ঢাকা, শনিবার   ২৪ আগস্ট ২০১৯, || ভাদ্র ৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

রমজানে ত্বকের যত্নে করণীয় (ভিডিও)

প্রকাশিত : ১৫:৪০ ১৮ মে ২০১৯

ত্বকের যত্ন নিয়ে আমরা অনেকেই চিন্তিত। বিশেষ করে রমজান মাসে দীর্ঘক্ষণ না খেয়ে থাকার পর ইফতারিতে ভাজাপোড়া খাই। যা শরীরের ত্বকের ওপর খারাপ প্রভাব ফেলে। তাই এ সময় ভাজাপোড়া খাবার কোনোভাবেই খাওয়া উচিত নয়। এ সময় তরমুজ, ভাঙ্গি, পেঁপে, আনারস ইত্যাদি ফল খেতে পারেন।

এরকম বিভিন্ন বিষয় নিয়ে একুশে টিভির জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘দি ডক্টরস’-র এবারের পর্ব প্রচার হয়েছে। অনুষ্ঠানটি  আজ শনিবার (১৮ মে) প্রচার হয়। এতে আজকের আলোচনার বিষয় ছিল- ‘রমজানে ত্বকের যত্ন’।

এ বিষয়ে আলোচনা করেছেন ডা. এস.এম বখতিয়ার কামাল, সহকারী অধ্যাপক, চর্ম ও যৌন রোগ বিভাগ, ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। উপস্থাপনায় ছিলেন- ডা. ইকবাল হাসান মাহমুদ

দর্শক ও পাঠকদের সুবিধার্থে আলোচনাটি লিখিত আকারে প্রকাশ করা হলো-

রমজানে ‘রমজানে ত্বকের যত্ন’ নিয়ে ডা. এস. এম বখতিয়ার কামাল বলেন, ‘আমরা সারাদিন কিছু খাচ্ছিনা। এরমধ্যে বাইরে প্রচণ্ড গরম। এতে প্রচণ্ড পানি শূণ্যতা সৃষ্টি হয়। ফলে ইফতারিতে আমাদের যেটা করা উচিত সেটা হচ্ছে অধিক পরিমাণ পানি খাওয়া। সাধারণত ইফতার ও সেহরীতে কমপক্ষে দুই লিটার পানি খাওয়া উচিত। এতে স্কিন ভালো থাকবে।’

স্কিনের স্বাস্থ্য সম্পর্কে তিনি বলেন, ভেজাল খাবারের পাশাপাশি ভেজাল কসমেটিকস শরীরের স্কিনের ওপর খারাপ প্রভাব ফেলে। এই খারপ প্রভাবটা অনেক সময় খুব দ্রুত হতে পারে বা দেড়িতেও হতে পারে। দ্রুত প্রভাবের মধ্যে সাধারণত গায়ে চুলকানি বা র‌্যাশ জাতীয় কিছু শরীরে দেখা যায়।

তিনি বলেন, সাধারণত যারা বাসায় থাকেন তাদের মধ্যে স্কিনের সমস্যা তেমন একটা দেখা যায় না। তবে যারা বাসার বাইরে বা মাঠে কাজ করেন তাদের মধ্যে স্কিনের সমস্যা বেশি দেখা যায়। তাই বাইরে বের হলে রোদ থেকে বাঁচতে ছাতা ব্যবহার করতে পারেন। বিশেষ করে গরমের সময় ঢিলেঢালা সুতি পোশাক পড়তে পারেন। প্রচণ্ড গরমে সুযোগ পেলে ছায়ার নিচে বিশ্রাম নিতে পারেন।

গোসলে সাবান ব্যবহারের ক্ষেত্রে তিনি বলেন, গোসলের সময় সাবান ব্যবহার করতে পারেন। তবে অতিরিক্ত সাবান ব্যবহার শরীরের জন্য ভালো নয়। 

সেহরী ও ইফতারে প্রচুর পরিমাণে শাক-সবজি খাওয়ার ওপর গুরুত্ব দিয়ে এস.এম বখতিয়ার কামাল বলেন, রমজানে শরীর চাঙ্গা রাখতে শাক-সবিজর কোনো বিকল্প নেই। পাশাপাশি মৌসুমী ফলও খেতে হবে।

কসমেটিকস ব্যবহার সম্পর্কে তিনি বলেন, যে কোনো রকমের কসমেটিকস পরিহার করাটাই ভালো। তবে কেউ যদি একান্ত চায় তাহলে কাজল এবং হালকা লিপস্টিক ব্যবহার করতে পারেন। যাদের ব্রণ হওয়ার প্রবণতা কম তারা মুখে উন্নত ব্রান্ডের স্নো ব্যবহার করতে পারেন। তবে যাদের ব্রণ হওয়ার প্রবণতা বেশি তারা এগুলো না ব্যবহার করাটাই ভালো।

মেকআপ নেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, পারত পক্ষে মেকআপ না নেওয়াটাই ভাল। তবে কেউ যদি পেশার জন্য মেকাআপ নিতেই হয়, তাহলে তাকে কাজ শেষে মেকআপ তুলে ফেলতে হবে।

গরমে দুই রানের পাশে গুটি হওয়া বিষয়ে ডা. এস.এম বখতিয়ার কামাল বলেন, অনেক সময় শরীরের দুই রানের পাশে গুটি গুটি দেখা যায় এবং এগুলো থেকে চুলকানি হয়। এটা হলো একটি ফাঙ্গাল ইনফেকশন। এটার জন্য সাধারণত মাইকোনাজল জাতীয় ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।

তিনি বলেন, ক্রিমের পাশাপাশি আপনার পরিহিত পোশাকের ক্ষেত্রেও সচেতন হতে হবে। কেননা এই জিবাণুটি আপনার প্যান্টে বা আন্ডার ওয়্যারে ৬ থেকে ৭ মাস জীবিত থাকতে পারে। তাই এ পোশাকগুলো গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ইস্ত্রি করতে পারেন। এর মাধ্যমে ওই জীবাণুগুলো মরে যাবে।

ঈদের সময় বাজারে প্রচলিত মেহেদী ব্যবহার সম্পর্কে তিনি বলেন, ঈদ আসলে আমরা সাধারণত হাতে মেহেদী ব্যবহার করি। পূর্বে হাত রাঙানোর জন্য সাধারণত মেহেদী পাতা ব্যবহার করা হতো। কিন্তু এখন বাজারে বিভিন্ন ব্রান্ডের মেহেদী পাওয়া যায়।

বাজারে প্রচলিত এই মেহেদীগুলো কেমিক্যাল দিয়ে তৈরি। তাই এগুলো ব্যবহারের ক্ষেত্রে সচেতন হতে হবে। কেননা এ মেহেদী ব্যবহার করার ফলে হাতে গুটি গুটি দেখা দেওয়াসহ চুলকানি হতে পারে।

স্কিন সুন্দর রাখার ক্ষেত্রে খাবারের গুরুত্ব সম্পর্কে তিনি বলেন, স্কিনকে সুন্দর রাখার জন্য বিভিন্ন ধরণের খাবার রয়েছে। এর মধ্যে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় গাজর ও টমেটো রাখতে পারেন। এছাড়াও মৌসুমী দেশীয় ফল এবং প্রচুর পরিমাণে শাক-সবজি খেতে পারেন।

ডা. এস.এম বখতিয়ার কামাল নিজের ইফতারিতে কি কি খাবার রাখেন এ সম্পর্কে তিনি বলেন, আমি সাধারণত তরমুজ, লেবুর শরবত, খেঁজুর ও আনারস দিয়ে ইফতার করি।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিওতে :

এমএইচ/

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি