ঢাকা, রবিবার   ১৩ জুন ২০২১, || জ্যৈষ্ঠ ২৯ ১৪২৮

বন্ধ হচ্ছে না পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাস (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৪৯, ৫ জুন ২০২১

চট্টগ্রামে এক যুগের বেশি সময়ের চেষ্টায়ও ঝুঁকিপূর্ণ বসতিমুক্ত করা যায়নি পাহাড়গুলো। পাহাড়ে অবৈধভাবে বসবাসরতদের সরাতে সারা বছর প্রশাসনের কোনো উদ্যোগ না থাকলেও বর্ষা মৌসুম এলেই শুরু হয় উচ্ছেদে তোড়জোড়। প্রশাসন বলছে, বিভিন্ন পাহাড়ের মালিকানা নিয়ে উচ্চ আদালতে রীটসহ নানান জটিলতায় বসবাসরতদের সরানো যাচ্ছে না।

পাহাড়ের গা ঘেঁষে কিংবা পাহাড় কেটে বসতি গড়ে ঝুঁকি নিয়ে বসবাস। এ দৃশ্য নগরীর মতিঝর্ণার। একইভাবে টাংকির পাহাড়, বাটালি হিল, ফিরোজশাহসহ বিভিন্ন পাহাড়ে প্রতিদিনই গড়ে উঠছে ঝুঁপড়ি থেকে শুরু করে চার- পাঁচ তলার দালান।

বসবাসকারীরা জানান, বৃষ্টির সময় নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যাই। আমরা এখানে ছোট থেকে বড় হয়েছি তো সেজন্য ভয় পাচ্ছি না।

প্রতিবছরই উচ্ছেদ অভিযানে সেবা সংযোগ লাইনসমূহ বিচ্ছিন্ন করে জেলা প্রশাসন। কিন্তু কিছুদিন পর মানুষ আবারও ফিরে যায় পুরনো আবাসস্থলে। ২০০৭ সালে ভয়াবহ পাহাড় ধসে একদিনেই মৃত্যু হয় ১২৭ জনের। গত ১৪ বছরে মারা গেছে অন্তত ২৩৫ জন।

পাহাড় ধসে মৃত্যু ঠেকাতে রয়েছে ব্যবস্থাপনা কমিটি। মে মাসে কমিটির ২১তম সভায় সেবা সংস্থাসমূহকে পাহাড়ের অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে প্রতিনিধির নাম প্রস্তাবনা চেয়ে চিঠি পাঠানো হলেও এখনো কোনো সংস্থার সাড়া মেলেনি। 

পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ নাজমুল আহসান বলেন, যারা অবৈধভাবে এই পাহাড়গুলোতে বসবাস করছে তাদেরকে গ্যাস-পানির সংযোগ আছে। এই সংযোগগুলো বিচ্ছিন্ন করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়েছে।
 
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দফায় দফায় বৈঠক, তালিকা প্রণয়ন ও সুপারিশের মধ্যেই সীমাবদ্ধ অবৈধ বসতি সরানোর কাজ। 

নগর পরিকল্পনাবিদ ও সচেতন নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদার বলেন, অবৈধ বসবাস উচ্ছেদ না করার কারণ হচ্ছে স্বার্থান্বেষী মহলের লোভাতুর তৎপরতা, সেই তৎপরতা থামানোর জন্য কার্যকর কোন উদ্যোগ না নেয়া।

অবৈধভাবে সরকারি জমি দখল করে ভাড়া দেয়া এবং উচ্চ আদালতে মামলা চলমান থাকাসহ নানা জটিলতা থাকায় বিভিন্ন পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি উচ্ছেদে সীমাবদ্ধতার কথা জানায় প্রশাসন।

মোহাম্মদ নাজমুল আহসান বলেন, বেশ কয়েকটি পাহাড়ের ব্যাপারে হাইকোর্টে রীট আছে এবং সে রীটের আছে আসলে উচ্ছেদ করা যাচ্ছে না। 

পাহাড় ধসে প্রাণহানি ও মানবসম্পদ রক্ষায় সরকারি-বেসরকারি কোনো কার্যকর উদ্যোগ এখনও দৃশ্যমান নয়  বাণিজ্যিক নগরী চট্টগ্রামে।

ভিডিও-

এএইচ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি