসএ/  

বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস আজ

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও আজ ১০ অক্টোবর ‘বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস-২০১৮’ উদযাপন করা হবে। এ বছরে দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে ‘পরিবর্তনশীল বিশ্বে তরুণদের মানসিক স্বাস্থ্য’। দিবসটি উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগ, বাংলাদেশ ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি সোসাইটি এবং ন্যাশনাল ট্রমা কাউন্সেলিং সেন্টার, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়-এর যৌথ উদ্যোগে ৯, ১০ ও ১৩ অক্টোবর, ২০১৮ তিন দিন ব্যাপি বিশেষ কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। আজ ১০ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার ৩টি সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। সকাল ১০টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি)-এর মিলনায়তনে ‘পরিবর্তনশীল বিশ্বে তরুণদের মানসিক স্বাস্থ্য’-শীর্ষক উদ্বোধনী সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, এম.পি। ‘সংকটাপন্ন রোহিঙ্গাদের জন্য টেকসই মনোসামাজিক সেবা’- শীর্ষক ২য় সেনিমারটি অনুষ্ঠিত হবে দুপুর ১২টায়। এই সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ এবং ‘সময়ের দাবি- হাসপাতালে ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্টদের দ্রুত নিয়োগ দিন’- বিষয়ক ৩য় সেমিনারটি অনুষ্ঠিত হবে বিকেল ৩টায়। এছাড়াও বিশেষ আয়োজন হিসেবে থাকছে উন্মুক্ত মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রদর্শনী এবং ৯ অক্টোবর ৬টি ও ১৩ অক্টোবর ৫টি বিশেষ কর্মশালা। কর্মশালা সমূহের মধ্যে রয়েছে-মানবিক বিপর্যয়ে মানসিক স্বাস্থ্য এবং সুরক্ষা; প্যারেন্টিং স্কিল ট্রেনিং; উদ্বেগ ব্যবস্থাপনা; শিক্ষণ কৌশল; রাগ নিয়ন্ত্রন; মানসিক চাপ মোকাবেলা, মাইন্ডফুলনেস; অটিজম; ফ্যামিলি থেরাপি; নিউরোসাইকোলজি; স্ব-প্রণোদিত আসক্তি নিয়ন্ত্রন। উক্ত সেমিনার ও কর্মশালা সমূহের মাধ্যমে দেশের মানুষের মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা এবং মানসিক স্বাস্থ্যের বিকাশ ও অগ্রগতিতে তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এসএ/  

আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস আজ

তথ্যের অবাধ প্রবাহের প্রত্যয়ে দেশে পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস। সরকারি, বে-সরকারি প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে তথ্য অধিকার আইন প্রয়োগে আরও চর্চার প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করে, তথ্য কমিশন। আর সাম্প্রতিক সময়ে আইনি কিছু উদ্যোগ মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।‘তথ্য অধিকার আইন’ এর চর্চা জনগণের তথ্য পাওয়ার মৌলিক অধিকারের রক্ষা কবচ। আইন অনুসারে, প্রত্যেক প্রতিষ্ঠান তথ্য সংরক্ষণ ও প্রদানে বাধ্য। জনগণকে তথ্য প্রদান নিশ্চিত করতে সক্রিয় রয়েছে স্বাধীন তথ্য কমিশন। তথ্য প্রদানে এরই মধ্যে, সারাদেশে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ করা হয়েছে ৩৩ হাজার কর্মকর্তা। সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রায় ২৫ হাজার ওয়েব পোর্টালে ‘তথ্য বাতায়ন’ উন্মুক্ত। তবে, তৃণমূলের মানুষের কাছে, তথ্য পৌঁছানো এখনও চ্যালেঞ্জ বলেই মনে করে তথ্য কমিশন। এদিকে, সাম্প্রতিক সময়ে, সংসদে পাস হওয়া ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, তথ্য পাওয়ার ক্ষেত্রে বাধা বলে মনে করে গবেষণা প্রতিষ্ঠান টিআইবি।ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন রদ হলে তথ্যের অবাধ প্রবাহের পথ মসৃণ হবে বলেও মনে করেন ড. ইফতেখারুজ্জামান (নির্বাহী পরিচালক, ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল, বাংলাদেশ)। বিস্তারিত প্রতিবেদন দেখুন : এসএ/  

বিশ্ব শান্তি দিবস আজ

বিশ্ব শান্তি দিবস আজ ২১ সেপ্টেম্বর। প্রতি বছরের মতো এবারও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পালিত হচ্ছে দিবসটি। এ বছরের মূল প্রতিপাদ্য আন্তর্জাতিক মানবাধিকার। ৭০ বছর আগে জাতিসংঘের প্রস্তাবিত মানবাধিকার আইনকে এবারের মূল প্রতিপাদ্য ধরা হয়েছে। একটি যুদ্ধবিহীন বিশ্ব প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ১৯৮১ সালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে গৃহীত নম্বর ৩৬/৬৭ প্রস্তাব অনুসারে প্রতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসের ‘তৃতীয় মঙ্গলবার’ জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশন শুরু হওয়ার দিনটিকে ‘আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস’ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু পরবর্তীতে, ২০০১ সালের ৭ সেপ্টেম্বর, জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে গৃহীত ৫৫/২৮২ নম্বর প্রস্তাব অনুসারে ২০০২ সাল থেকে প্রতি বছরের ২১ সেপ্টেম্বর ‘আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস’ হিসেবে উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। দিবসটি উপলক্ষে প্রত্যেক দেশে দুই মিনিটের নীরবতা পালন করা হয়। সারা বিশ্বের শান্তি প্রতিষ্ঠাতেই এই দিবসের প্রস্তাব দেওয়া হয়। সেই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে দেশে দেশে সেমিনার ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। একে//

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি