ঢাকা, বুধবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, || আশ্বিন ৩ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

চাকরিতে বেতন বাড়ানোর কৌশল

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৬:০১ ১৮ আগস্ট ২০১৯

চাকরিতে স্বাভাবিক গতিতে বেতন বাড়বে এটাই নিয়ম। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই তা হয়ে উঠে না। এ নিয়ে অনেকেই থাকেন দুশ্চিন্তায়। আবার অনেকে কর্মস্থল পরিবর্তনের কথাও ভাবেন।

অনেক ক্ষেত্রে চাকরিদাতার সঙ্গে দরকষাকষির মাধ্যমে বেশি টাকা আয় করা হয়তো সম্ভব হবে। কিন্তু বাস্তবে অন্য বিষয়গুলো বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

বেতন বাড়ানোর জন্য যে বিষয়গুলো জরুরি তা এবার জেনে নেয়া যাক :

বয়সে তরুণ :

আপনার বয়স যখন ২০-এর ঘরে তখন বেতন সবচেয়ে দ্রুত বাড়বে। কারণ এসময় আপনি কম বেতনে চাকরি শুরু করেন এবং দ্রুত দক্ষতা, অভিজ্ঞতা অর্জন করে থাকেন। যা বেতন বাড়ানোর অন্যতম মাধ্যম।

গবেষণায় দেখা গেছে, বয়স যখন ৩০ এবং ৪০ এর ঘরে যায় তখন বেতন বৃদ্ধির গতি কমে যায়। আবার মানুষ যখন অবসরের দিকে অগ্রসর হয় তখন বেতন কমতে থাকে। এখনো পর্যন্ত দেখা যাচ্ছে প্রতিটি প্রজন্ম তাদের পূর্বসূরিদের তুলনায় বেশি বেতন পাচ্ছেন।

আর যারা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছেন তারা কিছুটা দেরিতে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করেন। কিন্তু পরবর্তী সময়ে তাদের বেতন বৃদ্ধি দ্রুততর হয়। যেসব গ্র্যাজুয়েট ১৯৮০ সালে জন্মগ্রহণ করেছেন তাদের বয়স যখন ২২ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে তাদের বেতন বেড়েছে গড়ে ৮ শতাংশ।

চাকরি পরিবর্তন :

বেতন বৃদ্ধির জন্য অফিসের বসের সঙ্গে দরকষাকষির চেয়ে চাকরি পুরোপুরি ছেড়ে দেবার চেষ্টা করতে পারেন। কেননা যেসব কর্মী একই প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন, ২০১৮ সালে তাদের বেতন বেড়েছে ০.৬ শতাংশ। কিন্তু একই সময়ে যারা চাকরি পরিবর্তন করেছেন তাদের বেতন বেড়েছে সাতগুণ বেশি অর্থাৎ ৪.৫ শতাংশ।

একজন কর্মী যখন নতুন একটি চাকরিতে যোগদান করেন তখন সে তার দক্ষতার সবটুকু দেয় এই বিবেচনায় আগের তুলনায় সে বেশি বেতন লাভ করে। অন্যদিকে চাকরি পরিবর্তন করলে বেতন বাড়ানোর জন্য দরকষাকষির সুযোগও বাড়ে।

থাকার জায়গা পরিবর্তন :

আপনি যদি সত্যিই বড় ধরনের বেতন বৃদ্ধি চান তাহলে আপনার বাসা পরিবর্তন করে অন্য জায়গায় যেতে পারেন। ২০১৬ সালের এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে চাকরি পরিবর্তন এবং একই সঙ্গে বাসস্থানের এলাকা পরিবর্তনের মাধ্যমে বেতন বেড়েছে ৯ শতাংশ।

যেসব এলাকায় চাকরি সুযোগ বেশি অর্থাৎ অফিস-আদালত, ব্যবসা-বাণিজ্য, কল-কারখানা বেশি সেইসব এলাকার কাছাকাছি বাসা পরিবর্তন করলে চাকরির সুযোগ বেশি হবে। কেননা কোন কাজে বেশি বেতন, কোন অফিসে বেশি বেতন এসব খবর অতি অল্প সময়ে চলে আসবে আপনার কাছে। ফলে আপনার সিদ্ধান্ত নিতে সহজ হবে।

পুরুষদের বেতন বেশি :

নারীদের তুলনায় পুরুষরা গড়ে ১৮ শতাংশ বেশি বেতন পান। এই ব্যবধান আরো বাড়তে থাকে যখন নারীরা মা হন। তখন পুরুষদের সমহারে বেতন বৃদ্ধি পায়না।

বেতন স্কেলের অবস্থান :

আপনার বেতন কত দ্রুত বাড়বে সেটি নির্ভর করছে আপনি কোন অবস্থানে রয়েছেন। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় বেতন স্কেল অনুযায়ী যারা সবচেয়ে নিচের অবস্থানে আছে, তাদের বেতন বেড়েছে সবচেয়ে বেশি। আর যারা সর্বোচ্চ পর্যায়ে আছেন তাদের বেতনও বেশ ভালোভাবে বৃদ্ধি পায়।

আসলে এসব বেতন বাড়ে পার্সেনটিজ অনুযায়ী। সেক্ষেত্রে যার স্কেল বড় তার বেতন বাড়ার পরিমাণও বড়। আর যার স্কেল ছোট তার পার্সেনটিজ বেশি হলেও মোটের ক্ষেত্রে কমই হয়।

অধিক উৎপাদনশীল হওয়া :

আমাদের বেতন কেন বৃদ্ধি পাবে? এর অনেক কারণ রয়েছে। এর সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদী কারণ হচ্ছে আপনি কতটা উৎপাদনশীল। আপনি যদি দক্ষ হন তবেই উৎপাদন বৃদ্ধি করতে পারবেন। আপনি যদি অধিক উৎপাদন দেখাতে পারেন সেক্ষেত্রে আপনার বেতনও তেমনি অধিক হারেই বৃদ্ধি পেতে পারে।

এএইচ/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি