ঢাকা, সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২

বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞানী ড. মেঘনাদ সাহার ১২৮তম জন্মদিন

গাজীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ০৮:৩৭, ৬ অক্টোবর ২০২১ | আপডেট: ০৮:৪১, ৬ অক্টোবর ২০২১

পদার্থ বিজ্ঞানে তাপীয় আয়নবাদ তত্ত্বের প্রবর্তক বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞানী ড. মেঘনাদ সাহার ১২৮তম জন্মদিন  বুধবার। খ্যাতিমান এই বিজ্ঞানী ১৮৯৩ সালে ৬ অক্টোবর গাজীপুরের কালিয়াকৈরের নিভৃত গ্রাম শেওড়াতলীতে জন্মগ্রহণ করেন।

প্রচণ্ড ঝড়বৃষ্টি ও দুর্যোগের সময় জন্ম বলে মুদি দোকানদার বাবা তার নাম রাখেন মেঘনাদ। দরিদ্র ঘরে জন্ম হলেও অন্যের প্রতিপালিত হয়ে মেঘনাদ ১৯০৯ সালে প্রবেশিকা পরীক্ষায় পূর্ববঙ্গে প্রথম স্থান অধিকারসহ ১৯১৫ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণিত শাস্ত্রে প্রথম শ্রেণীতে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন। 

বিজ্ঞানী জগদীশচন্দ্র বসুর ছাত্র ও সত্যেন্দ্রনাথ বসুর সহপাঠী মেঘনাদ সাহা। পদার্থ বিজ্ঞান ও গণিত বিষয়ে অসামান্য গবেষণাসহ পরমাণুর গঠন ও পদার্থের ভৌত ধর্মাবলী বিষয়ে নতুন তত্ত্ব উপস্থাপন করায় তাঁকে বিশ্বখ্যাতি এনে দেয়। ১৯২০ সালে মেঘনাদ সাহার বিজ্ঞান তাপ আয়নন তত্ত্ব প্রকাশিত হয়। এই তত্ত্বের সাহায্যে তিনি সূর্য ও তারার অভ্যন্তরীণ অবস্থা বিশ্লেষণ করেন।

বিজ্ঞানের বিবিধ শাখায় এর যথেষ্ট প্রয়োগ রয়েছে। জ্যোতির্বিজ্ঞানেই প্রথম প্রয়োগ করা হয় এই সূত্র এবং তা প্রয়োগের মাধ্যমে জানা যায় সৌরমণ্ডলে রুবিডিয়াম, সিজিয়াম প্রভৃতি পদার্থ সম্পূর্ণ আয়নিত অবস্থায় থাকে। ডক্টর সাহা বর্ণালী নিয়ে বিভিন্ন গবেষণা করেন এবং বিভিন্ন নক্ষত্রের আলোর বর্ণালী বিশ্লেষণ করে ওই সব নক্ষত্রের পৃষ্ঠ তাপমাত্রা নির্ণয়ে সক্ষম হন। 

সৌরচ্ছটা বিষয়েও তার গবেষণা অতি মূল্যবান। জ্যোতির্বিজ্ঞান ও বর্ণালী বিশ্লেষণের বিবিধ পরীক্ষা ও মৌলিক মতবাদের স্রষ্টারূপে মেঘনাদ সাহা সমগ্র পৃথিবীর বৈজ্ঞানিক মহলে স্বীয় প্রতিভার চূড়ান্ত স্বাক্ষর রাখতে সক্ষম হন।
 
এই প্রথিতযশা বিজ্ঞানী ১৯৫৬ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি প্রয়াত হন। জীবদ্দশায় মায়ের নামে নিজ গ্রামে তৈরি করে গেছেন শিক্ষায়তন।

তবে বিজ্ঞানির মৃত্যুর এতো বছরেও সংরক্ষিত হয়নি গাজীপুরের শেওড়াতলী গ্রামে তার ভিটেমাটি ও স্মৃতি চিহ্ন। 

এএইচ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি