ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ২:৫৫:১৫

Ekushey Television Ltd.

ইন্টারনেট থেকে যে ৫ উপায়ে সন্তানদের দূরে রাখবেন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:০৪ এএম, ১৬ মে ২০১৮ বুধবার | আপডেট: ১২:৩২ পিএম, ১৬ মে ২০১৮ বুধবার

বর্তমান যুগে ইন্টারনেট ছাড়া যেন জীবন অচল। কেননা ইন্টারনেটের সেবার মাধ্যমে সারা বিশ্বের খবরারখবর ছাড়াও বিভিন্ন সমস্যা দূর করা সম্ভভ হচ্ছে। কিন্তু এদিকে আবার আপনার সন্তান ইন্টারনেটের প্রতি বেশিই আসক্তি হয়ে পড়ছে। এতে ইন্টারনেটে থাকা বিভিন্ন ভুল তথ্যের কারণে বিপদেও পড়তে হচ্ছে তাদের। এছাড়া পর্নোগ্রাফিতে বেশি আসক্তি হচ্ছে এখনকার সন্তানরা। এই দিকগুলো অবশ্যই নজর দেওয়া প্রয়োজন।

তাই আপনার সন্তানকে ইন্টারনেট থেকে দূরে রাখতে কিছু টিপস জানা প্রয়োজন। নিচে উল্লেখ করা হলো-

) সন্তানের প্রতি লক্ষ রাখুন : আপনার সন্তান কি দেখছে বা কি করছে তা লক্ষ্য রাখতে হবে। কিছু অনুষ্ঠান আছে শিক্ষণীয় ও মজার ভিডিও সেগুলা নিজেই ইউটিউব থেকে বেছে নিয়ে দেখতে দিতে পারেন সন্তানদের। বাসার টিভি বা অন্যান্য ইন্টারনেট যুক্ত ডিভাইস ঘরের এমন রুমে রাখুন যেখানে সবার যাতায়াত রয়েছে এবং চলার পথে দেখা যায় কে কি দেখছে। যদি সন্তানের রুমে টিভি বা কম্পিউটার থাকে তাহলে তা ব্যবহারের সময় দরজা খোলা রাখতে বলবেন।

) ব্যবহারের নির্দিষ্ট নিয়ম : ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট নিয়ম তৈরি করুন। যেমন- দিনের একটা নির্দিষ্ট সময় ব্যবহার করতে পারবে বা হোমওয়ার্ক শেষ হলে ব্যবহার করতে পারবে ইত্যাদি। আপনার সন্তান যদি একটু বড় হয় ও নিজে কম্পিউটার চালাতে পারে তাহলে তাকে রুটিন মানার ব্যাপারে বুঝাতে হবে ও না মানলে এক সপ্তাহ কম্পিউটার ধরতে দিবেন না এই জাতীয় শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। সন্তান যতো বড় হবে ও ইন্টারনেট ব্যবহারের ব্যাপারে স্বাধীন হবে, ততোবেশি খেয়াল রাখতে হবে।

) বাবা-মা উভয়ই সন্তানকে বুঝাবে : এক্ষেত্রে বাবা-মা দু’জনকে একত্রে কাজ করতে হবে। ইন্টারনেটের ব্যপারে দু’জনই সন্তানকে বুঝাবে। দেখা গেল, বাবা ইন্টারনেট ব্যবহার করতে নিষেধ করছে কিন্তু মা এর বিপরীত বলছে। এক্ষেত্রে সন্তানেরই ক্ষতি হবে। এতে ইন্টারনেট ব্যবহার কমে যাওয়ার থেকে বরং বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।

) বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন : যেসব সন্তান কম্পিউটারে গেম খেলে অভ্যস্ত কিংবা কম্পিউটার সম্পর্কে জানে তাদের কাছে লেখাপড়া খুব বিরক্ত লাগে। মোবাইল বা কম্পিউটারে খুব কম সময়েই লেখা ও পড়া যায়। প্রতিটা কাজও সহজেই করা যায়। তাই সেখানেই সবসময় পরে থাকতে চায়। এক্ষেত্রে ছোট থেকেই প্রতিদিন আপনার সন্তানকে বই পড়ে শোনান এবং বই পড়ার প্রতি আগ্রহী করে তুলুন। যখন তারা পড়তে শিখবে তখন ইন্টারনেটের প্রতি আসক্তিও কমে যাবে।

) সন্তানদের যা শেখাচ্ছেন তা নিজেও করুন : আপনি নিজেই ইন্টারনেটের প্রতি আসক্তি ঠিক তখনই যদি সন্তানকে বলেন ইন্টারনেট ব্যবহার না করতে তাহলে কি আর হবে? নিজেরা যদি এর পিছনে বেশি সময় দেন তাহলে সন্তানেরাও তাই দেখে শিখবে। তাই নিজের এসব গ্যাজেট ব্যবহার করা কমিয়ে দেন। ভার্চুয়াল জগতের চেয়ে বাস্তব জগৎকে বেশি মূল্য দেন। সন্তানদের সঙ্গে সময় কাটান। তার সঙ্গে খেলুন, তাকে ভালো কিছু শেখান আর এ সময় নিজের ল্যাপটপ বা ফোন বন্ধ রাখুন।

কেএনইউ/এসএ/

 



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি