ঢাকা, সোমবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

সৌন্দর্য নষ্টের জন্য দায়ী খাবার

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:১২ ২৭ মে ২০১৭ | আপডেট: ১২:৫৭ ২৮ মে ২০১৭

নিজের সৌন্দর্য  ধরে রাখতে বা বৃদ্ধি করতে আমরা কত কিছুই না করে থাকি।চেহারাটাই আমাদের বাহ্যিক সৌন্দর্য প্রকাশ করে। কী করলে ত্বক ভালো থাকবে, কী করলে চেহারার উজ্জ্বলতা বাড়বে, বলিরেখা কম করার জন্য কী কী করতে হবে- এই সকল তথ্য আমাদের অনেকেরই জানা। কিন্তু এত কিছুর পরও যখন চেহারার সৌন্দর্য দিন দিন কমতে থাকে, তখন মনটাই খারাপ হয়ে যায়। অথচ আমরা জানিও না যে চেহারার অনেক যত্ন নেয়ার পরও কেবল কিছু খাদ্যাভ্যাসের কারণে সৌন্দর্য নষ্ট হচ্ছে প্রতিনিয়ত! সবারই প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় এমন কিছু রয়েছে যা আমাদের ত্বকেরক্ষতি করে। চলুন তাহলে জেনে নেই সৌন্দর্য নষ্টের জন্য দায়ী খাবারগুলোর তালিকা।

লবণ:
আমাদের খাবারের খুব প্রয়োজনীয় একটি উপাদান হলো লবণ । লবণ ছাড়া রান্নায় স্বাদ হয় না। কিন্তু এই লবণই আমাদের সৌন্দর্যের মারাত্মক ক্ষতি করে প্রতিদিন। অনেকেরই বাড়তি লবণ খাওয়ার অভ্যাস আছে। লবণ বেশি খেলে দেহে ফ্লুইডের পরিমাণ বেড়ে যায়। এতে অল্প বয়সে ত্বক ঝুলে পরার সম্ভাবনা দেখা দেয়। তাই পাঁপড়, আঁচার, সল্টেড খাবার, বিস্কিট এবং বাড়তি লবণ খাওয়া বন্ধ করুন।

অতিরিক্ত চা-কফি গ্রহণ:

চা বা কফি একটি রিফ্রেশিং ড্রিংক হিসেবে অনেকেই পান করে থাকেন। পরিমিত চা-কফি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য বেশ ভালো। কিন্তু অতিরিক্ত  পান করলে আমাদের ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি হয়। চা বা কফির ক্যাফেইনের জন্য ত্বক খুব দ্রুত বুড়িয়ে যায় এবং ত্বকে বলিরেখা পরে। তাই চা-কফি পানের মাত্রা কমিয়ে দিন। দিনে দু কাপের বেশি চা-কফি পান করবেন না।

ফাস্টফুড জাতীয় খাবার:

ফাস্টফুড আমাদের দেহে ফ্যাট জমা করে আমাদের ওজন বাড়ায় তা আমরা সকলেই জানি। কিন্তু ফাস্টফুড আমাদের চেহারার জন্যও অনেক বেশি ক্ষতিকর। ফাস্টফুড আমাদের দেহের পানির পরিমাণ কমিয়ে দেয়। এতে ত্বকে পানির মাত্রা কমে গিয়ে ত্বক শুষ্ক এবং রুক্ষ হয়ে পড়ে। ফলে ত্বক ফাটা এবং ত্বকে নানা সমস্যা দেখা দেয়।

কোমল পানীয়:

কোমল পানীয় এবং এনার্জি ড্রিংকস ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি করে। এই সকল কোমল পানীয়তে অনেক বেশি মাত্রায় চিনি এবং কার্বন ডাই অক্সাইড থাকে যা আমাদের দেহে পৌঁছে রক্তের সুগারের মাত্রা বাড়িয়ে তোলে। ফলে আমাদের ব্রণের সমস্যা সহ নানা সমস্যা দেখা দেয়।

লাল মাংস:

সুস্বাদু বলে লাল মাংস আমরা অনেকেই বেশ তৃপ্তি সহকারে খেয়ে থাকি। কিন্তু লাল মাংস আমাদের ত্বকের জন্য অনেক ক্ষতিকর। লাল মাংস খাওয়ার ফলে ত্বকে ফ্রি রেডিক্যাল দেখা দেয়। তাই লাল মাংস এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন।

টিনজাত এবং ফ্লেভারড খাবার:

সময় বাঁচাতে আমরা অনেক সময় টিনজাত খাবারের ওপর নির্ভরশীল হই। কিন্তু এতে করে আমরা আমাদের নিজেদের ত্বকের ক্ষতি করছি নিজেরাই। টিনজাত খাবারে অনেক ধরণের কেমিক্যাল, প্রিজারভেটিভ এবং ফ্লেভার ব্যবহার করা হয় যা দেহের পাশাপাশি ত্বকের জন্যও অনেক ক্ষতিকর। এমনকি চামড়ার ক্যান্সারের জন্যও এই টিনজাত এবং ফ্লেভারড খাবারগুলো দায়ী।

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি