ঢাকা, বুধবার   ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৯:৫১ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ২১:২২ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭

মহাষ্টমীতে দেবীর আমন্ত্রণ ও অধিবাসের মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাম্বলীদের শারদীয় দুর্গোৎসবের শুরু হবে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বও থেকে। এরই মধ্যে শেষ হয়েছে প্রতিমা তৈরির কাজ। এখন চলছে শেষ মুহূর্তেও কাজ। তুলির আঁচড়ে দেবী দুর্গাকে মূর্ত করে তোলার চেষ্টায় প্রতিমা শিল্পীরা। ঢাকের বাজনা, শঙ্খধ্বনি আর আরতিতে মুখরিত হওয়ার অপেক্ষায় বাংলার শহর গ্রামের মন্দির-মণ্ডপগুলো। শান্তিপূর্ণভাবে পূজা সম্পন্ন করতে মণ্ডপগুলোতে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে প্রশাসন।
 
মায়ের আগমনে প্রতীক্ষার প্রহর গুনছে বাঙালি সনাতন সম্প্রদায়ের মানুষেরা। জগতজননী মাকে বরণ করে নিতে রাজধানীর শ্রী ঢাকেশ্বরী মন্দিরে প্রাচীন স্থাপত্যের আদলে এবারে তৈরি করা হয়েছে ‘‘ মহানগর কেন্দ্রীয় পূজা মণ্ডপ’’। সকাল থেকে মন্দির প্রাঙ্গনে ছিলো চণ্ডী ও গীতা পাঠের আয়োজন। ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান মেনে মণ্ডপে ঘট স্থাপন, যজ্ঞ, পুষ্পাঞ্জলি নিবেদনসহ নানা বিধিতে পূজা অর্চনা করেন ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরের প্রধান পুরোহিত রনজিৎ চক্রবর্তী। বছর ঘুরে মা আবার আসছেন, ভক্তমনে তাই খুশির আভাস। মাকে বরণ করে নিতে প্রস্তুতির কমতি রাখছেন না তারা। মায়ের আর্শীবাদে দূর হবে সকল অন্ধকার, বিশৃঙ্খলা আর ধরাধামে বইবে শান্তির সুবাতাস- এমনটাই প্রত্যাশা ভক্তদের।

প্রতিবছরের মতো এবারো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে নেওয়া হয়েছে দুর্গা পূজার প্রস্তুতি। হলের ভিতরে অবস্থিত মন্দিরের প্রতিমা তৈরি কাজ সম্পন্ন হয়েছে। হলের খেলার মাঠেও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের পক্ষ থেকে পূজা উদযাপনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।  

তবে দেশে বন্যা পরিস্থিতি ও রোহিঙ্গা শরণার্থীদের কথা মাথায় রেখে পূজার সার্বিক আয়োজন সম্পন্ন হবে বলে জানিয়েছেন সার্বজনীন পূজা উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা কাজল দেবনাথ।

এদিকে রাজধানীর মত সারাদেশেই মহাসমারোহে চলছে দূর্গা পূজার প্রস্তুতি।


ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহে দুর্গা প্রতিমাকে সুন্দর করে গড়ে তুলতে দিনরাত চেষ্টা কারিগরদের। জেলায় চারশ’টি মন্দিরে দুর্গা পূজা হবে। কয়েকদিনের মধ্যেই তুলির আচড়ে ফুটিয়ে তোলা হবে দেবী দুর্গাকে। এবার পূজার নিরাপত্তায় জেলায় তিন হাজার পুলিশ ও আনসার মোতায়েন করা হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান।


মাদারীপুর: জেলার মন্দির ও পূজা মণ্ডপের সাজসজ্জাই বলে দিচ্ছে মা দুর্গার আগমন বার্তা। প্রতিমা রঙ করার পাশাপাশি চলছে সাজ সজ্জার কাজ। এ বছর জেলার ৪১৮টি মণ্ডপে পূজা উদযাপন হবে।
মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জের মন্দিরগুলোতেও ব্যাপক প্রস্তুতি। চলতি বছর ২৮৭টি মণ্ডপ ও মন্দিরে পূজা হবে। সবচেয়ে বেশি পূজা হবে জেলার সিরাজদিখান উপজেলায়। এ উপজেলায় মোট  ৯৭টি পূজা মণ্ডপ তৈরি করা হয়েছে।

শরীয়তপুর: শারদীয়া দুর্গা পুজাকে সামনে রেখে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত শরীয়তপুরের কারিগররা। সদর উপজেলার কোটাপাড়া গ্রামে রাম চন্দ্র পালের বাড়িতে চলছে প্রতিমা তৈরির ধুম। এখানে ৪০ সেট প্রতিমা তৈরি হয়েছে। এবছর শরীয়তপুরের ছয় উপজেলায় মোট ৮৪ টি পুজা মণ্ডপে দুর্গা পূজা উদযাপন করা হবে।

সাম্প্ররদায়িক সম্প্রীতিতে এবছরও সাড়ম্বরে উদযাপিত হোক সার্বজনীন দুর্গা উৎসব-এমনই প্রত্যাশা সবার।



ভিডিও দেখুন

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি