ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, || আশ্বিন ২ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

কালোজিরা যেসব অসুখ রুখে দেয়

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:০১ ২৯ আগস্ট ২০১৯

অনেক গুণের জন্য কালোজিরা বিখ্যাত এটা অনেকেই জানেন। শরীর-স্বাস্থ্যের অনেক উপকার করে তাও জানেন। কিন্তু কিভাবে খেলে উপকার মিলবে তা কী জানেন?

অনেক পুষ্টিবিদ ও খাদ্যবিজ্ঞানীরাও বলেন, প্রতিদিন কালোজিরা খেতে পারলে শরীরের নানা অসুখের সঙ্গে লড়াই করা সহজ হয়। এবার জেনে নেওয়া যাক কালোজিরা কিভাবে খেলে কোন কোন রোগের ক্ষেত্রে উপকার পাওয়া যাবে তার বিস্তারিত: 

* সর্দি-কাশি রুখতে কালোজিরা দিয়ে ঘরোয়া চিকিৎসা নতুন কিছু নয়। একটি পরিষ্কার কাপড়ে কালোজিরা নিয়ে তা নাকের কাছে ধরে বড় করে শ্বাস টানুন কিছুক্ষণ। এর ঝাঁজ বুকে জমে থাকা শ্লেষ্মাকে টেনে বার করতে সাহায্য করে। নাক বন্ধের সমস্যাতেও এই উপায়ের জুড়ি মেলা ভার।

* কালোজিরাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ফসফরাস। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়াতে সাহায্য করে এই ফসফরাস। তাই জীবাণুর সংক্রমণ ঠেকাতে কালোজিরাকে অবহেলা করে প্রতিদিন খেয়ে যান।

* ক্রনিক পেটের সমস্যায় কাজে আসে এই ছোট জিনিসটি। কালোজিরা তাওয়ায় ভেজে গুঁড়া করে নিন। এবার আধাকাপ ঠাণ্ডা করা দুধে এই কালোজিরার এক চিমটে গুঁড়া মিশিয়ে খালিপেটে খান প্রতিদিন। দুধ ঠাণ্ডা হওয়ায় বদহজমও হবে না, উল্টা পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে কালোজিরার বদৌলতে।

* হঠাৎ শ্বাসকষ্টের সমস্যা শুরু হলে কালোজিরা কাপড়ে জড়িয়ে নাকের কাছে নিয়ে গন্ধ শুঁকুন। শ্বাসকষ্টের কষ্ট থেকে সাময়িক মুক্তি দিতে পারে এই ঘরোয়া উপায়।

* শুধু কালোজিরাই নয়, এর তেলও শারীরিক নানা সমস্যা সমাধানে কাজে আসে। ক্রনিক মাথাব্যথা বা মাইগ্রেনের সমস্যা থাকলে কালোজিরার তেল কপালে মালিশ করলে আরাম পাওয়া যায়।

* চুল পড়া রোধেও কালোজিরার তেল উপকারী। এক চামচ নারিকেল তেলের সঙ্গে সমপরিমাণ কালোজিরার তেল মিশিয়ে গরম করে নিন। মাথার ত্বকে এই তেল উষ্ণ অবস্থায় মালিশ করুন। টানা এক সপ্তাহ এমনভাবে মাখলে চুল পড়ার সমস্যা মিটবে অনেকটাই।

* ওবেসিটি রুখতে গ্রিন-টির সঙ্গে মিশিয়ে নিন কালোজিরার গুঁড়া। মেটাবলিজম বাড়িয়ে শরীরের মেদ ঝরাতে বিশেষভাবে কাজে আসবে এই কৌশল।

* বৃষ্টিতে ভেজার ফলে সর্দি-কাশি থেকে বুকে চাপ অনুভব হলে কলোজিরার তেল গরম করে বুকে ও পিঠে মালিশ করে চাদর গায়ে দিয়ে থাকুন কিছুক্ষণ। এভাবে কয়েকবার করলেই কষ্ট কমবে এবং কাশির প্রকোপ থেকেও রক্ষা পাবেন।

* উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভুগলে সপ্তাহে একদিন কালোজিরার ভর্তা রাখুন খাবারে। কালোজিরার অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। রক্তচাপের ওষুধের সঙ্গে এই পথ্য বিশেষ কার্যকর।

* কালোজিরা ব্যথা সারানোর অন্যতম উপায়। দীর্ঘদিনের পুরনো ব্যথা বা বাতের ব্যথায় কালোজিরার তেল মালিশ করলে কিছুটা স্বস্তি মিলবে।

* কালোজিরায় ফসফেট, ফসফরাস ও লৌহের উপস্থিতি অধিক পরিমাণে থাকায় রক্তস্বল্পতার রোগীরা খেলে এ থেকে উপকার পাবেন। এছাড়া কালোজিরায় অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট ও ক্যারোটিন থাকায় তা অ্যান্টিক্যান্সার হিসেবেও কাজ করে।

এএইচ/
 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি