ঢাকা, মঙ্গলবার   ৩১ মার্চ ২০২০, || চৈত্র ১৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ঢামেক শিশু সার্জারী বিভাগ

দুই দিনের শিশুর শরীরে সফল অস্ত্রোপচার 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:০৮ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | আপডেট: ১৫:৪১ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সফল অস্ত্রোপচারের পর- একুশে টেলিভিশন

সফল অস্ত্রোপচারের পর- একুশে টেলিভিশন

জটিল রোগে আক্রান্ত দুই দিনের এক শিশুর শরীরে সফলভাবে অস্ত্রোপচার সম্পন্ন করেছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল’র (ঢামেক) শিশু সার্জারি বিভাগ। শিশুটি এখন সুস্থ রয়েছে বলে জানান শিশু সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মো. মাহবুবুল আলম। 

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত ৩১ জানুয়ারি রাজধানীর মিরপুরের বাসিন্দা মো. হৃদয়ের স্ত্রী একটি ছেলে সন্তানের জন্ম দেন। পরে ১ ফেব্রুয়ারি অসম্পূর্ণ গলনালী (ইসোফ্যাগাস) ও পায়ুপথবিহীন এ শিশুটিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়। এর তিনদিন পর (৫ ফেব্রুয়ারি) শিশু সার্জারি বিভাগের চিকিৎসকরা দুইটি অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে গলনালী পূনঃনির্মাণ ও পায়ুপথ তৈরী করেন। 

ডা. মো. মাহবুবুল আলম জানান, জন্ম নেওয়ার পর থেকে শিশুটির পেট ফুলে ছিল। সে মায়ের বুকের দুধ খেতে পারছিল না। এমন অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে পরীক্ষা করে দেখা যায় সে ‘ইসোফ্যাজিয়াল এ্যাট্রেসিয়া উইথ ট্রাকিওইসোফ্যাজিয়াল ফিস্টুলা উইথ এ্যানোরেক্টাল ম্যালফরমেশন’ রোগাক্রান্ত। 

তিনি আরও বলেন, ‘দুই দিনের শিশুর শরীরে অস্ত্রোপচার করা বেশ কঠিন ছিল। আমরা সফল হয়েছি।’ 

বাংলাদেশে এমন রোগাক্রান্ত শিশুর সংখ্যা কেমন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে এমন রোগাক্রান্ত শিশুর সংখ্যা কম। বেশিরভাগ শিশু অস্ত্রোপচারের পর মারা যায়। এ রোগে আক্রান্ত ঢাকা মেডিকেলে অপারেশন করা কোন শিশু এখনও বাঁচেনি। এটাই প্রথম।’

সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক ডা. আব্দুল হানিফ টাবলুর তত্ত্বাবধায়নে অস্ত্রোপচার করেন ডা. মো. মাহবুবুল আলম, ডা. সৈয়ম আব্দুল আদিল, ডা. পার্থ সারথী মজুমদার, ডা আশফাক নবী (কনক), ডা. জিয়াউল হক (জিয়া)। অবেদনবিদের (অ্যানেস্থিথিস্ট) মধ্যে ছিলেন ড. কে. এম শফিকুল আলম এবং তার সহকর্মীরা। অস্ত্রোপচার ও চিকিৎসার সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন ডা: জগলুল গাফফার খাঁন।
এমএস/

New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি