ঢাকা, রবিবার   ১৮ এপ্রিল ২০২১, || বৈশাখ ৫ ১৪২৮

সৎকর্মে  মেলে অন্তহীন সুখের সন্ধান

প্রকাশিত : ১৭:১৭, ৪ মে ২০১৯ | আপডেট: ১৮:১২, ৪ মে ২০১৯

প্রতিটি মানুষই জীবনে সাফল্য, প্রশান্তি, প্রাচুর্য ও সমৃদ্ধি পেতে চায় কিন্তু অধিকাংশ মানুষের পক্ষেই তা পুরোপুরি অর্জন করা সম্ভব হয় না। ধন সম্পদের মালিক হতে চাওয়া মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। এই ধন-সম্পদ অর্জন করতে মানুষ যখন টাকার পিছনে দৌঁড়াতে দৌঁড়াতে সম্পদের পাহাড় গড়ে তোলে কিংবা ছলে বলে কৌশলে ক্ষমতা ও খ্যাতির শীর্ষে পৌঁছে যায় তখন তার ব্যক্তিগত ও পারিবারিক জীবন থেকে প্রশান্তি বিদায় নেয়। সম্পদ, খ্যাতি বা পদ তাকে শান্তি দিতে পারে না। তার জীবন শুরু হয় শূন্যতা দিয়ে আর শেষ হয় আরো বড় শূন্যতা ও হাহাকার দিয়ে।

মৃত্যু যত কাছে আসতে থাকে তাদের অশান্তি ও একাকীত্ব ততই বাড়তে থাকে। অথচ মৃত্যু চিরসত্য ও জীবনের অপরিহার্য পরিণতি। জীবন ও কর্ম সম্পর্কে, সফলতা ও ব্যর্থতা সম্পর্কে ভুল দৃষ্টিভঙ্গি মানুষের জীবনকে যন্ত্রণাময় করে তোলে। সঠিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে করা সৎকর্ম মানুষকে অন্তহীন সুখের সন্ধান দেয় যা ইহকাল ও পরকাল উভয়কালে বিস্তৃত। সৎকর্ম প্রশান্তি চিত্তে মৃত্যুর মুখোমুখি দাঁড়ানোর শক্তি যোগায়। আর সাধারণ মানুষকে অনন্য মানুষে রূপান্তরিত করে।

সৎকর্ম বা ‘আমলে সালেহ’ মানুষকে উন্নীত করে স্রষ্টার প্রতিনিধির মতো উন্নত মর্যাদায়। যে কোন মানুষ যদি সঠিক পন্থায় আমলে সালেহ বা সৎকর্ম সম্পাদনে ব্যস্ত থাকে তার কোন ভয়, অতৃপ্তি, অশান্তি থাকবে না। সে সাফল্য লাভ করবে ইহকালে ও পরকালে। আর সৎকর্ম সম্পাদন না করলে বস্তুগত উন্নতি সত্ত্বেও জীবনে নেমে আসবে হতাশ, শূন্যতা, ব্যর্থতা। সৎকর্ম এর আরবি প্রতিশব্দ ‘আমলে সালেহ’। ‘আমল’ শব্দের অর্থ হলো work -শারীরীক ও মানসিক কাজ বা শ্রম, labour-এমন কাজ যেখানে কায়িক শ্রম দিতে হয়, service-জনসেবা, action-সক্রিয় কর্মোদ্যোগ।

আমল বলতে আরবি ভাষায় এমন কাজকে বুঝায় যা কষ্ট ও পরিশ্রমের মধ্য দিয়ে করতে চায়। আমল দ্বারা শুধু দৈহিক নয়-মানসিক সক্রিয় কর্মোদ্যোগকেও বুঝায়। আমল বলতে এমন এক ধরনের কাজকে বুঝায় যার পিছনে বিশেষ উদ্দেশ্য নিহিত থাকে। আরবি ভাষায় ‘আমালু’ বলতে এমন এক উটকে বুঝায় যা উন্নতমানের, চমৎকার, সুঠামদেহী ও কর্মক্ষমতায় দ্রুতগতিসম্পন্ন, ‘সলেহ’ শব্দের শব্দগত অর্থ হলো good-ভালো, incorrupt righteous-কলুষমুক্ত, right-নির্ভুল বা সঠিক, , just-ন্যায়ানুগ, proper-সৎ, যথোচিত, righteous-ন্যায়নিষ্ঠ, virtuous-পবিত্র, honest-সৎ, thriving-প্রবৃদ্ধিশালী, suitable-উপযোগী, beneficial-মঙ্গলজনক, conducive-উপকারী, efficacious-ইপ্সিত ফলদানে সক্ষম, useful-প্রয়োজনীয়।

সব মিলিয়ে আমলে সালেহ বলতে এমন এক সক্রিয় শারীরিক ও মানসিক কর্মোদ্যোগকে বুঝায় যা সৎ উদ্দেশ্য নিয়ে করা হয়েছে এবং যা সঠিক ও যথাযথ (কুরআনের আলোকে), পূত পবিত্র; যা সামাজিক প্রয়োজনের সাথে মানানসই; যা ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে প্রয়োজন মেটাতে ও ইপ্সিত ফলদানে বা কল্যাণ প্রদানে সক্ষম। মোট কথা স্রষ্টার সন্তুষ্টির উদ্দেশ্য ব্যক্তি ও সমাজের কল্যাণ সাধনের জন্য করা যুগোপযোগী যে কোন চিন্ত, গবেষণা বা কর্ম প্রচেষ্টাকে আমলে সালেহ বা সৎকর্ম বলা যায়। 

সূত্র-‘সৎকর্ম: প্রশান্তি ও প্রাচুর্যেও সোপান’- ডা. আহমদ মরতুজা চৌধুরী 

এমএস//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি