ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

চুল লম্বা করার ৬ উপায়

প্রকাশিত : ১০:৫৬ ১৩ জুলাই ২০১৯

লম্বা ঘন চুল অনেকের কাছেই আকর্ষণীয়। আহা এ রকম চুল যদি আমার থাকতো! আফসোস করে এরকম বলে থাকেন অনেকেই। আফসোসের কিছু নেই, আপনার চুলকেও এ রকম করতে পারেন। তার জন্য ছয়টি উপায় অবলম্বন করতে হবে আপনাকে।

চুলের ঠিকঠাক যত্ন না নিলে কিছুতেই মজবুত ও লম্বা চুল মেলে না। এদিকে যত্নের জন্য প্রয়োজনীয় সময়ের অভাবের কারণেই অনেকে চুল ছোট করে ফেলেন। বড় চুল রক্ষণাবেক্ষণেও কিছুটা সময় যায় ঠিকই। তবু কিছু নিয়ম মানলে ও কম সময়ের যত্নেই চুল হয়ে উঠতে পারে মজবুত ও লম্বা।

এবার জেনে নিন রূপবিশেষজ্ঞদের গবেষণা থেকে পাওয়া চুল লম্বা করার ছয়টি উপায় :

তেলের ব্যবহার

তেল বাদ দিয়ে চুলের কোন আধুনিক যত্ন সম্ভব নয়। প্রতিদিন রাতে কয়েক ফোটা নারিকেল তেল ও এক চামচ ক্যাস্টর অয়েল মিশিয়ে গরম করুন। হালকা ঠান্ডা করে মাথায় ভাল করে মাখাতে থাকুন। এতে মাথার ত্বক ও চুল দুই-ই পুষ্টি পাবে। ফলে চুল হবে লম্বা এবং ঝকঝকে।

ডগা ছোট করুন

অনেকেই মনে করেন, লম্বা চুল ঘন ঘন ছাঁটলে ছোট হয়ে যাবে। আসলে বাস্তব কিন্তু ভিন্ন। প্রতি তিন মাস অন্তর অন্তর চুলের ডগা ছোট করুন। নইলে চুলের ডগা ফেটে যাবে। যার ফলে চুল বাড়বে না বা লম্বা হবে না।

ওষুধের ব্যবহার

অনেকের ক্ষেত্রে শারীরিক অসুখের কারণে চুল বাড়তে চায় না। কারো কারো চুল ঝরেও যায় এই রোগের জন্য। সে ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ভিটামিন বি, বায়োটিন ও অ্যান্টিঅ্যাক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ সাপ্লিমেন্ট বা ওষুধের প্রয়োজন পড়লে তাও নিতে হবে চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে।

কন্ডিশনার ব্যবহার

শ্যাম্পুর পর অনেকেই কন্ডিশনার ব্যবহার করেন না। চুল লম্বা চাইলে অবশ্যই শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে। নইলে চুলে রুক্ষ্ম ভাব দেখা দেবে এবং ডগা ফেটে যাবে। চুল বড় হবে না। তাই কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।

ঠান্ডা পানি

বর্ষা বা শীতকাল হোক চুল ধোয়ার জন্য গরম পানি একেবারেই ব্যবহার করা যাবে না। সবসময় ঠান্ডা পানি দিয়ে চুল ধৌত করতে হবে। এমনকি শ্যাম্পু ও কন্ডিশনারের পরও ঠান্ডা পানি দিয়ে ভাল করে চুল ধুয়ে নিন।

যন্ত্রের ব্যবহার নয়

ঘন ঘন চুল স্ট্রেট করা, কার্ল করা বা শুকনো করার জন্য ইলেকট্রনিক যন্ত্রের ব্যবহার করে থাকেন অনেকেই। এসব যন্ত্রের প্রভাবে চুল নষ্ট হয় খুব দ্রুত। এতে চুলের গোড়া আলগা হয় এবং ডগা ফাটে যায়। তাই একান্ত প্রয়োজন না পড়লে যন্ত্র এড়িয়ে চলুন। মাসে একবারের বেশি যন্ত্রের ব্যবহার না করাই ভাল।

এএইচ/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি