ঢাকা, রবিবার   ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, || পৌষ ১ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

কাদের মৃত্যুভয় বেশি?

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৪:২৫ ১৭ মে ২০১৭ | আপডেট: ১৪:১৯ ১৫ জুন ২০১৭

ইহজাগতিক মায়াভরা পৃথিবীতে মৃত্যুই অনিবার্য সত্য। মৃত্যুকে পাশ কাটাবার স্বপ্ন মানুষ দীর্ঘদিন ধরে লালন করলেও সেই সক্ষমতা অর্জন এখনও সম্ভব হয়নি। তাই এই চূড়ান্ত পরিণতি মানতেই হচ্ছে মানুষকে। আর এই সত্যের সম্মুখীন হতে ভয় পান না, এমন মানুষ খুব কমই আছেন। তবে কাদের মৃত্যুভয় সব থেকে বেশি?— এই মর্মে সম্প্রতি একটি সমীক্ষা চালিয়েছিলেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। আর তাতেই উঠে আসে আশ্চর্য তথ্য।

‘রিলিজিয়ন, ব্রেন অ্যান্ড বিহেভিয়র’ নামক জার্নালে প্রকাশিত প্রবন্ধে উল্লেখ করা হয়েছে, গবেষকরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রায় ২৬,০০০ মানুষ সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করেন। ১৯৬১ থেকে ২০১৪ সালের মধ্যে প্রকাশিত প্রায় ১০০টি প্রাসঙ্গিক নিবন্ধ থেকে এই তথ্যগুলিকে একত্র করতেই জানা যায় এক আশ্চর্য সত্য।

গবেষকরা জানাচ্ছেন, মাত্র দু’ ধরনের মানুষই মৃত্যুকে ভয় পান না। এক নাস্তিক আর দুই, ধার্মিক। যদিও গবেষকরা ‘ডেথ অ্যাংজাইটি’-তে ভোগা মানুষের খোঁজ করছিলেন। তাঁরা জানিয়েছেন, অতিমাত্রায় ধার্মিক ব্যক্তি আর সম্পূর্ণ নাস্তিক ব্যক্তিরা এই একটি বিন্দুতেই সহমত পোষণ করেন। এই দুই বর্গের মানুষ সাধারণত ডেথ অ্যাংজাইটিতে ভোগেন না।

সৃষ্টিকর্তা, পরলোক, ইত্যাদি বিষয়ে গভীরভাবে বিশ্বাসী মানুষ তাঁদের বিশ্বাসের কারণেই মৃত্যুভয়কে অতিক্রম করতে পারেন। আর নাস্তিকদের ক্ষেত্রে বিষয়টা উল্টো। তাঁরা মৃত্যুভয়কে জয় করেন অবিশ্বাস দিয়ে। এক্ষেত্রে বিশ্বাস ও অবিশ্বাস একই পাতে বসে।

গবেষকদের মতে, মৃত্যুর চাইতে মৃত্যু যন্ত্রণাকেই বেশি ভয় পায় মানুষ। তার সঙ্গে থাকে প্রিয়জনকে ছেড়ে যাওয়ার দুঃখ, পার্থিবের প্রতি আসক্তি ইত্যাদি। অতিমাত্রায় ধর্মচর্চা এবং অতিমাত্রায় নাস্তিকতার চর্চা এই ভাবনাগুলোর জাল থেকে মানুষকে মুক্ত করে।

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি