ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৮ ৫:৪২:০৫

Ekushey Television Ltd.

ব্রণ, ফুসকুড়ির কালো দাগ দূর করতে পারেন ঘরোয়া উপায়ে

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৩:১৫ পিএম, ১২ মে ২০১৮ শনিবার

মুখের কালো দাগের সমস্যায় ভুগছেন? সাধারণত ব্রণ বা ফুসকুড়ি সেরে যাওয়ার পর মুখের ত্বকে এই ধরনের কালো দাগ রেখে যায়। ঠিকঠাক চিকিৎসায় ব্রণ এবং দাগের হাত থেকে মুক্তি মেলে ঠিকই, কিন্তু তার জন্য যে সব ওষুধ বা ক্রিম জাতীয় জিনিস ব্যবহার করতে হয় সেগুলি যেমন ব্যয়বহুল, তেমনই তা থেকে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ভয়ও থেকে যায়। কিন্তু যদি প্রাকৃতিক উপায়ে এই ধরনের কালো দাগ দূর করা যায়, তাহলে সবচেয়ে ভালো হয়। আয়ুর্বেদিক জার্নাল ফর মেডিক্যাল সায়েন্সেস-এ প্রকাশিত একটি রিপোর্টে হদিশ দেওয়া হয়েছে তেমনই এক ঘরোয়া এবং নির্ভরযোগ্য উপায়ের, যার সাহায্যে মাত্র ৭ দিনে মুখের ত্বককে করে তোলা যাবে দাগমুক্ত।

আসুন, জেনে নেওয়া যাক কীভাবে ঘরোয়া উপায়ে সহজে পাবেন দাগমুক্ত মুখ—

ক) লেবুর রস সরাসরি মুখের দাগযুক্ত অংশে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট পরে সাদা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দিনে দু’বার এমনটা করুন। পরবর্তি ৫-৭ দিনে ফারাকটা দেখতে পাবেন।
খ) এক চা চামচ মধুর সঙ্গে এক চা চামচ পাতিলেবুর রস মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ মুখের কালো দাগের উপর হালকাভাবে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন।
গ) এ ছাড়াও, এক চা চামচ পাতিলেবুর রসের সঙ্গে মিশিয়ে নিন এক চা চামচ টম্যাটোর রস। সেই মিশ্রণে যদি এক চা চামচ ওটমিল দিয়ে নিতে পারেন তবে আরও ভালো ফল মিলবে। মুখে দাগের অংশে এই মিশ্রণ লাগিয়ে মিনিট ১৫ পরে সাদা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দিনে বার দু’য়েক এমনটা করলে দ্রুত ফল মিলবে।

আসলে লেবুতে যে সাইট্রিক অ্যাসিড থাকে, তা ত্বকের পক্ষে খুবই উপকারী। এটি ত্বকের ওপর একটি অদৃশ্য সুরক্ষাকবচ তৈরি করে। সেই সঙ্গে ব্রণ বা ফুসকুড়ির কারণ হিসেবে কাজ করে যেসব ব্যাকটেরিয়া, সেগুলিকেও মারে, এবং ত্বকের তৈলাক্তভাব দূর করে। তাহলে আর দেরি না করে আজই শুরু করে দিন এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন ঘরোয়া কৌশলগুলি আর এক সপ্তাহে পেয়ে যান দাগমুক্ত মুখ।

তথ্যসূত্র: জি ২৪ ঘণ্টা।

এসএইচ/



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি