ঢাকা, শুক্রবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, || অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৮

বিশ্বের বিচিত্র সব টয়লেট রেস্তোরাঁ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৫০, ১৯ নভেম্বর ২০২১ | আপডেট: ১৩:৫১, ১৯ নভেম্বর ২০২১

বিশ্ব টয়লেট দিবস ১৯ নভেম্বর। আর এই টয়লেট বা প্রকৃতির ডাকে সাড়ার দেওয়ার কৃতকর্মগুলো স্বাস্থ্যের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। এর মধ্যে লুকিয়ে রয়েছে কিছু মতাদর্শ।

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত যেমন বিস্ময়কর ও অদ্ভূত জিনিস দেখার আছে, তেমন সারা বিশ্বে কিছু অদ্ভূত রেস্তোরাঁও রয়েছে। বিশ্ব টয়লেট দিবসে জানা দরকার, সারা পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে রয়েছে টয়লেট-থিমযুক্ত রেস্তোরাঁ! এরমধ্যে অন্যতম হচ্ছে-

টয়লেট ক্যাফে, অহমদাবাদ, ভারত
এ দেশে এমন রেস্তোরাঁ প্রথম। গোটা রেস্তারাঁটি আউটডোর সিটিং হলেও সিটগুলি আসলে আস্ত এক একটি টয়লেট প্যান! হট কুপ্পা, পিত্‍জা বা ফ্রাইজ বসে খেতে হলে সেখানেই বসেই খেতে হবে! পুরোপুরি ভেজিটেরিয়ান রেস্তোরাঁটির মূল্য উদ্দেশ্য হল, সাফাই কারিগরদের সমাজে সমান অধিকার ও সম্মান প্রদান করা ও তাঁদের স্বাস্থ্য সচেতনতা গড়ে তোলা।

মডার্ন টয়লেট রেস্তোরাঁ, তাইপেই, তাইওয়ান
এই রেস্তোরাঁয় গ্রাহকদের একটি হ্যাপি পুপ-ফেস দিয়ে স্বাগত জানানো হয়। রয়েছে টয়লেট সিট, মলের আকৃতির আলো দিয়ে সাজানো।এছাড়া সিঙ্ক বা টয়লেট টাবে খাবার পরিবেশন করা হয়। এই রেস্তোরাঁর সাফল্য এতটাই যে তাইওয়ানে মোট ১০টি জায়গায় এর আউটলেট খুলতে হয়েছে।

টি-বোল, কুয়ালালামপুর, মালয়েশিয়া
টয়লেট চেয়ার, বেসিনের মতো টেবিল, বাসনপত্র হল বাথটব এবং পুরুষদের কিউবিকেল এবং খাবার দেখতে অনেকটা মলের মতো।  তবে সেগুলি মোটেই মল নয়, সুস্বাদু চাইনিজ ও মালয়েশিয়ান খাবার।

ক্রেজি টয়লেট ক্যাফে, মস্কো, রাশিয়া
এই রেস্তোরাঁয় গেলে অতিথির খাওয়া শুরুর আগেই তার ক্ষুধা হারিয়ে ফেলতে পারেন। কারণ এখানে ইন্টিরিয়র মোটেই ল্যাভেটোরিয়াল নয়। কারণ এখানকার গ্লাস, খাবার পরিবেশন করার জিনিসপত্র টয়লেটে ব্যবহৃত প্লেটের মতো দেখতে। তবে সেগুলি মোটেই আসল নয়।

দাস ক্লো, বার্লিন, জার্মানি
দাস ক্লো, যার অর্থ জার্মান ভাষায় টয়লেট। লোকেরা প্রস্রাবের বোতল থেকে বিয়ার পান করে এবং হাসপাতালের ট্রে থেকে খাবার খান। বিশ্বের সবচেয়ে উদ্ভট বারগুলির মধ্যে এটি একটি।

ম্যাজিক রেস্টরুম ক্যাফে, লস অ্যাঞ্জেলেস, ইউএসএ
ম্যাজিক রেস্টরুম ক্যাফে এর মেনুতে 'গোল্ডেন পুপ রাইস' এবং এমনকি একটি 'ব্লাডি নম্বর টু' আইসক্রিম রয়েছে। এশিয়ার টয়লেট-থিমযুক্ত রেস্তোঁরা দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন এই রেস্তোরাঁর মালিক। পরে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একটি খোলার সিদ্ধান্ত নেন।
সূত্র : টিভি৯
এসএ/
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি