ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, || ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

মন্ত্রিসভার প্রথম সদস্য হিসেবে টিকা নিলেন পলক

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৪:০৯, ২৮ জানুয়ারি ২০২১

টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ও টিকাদানের সার্বিক অভিজ্ঞতা যাচাই করতে রাজধানীর পাঁচটি হাসপাতালে আজ শুরু হয়েছে পরীক্ষামূলক টিকাদান কর্মসূচি। এর মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) বেশ উৎসবমুখর পরিবেশে চলছে টিকাদান। এতে টিকা নিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। 

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে তার শরীরে টিকা প্রয়োগ করা হয়। এর পর পরই টিকা নেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. আব্দুল মান্নান ও তথ্য সচিব খাজা মিয়া। 

বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ হাসপাতালে ১২৫ জন টিকা নিয়েছেন বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বিএসএমএমইউয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার মজুমদার।
 
এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া প্রথম টিকা নিয়ে বিএসএমএমইউ-তে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এছাড়া টিকা নিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. রফিকুল আলম (প্রশাসন), অধ্যাপক ডা. শাহানা আক্তার (শিক্ষা) ও অধ্যাপক ডা. জাহিদ হোসেন (গবেষণা), কোষাধক্ষ্য মো. আতিকুর রহমান এবং হাসপাতাল পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল জুলফিকার আহমেদ আমিন।

এ সময় ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, ‘টিকা নেওয়াটা আমার সামাজিক, রাষ্ট্রীয় ও ব্যক্তিগত দায়িত্ব। আমাকে দেখে মানুষ আস্থা পাবে, সাহস পাবে। এখানে আজ অনেক লোক জড়ো হয়েছেন।’

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. আতিকুর রহমান, পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুলফিকার আহমেদ আমিনসহ শিক্ষক, চিকিৎসক, রেসিডেন্ট শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী, আনসারসহ আজ প্রায় ২০০ জন টিকা নেবেন।

এর আগে দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে বুধবার (২৭ জানুয়ারি) রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তাকে করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়ার মধ্যদিয়ে টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। 

ভ্যাক্সিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ও সার্বিক অভিজ্ঞতা যাচাই করতে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে শুরু হয় পরীক্ষামূলক টিকাদান কর্মসূচি। এসব হাসপাতালের ৪০০ থেকে ৫০০ স্বাস্থ্যকর্মীকে এক যোগে দেয়া হবে টিকা। যারা টিকা নিবেন এক সপ্তাহ তাদেরকে পর্যবেক্ষণ করে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি দেশব্যাপী টিকা প্রয়োগ শুরু করবে সরকার। 

এর আগে গতকাল নানা শ্রেণি-পেশার ২৬ জনের দেহে সফলতার সাথে প্রয়োগ করা হয়েছে ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউটের তৈরি টিকা। এখন পর্যন্ত তাদের শরীরে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।
এআই/ এসএ/
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি