ঢাকা, সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯, || ভাদ্র ৪ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

রূপচর্চায় ম্যাজিকের মত কাজ করে ভাতের মাড়

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:০৮ ১৮ জুলাই ২০১৯

ভাতের মাড়ের গুণ যে রয়েছে তা কম বেশি সবাই জানেন। এই গুণ হচ্ছে পুষ্টির। অনেকেই স্বাস্থ্যবান হতে কিংবা চিকন শরীর মোটা করতে মাড় বসা ভাত খেয়ে থাকেন। অন্যদিকে শরীর ঝরঝরে রাখতে ভালো করে ভাতের মাড় ঝরিয়ে নেন অনেকেই। কেননা নিয়মিত মাড় বসা ভাত খেলে দ্রুত মুটিয়ে যাওয়ার ভয় থাকে। 

তবে ভাতের মাড় ভাল করে ঝরিয়ে ফেলে না দিয়ে সেটিকে কাজে লাগাতে পারেন নানা উপায়ে। ত্বক থেকে চুলের যত্নে কাজে লাগিয়ে দেখুন ভাতের মাড়। ফল মিলবে ম্যাজিকের মতো। এবার জেনে নেওয়া যাক ভাতের মাড়ের আশ্চর্য সব ব্যবহার-

১. ভাতের মাড় গোসলের পানির সঙ্গে মিশিয়ে দিনে অন্তত ২ বার স্নান করতে পারলে ত্বকের অস্বস্তিকর জ্বালা ভাব, চুলকানি, র‌্যাশ থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

২. ব্রণ সমস্যায় ভাতের মাড় ঠান্ডা করে তুলা দিয়ে ত্বকের ব্রণ আক্রান্ত অংশে লাগান। দিনে অন্তত ২ থেকে ৩ বার এভাবে ত্বকের যত্ন নিতে পারলে ব্রণ-ফুসকুড়ির মতো সমস্যা দ্রুত সেরে যাবে।

৩. মাতের মাড় ঠান্ডা করে তুলা দিয়ে মুখের ও হাত-পায়ের রোদে পোড়া অংশে নিয়মিত মাখতে পারলে বাড়বে ত্বকের উজ্জ্বলতা। এই পদ্ধতিতে ত্বকের যত্ন নিতে পারলে ত্বক থাকবে সতেজ, বজায় থাকবে ত্বকের আর্দ্রতা। এ ছাড়াও ত্বকের হাইপার পিগমেন্টেশন আর ত্বকে বয়সের ছাপ পড়া ঠেকাতে ভাতের মাড় অত্যন্ত কার্যকরী।

৪. ভাতের মাড়ে পানি মিশিয়ে খানিকটা পাতলা করে নিন। শ্যাম্পু করার পর চুলে ভাতের মাড় দিয়ে মিনিট তিনেক রেখে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। চুলের ডগা ফেটে যাওয়ার মতো সমস্যার মোকাবিলায় এই পদ্ধতি খুবই কার্যকর। এ ছাড়া চুল গোড়া থেকে মজবুত করতে আর চকচকে করতে সাহায্য করে এই পদ্ধতি।

এ ছাড়াও শরীরের অপুষ্টিজনিত সমস্যার মোকাবিলায় ভাতের মাড় খুবই উপকারী।

এএইচ/
 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি