ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, || আশ্বিন ৯ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

খালি পায়ে হাঁটুন, সুস্থ থাকুন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৬:১৬ ২২ জুন ২০১৭ | আপডেট: ১৯:৫২ ২৩ জুন ২০১৭

জুতা বা স্যান্ডেল ছাড়া আমরা হাঁটতে যেন ভুলেই গেছি। তবে ঘরের আশপাশে কিংবা পার্কে কিছুক্ষণ খালি পায়ে হাঁটার পরামর্শ দিয়ে থাকেন বিশেষজ্ঞরা।

খালি পায়ে হাঁটার রয়েছে স্বাস্থ্যগত উপকারিতা যা বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত। স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে খালি পায়ে হাঁটার উপকারিতা সম্পর্কে জানানো হয়। আসুন জেনে নেই খালি পায়ে হাঁটার উপকারিতা-

ঘুমের সমস্যা দূর করে

প্রাচীনকালে মাটির কাছাকছি থাকার উপকারিতা সম্পর্কে মানুষ বেশ ওয়াকিবহাল ছিলেন। দুঃশ্চিন্তা, মানসিক চাপ থেকে মুক্তি পেতে খালি পায়ে হাঁটার অভ্যাস বেশ কার্যকর। খালি পায়ে হাঁটলে শরীর থেকে ধনাত্বক আয়ন বেরিয়ে যায় এবং ঋনাত্বক আয়ন শরীরে প্রবেশ করে। ঋনাত্বক আয়ন হতাশা ও মানসিক চাপ দূর করে, ফলে ঘুম ভালো হয়। তাই বাগানে, সমুদ্র সৈকতে বা নদীর পারে খালি পায়ে হাঁটলে এবং সাঁতার কাটলে রাতে ভালো ঘুম হবে।

মেধা বৃদ্ধি

বিভিন্ন শরীরচর্চা যেমন মার্শাল আর্ট, যোগ ব্যায়াম খালি পায়ে করা হয়। কারণ, আমাদের শরীরের ৭০ শতাংশই পানি, তাই আমাদের শরীর যতো বেশি মাটির সংস্পর্শে আসবে ততোই কার্যক্ষম থাকবে। খালি পায়ে হাঁটার কারণে শরীরে আয়নের যে ভারসাম্য বজায় থাকে যা শরীর সুস্থ্য রাখতে সহায়ক, পাশাপাশি বিকাশ ঘটে মেধা ও মননের।

শারীরিক গড়ন ভালো রাখে

নামি ব্র্যান্ডের দামি জুতা-স্যান্ডেলের বেশিরভাগই সৌন্দর্য সর্বস্ব, শারীরিক কোনো উপকার মেলে না। বরং কিছু জুতা-স্যান্ডেল পরার কারণে পায়ের পাতা দূর্বল হয়ে যেতে পারে। বেশি উঁচু বা অসমতল জুতা পরলে পায়ের তলা সমানভাবে মাটিতে না পড়ার কারণে শারীরিক গড়নে সমস্যা দেখা দেয়। যার ফলাফল হতে পারে ঘাড় ব্যথা, পিঠ ব্যথা, হাঁটু ব্যথা ইত্যাদি। তাই খালি পায়ে হাঁটার অভ্যাস করতে হবে যাতে পায়ের পাতা, গোড়ালি ও পায়ের আঙ্গুল শক্তিশালী হয়। 

স্নায়ুর সংবেদনশীলতা বাড়ায়

প্রাকৃতিক সংবেদনশীলতা আমাদের স্নায়ুকে শক্তিশালী করে। তবে বর্তমান যুগের অনেকেরই এই অভিজ্ঞতা নেই জুতা-স্যান্ডেলের বদৌলতে। পায়ের তলার কিছু অংশ মাটির স্পর্শের প্রতি সংবেদনশীল। পাশাপাশি খালি পায়ে হাঁটলে রাস্তার দিকে বেশি মনোযোগী হই, ফলে আমাদের মন আরো সতর্ক হয় এবং স্নায়ুর সংবেদনশীলতা বৃদ্ধি পায়।

রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়

 

অভিকর্ষ বল সবকিছু নিজের দিকে টানে। তাই খালি পায়ে হাঁটলে পায়ের তলায় রক্ত সঞ্চালন বাড়ে। অন্যদিকে আমাদের হাঁটার পদ্ধতি বদৌলতে পুরো শরীরে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পায়।

হৃদরোগ দূরে রাখে

রক্ত সঞ্চালন যতো ভালো হবে রক্ত জমাট বেঁধে রক্তনালী বন্ধ হওয়া এবং ধমনির বিভিন্ন রোগবালাই ততোই দূরে থাকবে। খালি পায়ে হাঁটার কারণে লোহিত রক্তকনিকা বিদ্যুতায়িত হয় যা রক্ত ঘন হওয়া রোধে সহায়তা করে।

পেশি হাড় শক্ত করে

খালি পায়ে হাঁটার কারণে হৃদপিন্ডে রক্ত সঞ্চালন বাড়ে, ফলে হাড় ও পেশি শক্ত হয়। রোদে খালি পায়ে হাঁটলে হাড়ের ক্যালসিয়াম বৃদ্ধি পায়। তবে অবশ্যই ভোরে হাঁটাতে হবে কারণ ওই সময় সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মির মাত্রা কম থাকে। 

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

পায়ের তলায় থাকা অসংখ্য স্নায়ু শরীরে ইতিবাচক সংকেত পাঠায়। এটি আমাদের শরীরকে রোগের সঙ্গে লড়াই করার জন্য প্রস্তুত হতে সহায়তা করে, ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। তাই খালি পায়ে হাঁটা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়ক। সূত্র : ওয়েবএমডি


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি