ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৯:৫৬:২২

Ekushey Television Ltd.

জেনে নিন খাঁটি চুনি চেনার সহজ উপায়

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৩:৫৩ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ রবিবার

অনেকে একে রত্নরাজ বলে থাকেন। চুনিকে সূর্যকান্তমণিও বলা হয়। সংস্কৃততে চুনিকে বলা হয় পদ্মরাগ, ফারসি ও আরবিতে এটিকে এয়াকুত বা ইয়াকুত বলা হয়।

চুনি বিভিন্ন রঙের হয়ে থাকে। প্রকৃষ্ঠ চুনির রং হয় টকটকে লাল। এ ছাড়া বাদামী লাল, কালচে লাল, কমলা ইত্যাদি, কালচে গোলাপি রঙের চুনিও পাওয়া যায়। খাঁটি চুনি কষ্ঠি পাথরে ঘষলেও ক্ষয়প্রাপ্ত হয় না। খাঁটি চুনির উপর সূর্যের আলো প্রতিফলিত হয় এবং প্রতিফলিত আলো তীব্রতর হয়ে শুকনো কাগজ বা ঘাসকে জ্বালিয়ে দিতে সক্ষম। এটি সূর্যের ছোট তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের নীল আলোকে শুষে নিয়ে তাকে বড় তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের লাল আলোতে রূপান্তরিত করতে পারে। কিন্তু প্রশ্ন হল এই রত্ন পাথরের ভিড়ে কী করে চিনবেন, কোনটা আসল আর কোনটা নকল? আসুন আজ জেনে নেওয়া যাক খাঁটি চুনি চেনার উপায়-

১) চুনি আসল হলে চোখের পাতায় রাখলে শীতলতা অনুভব করা যায়।

২) পদ্মের কুঁড়িতে রাখলে পদ্ম দ্রুত ফোটে।

৩) রুপোর পাত্রে রেখে সূর্যালোকে ধরলে পাত্রটি রক্তবর্ণ ধারণ করে।

৪) চুনি কাঁচা গরুর দুধে তিন চার ঘণ্টা রাখলে দুধের রং গোলাপি হয়ে যায়।

চুনির প্রাপ্তিস্থান

চুনা পাথরের ভেতরে জন্মায় বলে এর নাম চুনি। আফগানিস্তান, মায়ানমার, তাইল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, কানাডা, নরওয়ে, সুইজারল্যাণ্ড, অস্ট্রেলিয়া ও ব্রাজিলে চুনি পাওয়া যায়।

চুনির আয়ুর্বেদিক শোধন পদ্ধতি

লেবুর রস মেশানো পানিতে ২৪ ঘণ্টা ডুবিয়ে রাখলেই চুনির শোধন সম্পূর্ণ হবে।

সূত্র: জিনিউজ

একে//



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি