ঢাকা, সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১, || চৈত্র ২৮ ১৪২৭

সাবেক সাংসদ আবুল কাশেম মাস্টারের মৃত্যুবার্ষিক কাল

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:৪০, ২৩ নভেম্বর ২০১৭

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড থেকে দু’মেয়াদে নির্বাচিত সাংসদ এ বি এম আবুল কাশেম মাস্টারের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী আগামীকাল ২৪ নভেম্বর। দিবসটি পালন উপলক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে এবিএম আবুল কাশেম ফাউণ্ডেশন। ২০১৫ সালে এদিনে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। ১৯৯৬ ও ২০০৮ সালে অনুষ্ঠিত সংসদ নির্বাচনে তিনি আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী হন।

চট্টগ্রামের কাট্টলী নুরুল হক চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে এবিএম আবুল কাশেম কর্মজীবন শুরু করেছিলেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ ভূমিকার মাধ্যমে তিনি জাতীয় নেতৃবৃন্দের নজরে আসেন। ২৫ মার্চ রাতে বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার বার্তা পাঠালে কালুর ঘাট প্রচার কেন্দ্রে তা প্রচারিত হয়। পরের দিন থেকে শহরের বিভিন্ন জায়গায় তা মাইকে প্রচারিত হতে থাকে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মাধ্যমে। ছলিমপুর ওয়ার্লেস কেন্দ্রে তা প্রচারের ক্ষেত্রে আবুল কাশেম মাস্টারের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি ছিল বলে ড. মাহফুজুর রহমান তার ‘মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস’ বইতে উল্লেখ করেছেন।

জনগণের সাথে সম্পৃক্ততার কারণে তিনি পরপর দু’বার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান হন। ১৯৮৬ সালে স্বৈরাচার সরকার আমলে যখন সীতাকুণ্ড আসনে আওয়ামীলীগ মনোনয়ন দেওয়ার জন্য লোক খুজে পাচ্ছিল না, তখন তিনি নিশ্চিত পরাজয় জেনেও সাহস দেখিয়ে প্রার্থী হওয়ার জন্য এগিয়ে আসেন। পরবর্তীতেও তিনি ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০১ ও ২০০৮ সালে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পান। ১৯৯৬ ও ২০০৮ সালের নির্বাচনে তিনি বিজয়ী হন।

নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি আমৃত্যু সীতাকুণ্ড উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ছিলেন। এলাকার উন্নয়ন ও জনগণের সাথে সম্পৃক্ততা তাকে এলাকায় জনপ্রিয় করেছিল।

 

এএ/টিকে


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি