ঢাকা, শনিবার   ০৪ এপ্রিল ২০২০, || চৈত্র ২১ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

জন্মনিয়ন্ত্রক ওষুধ স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:১১ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১২:২৭ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৯

জন্মনিয়ন্ত্রক ওষুধের একটি মারাত্মক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে সতর্ক করেছেন গবেষকরা। তাঁরা জানিয়েছেন, বার্থ কন্ট্রোল পিল বা জন্মনিয়ন্ত্রক ওষুধ অতিরিক্ত মাত্রায় সেবনের ফলে মহিলাদের স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি প্রায় ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পায়।

সম্প্রতি মার্কিন গবেষণার একটি রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে মার্কিন গবেষক দল ১,১০০ জন ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর উপর পরীক্ষা চালিয়ে দেখেছেন, যারা অতীতে বা বর্তমানে বার্থ কন্ট্রোল পিল খেয়েছেন, তাদের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশের বেশি মহিলার মধ্যে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি রয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, বার্থ কন্ট্রোল পিল বা গর্ভনিরোধক ওষুধ খাওয়া বন্ধ করার পর প্রায় ১০ বছর পর্যন্ত স্তন ক্যান্সারের কোনও লক্ষণই পরিলক্ষিত হয় না। গবেষণায় প্রমাণ মিলেছে, ইস্ট্রোজেন কম পরিমাণে সেবন করলে এ ক্ষেত্রে ক্যান্সারের ঝুঁকি কম থাকে।

আমেরিকার ‘ফ্রেড হোচিনসন ক্যান্সার রিসার্চ সেন্টার’-এর গবেষকরা আরও জানতে পেরেছেন, যেহেতু মহিলারা বিভিন্ন ধরনের জন্মনিয়ন্ত্রক ওষুধ সেবন করে থাকেন বা বার্থ কন্ট্রোল পিল বেশি ব্যবহার করেন, তাঁদের ক্ষেত্রে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকটাই বেশি। সেজন্য জন্মনিয়ন্ত্রক ওষুধ সেবনের মাত্রা ও বিভিন্ন ধরনের জন্মনিয়ন্ত্রণের ফর্মুলেশন নিয়ে সতর্ক হওয়া অত্যন্ত জরুরি।

চিকিত্সকদের মতে, সাধারণত ৪০ বছরের কম বয়সী মেয়েদের মধ্যে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কম থাকে। অথচ, নতুন গবেষণায় দেখা যাচ্ছে ইস্ট্রোজেন বার্থ কন্ট্রোল কম্বাইন্ড পিল সেবনের ফলে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি ৫০ শতাংশ বেড়ে যায়। ২১,৯৫২ জন রোগী, যাঁরা বিধি নিষেধ মেনে চলেন, তাঁদের মধ্যে ১,১০২ জনের উপর টানা ১০ বছর ধরে গবেষণা চালিয়ে (১৯৯৯ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত) মার্কিন গবেষকরা এই তথ্য পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

এএইচ/

New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি