ঢাকা, বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

অতিরিক্ত লবণে বাড়ে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৩২ ১৯ অক্টোবর ২০১৯

প্রতিদিনের খাদ্যে লবণ অপরিহার্য করে নিয়েছি আমরা। রান্নায় তো লবণ থাকেই আবার এই রান্না খেতে দিয়ে অনেকে বাড়তিও নিয়ে থাকেন। বাদাম, শসা এবং টক খেতে গিয়ে লবণ রাখা হয় এর সঙ্গে। কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু এই অতিরিক্ত লবণ খাওয়াকে অনেক রোগের কারণ হিসেবে বর্ণনা করেছে।

এই স্বাস্থ্য সংস্থাটি সমীক্ষা চালিয়ে দেখেছে অতিরিক্ত মাত্রায় লবণ খেলে শুধু রক্তচাপই বাড়ে না এর সঙ্গে সঙ্গে বাড়ে হার্ট অ্যাটাক আর স্ট্রোকের ঝুঁকিও! একই সঙ্গে একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যাও মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে পারে।

গবেষকরা ১৮৭টি দেশের সাধারণ মানুষের উপর সমীক্ষা চালিয়ে দেখেছেন অধিকাংশ দেশের মানুষ দিনে ৫ গ্রামের চেয়ে বেশি পরিমাণ লবণ খেয়ে থাকেন। তবে দিনে ৫ গ্রামের বেশি লবণ খাওয়া একেবারেই উচিৎ নয় বলে মন্তব্য করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু।

হু পরিচালিত ওই গবেষণায় জানা গেছে, গোটা বিশ্বের হিসাবে গড়ে একজন মানুষ ৩.৯৫ গ্রাম লবণ খেয়ে থাকেন। তবে মধ্য এশিয়ায় বসবাসকারী মানুষের লবণ খাওয়ার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি। এই অঞ্চলে বসবাসকারী কোন ব্যক্তি দিনে গড়ে প্রায় ৫.৫১ গ্রাম লবণ খেয়ে থাকেন। কোন কোন ক্ষেত্রে এর দ্বিগুণও খেয়ে থাকেন অনেকে। আবার গ্রাম অঞ্চলে অতিরিক্ত লবণ খাওয়ার প্রবণতা অনেক বেশি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানাচ্ছে, অতিরিক্ত মাত্রায় লবণ খাওয়ার অভ্যাস হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোকের ঝুঁকি অনেকটাই বাড়িয়ে দেয়। তাই সুস্থ থাকতে চাইলে সব মিলিয়ে প্রতিদিন ৫ গ্রামের বেশি লবণ (এক চায়ের চামচ) খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

বছর খানেক আগের একটি সমীক্ষা থেকে জানা যায়, প্রতিবছর ১৬ লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয় শরীরে অতিরিক্ত সোডিয়াম জমা হওয়ার কারণে। আর শরীরে সোডিয়ামের যোগান দেয় এই লবণ। 

এএইচ/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি