ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০:৪৫:৫৭

Ekushey Television Ltd.
পদ্মা সেতুর মান পরীক্ষা

মিলিটারি ল্যাবসহ ১৩ সংস্থা স্বীকৃতি সনদ পাচ্ছে

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০১:০৩ পিএম, ৩১ জানুয়ারি ২০১৯ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৩:৫৮ পিএম, ৩১ জানুয়ারি ২০১৯ বৃহস্পতিবার

শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তের ৩৬ ও ৩৭ নম্বর পিলারের ওপর ধূসর রঙের ষষ্ঠ স্প্যানটি বসানো হয়েছে সম্প্রতি। আর তাতে দৃশ্যমান হয়েছে সেতুর ৯০০ মিটার।

সেতুটির নির্মাণসামগ্রীর মান পরীক্ষার দায়িত্বে থাকা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ মিলিটারি ল্যাবসহ মোট ১৩ সংস্থা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি সনদ পাচ্ছে। এই স্বীকৃতি সনদ দিচ্ছে বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন বোর্ড (বিএবি)। বিএবির সনদ আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য। মিলিটারি ল্যাবের ৫টি পরীক্ষার জন্য দেওয়া হচ্ছে এ সনদ।

মিলিটারি ল্যাবসহ স্বীকৃতি সনদ পাচ্ছে প্রাণ, ওয়ালটন, ইউনাইটেড ও ল্যাবএইডের মেডিকেল টেস্টিং ল্যাব, এসজিএস, হাহা-জিম, ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, রেনেটা, ব্যুরো ভেরিতাস, আইটিএস, বিআরটিএল ও বিএমটিএল। আজ বৃহস্পতিবার বিএবির আয়োজনে এক অনুষ্ঠানে এই সনদ দেওয়া হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে বিএবির ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মাহবুবুর রহমান জানান, দেশের বিভিন্ন ল্যাব আন্তর্জাতিক পরীক্ষা পদ্ধতি অনুসরণ করেই মান যাচাই করে আসছে। আন্তর্জাতিক মান পরীক্ষা পদ্ধতি যথাযথভাবে অনুসরণ হচ্ছে কি-না তা যাচাই করে বিএবি। পাশাপাশি মান ব্যবস্থাপনা পদ্ধতির সক্ষমতা পরিমাপ করছে। ল্যাবের মান নিয়ন্ত্রণ ও নিশ্চিতকরণের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ সাপেক্ষে স্বীকৃতি সনদ দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক ল্যাব অ্যাক্রেডিটেশন কো-অপারেশন সমঝোতা স্মারক সই করা হয়েছে। এই সমঝোতা স্মারকে সই করা সব প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার ফল প্রায় সমমানের। এ কারণে এটি আন্তর্জাতিকভাবে সব দেশে গ্রহণযোগ্য।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বিএবি স্বীকৃত ল্যাবের পরীক্ষার মান সনদ ইতিমধ্যে বিভিন্ন দেশ গ্রহণ করেছে। এ কারণে নতুন নতুন নানা পণ্য রফতানি সহজ হয়েছে। আগে বিদেশি অ্যাক্রেডিটেশন সংস্থার কাছ থেকে স্বীকৃতি আনা অনেক ব্যয় ও সময়সাপেক্ষ ছিল। এ কারণে বিভিন্ন দেশের বাজার চাহিদাভিত্তিক ও পণ্যভিত্তিক বিভিন্ন ল্যাবকে আন্তর্জাতিক মানে নিয়ে আসতে অ্যাক্রেডিটেশন স্কিম চালু করবে বিএবি।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর বসানো হয় পদ্মা সেতুর প্রথম স্প্যান। এর প্রায় ৪ মাস পর ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি দ্বিতীয় স্প্যানটি বসে। এর দেড় মাস পর ১১ মার্চ জাজিরা প্রান্তে ধূসর রঙের তৃতীয় স্প্যান বসানো হয়। এর ২ মাস পর ১৩ মে বসে চতুর্থ স্প্যান। এর এক মাস ১৬ দিনের মাথায় পঞ্চম স্প্যানটি বসে ২৯ জুন। আর চলতি জানুয়ারির ২৩ তারিখে ৬ মাস ২৫ দিনের মাথায় বসলো ষষ্ঠ স্প্যানটি। প্রসঙ্গত, ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুতে ৪২টি পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

একে//



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি