ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ মে ২০২৪

যা পড়েছেন, চাকরির বাজারে তার অনেকটাই অমিল (ভিডিও)

মেহেদী হাসান

প্রকাশিত : ১১:৩৮, ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কারিকুলাম আরও কর্মসংস্থানমুখী হওয়া উচিৎ বলে মনে করছেন শিক্ষার্থীরা। বিশেষ করে প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনকে গুরুত্ব দিয়ে শিল্প এবং সেবা খাতের চাহিদাকে পাঠ্যসূচিতে অগ্রাধিকার দেয়ার কথা বলছেন তারা। রাজধানীতে ‘ক্যারিয়ার সামিট এন্ড ফেস্ট’-এ এসে এমনটাই জানিয়েছেন গ্রাজুয়েটরা। অনেকটা একই মত নিয়োগদাতাদেরও।

বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সদ্য স্নাতকোত্তর প্রিয়াংকা এসেছেন তৈরি পোশাক খাতের উদ্যোক্তাদের সংগঠন বিজিএমইএ আয়োজিত ক্যারিয়ার সামিট এন্ড ফেস্টে। যেখানে এ খাতের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এসেছে প্রিয়াংকাদের মতো গ্রাজুয়েটদের কর্মসংস্থানের নানা অফার নিয়ে। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে লেখাপড়া করা প্রিয়াংকাকে নিয়োগের আগ্রহ দেখিয়েছে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান।  

তবে অনেকেই আবার হতাশ চাকরি অফার না পেয়ে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আশা শিক্ষার্থীরা বলছেন, এতোদিন তারা যা পড়েছেন, চাকরির বাজারের বাস্তবতার সাথে তার অনেকটাই অমিল রয়েছে। 

চাকরি প্রার্থীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যেভাবে পড়ানো হচ্ছে সেটা প্রাকটিক্যালের সাথে কোনো মিল আসছেনা।

চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো বলছে, পোশাক খাতের যে ধরনের জনশক্তি প্রয়োজন অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কারিকুলাম তার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। 

টিম গ্রুপের ডিজিএম রাজিব হাসান বলেন, “যে গ্যাপগুলো আমরা পাই আসলে সেগুলো একাডেমি থেকে পাওয়া যায়না। এখানে প্রাকটিক্যাল থেকে থিউরিটিক্যালের নলেজটা বেশি। সুতরাং এই প্রাকটিক্যাল নলেজটা দেওয়ার জন্য আমরা ইন-হাউস ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়। এর মাধ্যমে গ্যাবগুলো পূরণ করে থাকি।”

শিল্পের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ জনবল তৈরিতে সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে এগিয়ে আসার আহবানও জানিয়েছে বিজিএমইএ। 

এএইচ


Ekushey Television Ltd.





© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি