ঢাকা, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২:৪৮:২১

ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্বে আটকে গেল লিগভিত্তিক ক্রিকেট

ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্বে আটকে গেল লিগভিত্তিক ক্রিকেট

ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্বে আটকে গেল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সংস্কৃতি বদলে নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির উদ্যোগ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট  লিগভিত্তিক করার উদ্যোগ শুরুতেই অনিশ্চয়তায় মুখে পড়ে গেল। বর্তমানে দ্বিপক্ষীয় সিরিজভিত্তিক ক্রিকেটে যে দুটো দল খেলে, এর বাইরে বাকি দলগুলোর আগ্রহ তেমন থাকে না। এর থেকে মুক্তির পথ বের করেছিল আইসিসি। আগামী মাসে অকল্যান্ডে আইসিসির সভা অনুষ্ঠিত হবে। তাতেই চূড়ান্ত হওয়ার কথা প্রস্তাবিত এই লিগভিত্তিক ক্রিকেট। যেটির খসড়া হয়ে গেছে। কেবল আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা বাকি। কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) শক্ত অবস্থান নিয়েছে। ভারতের সঙ্গে তাদের দ্বিপক্ষীয় সফরগুলোর ব্যাপারে পরিষ্কার কোনো ব্যাখ্যা না থাকলে এই চুক্তিতে সই করবে না পিসিবি। আইসিসির প্রস্তাব হলো, টেস্টের শীর্ষ ৯টি দল দুই বছর মেয়াদে হোম-অ্যাওয়ে সিরিজে প্রতিটি প্রতিটির সঙ্গে খেলবে। আর ওয়ানডের দুই বছরের লিগে মুখোমুখি হবে ১৩টি দল। এতে করে দুই বছরের মধ্যে প্রতিটি দল একবার নিজেদের মাঠে আরেকবার প্রতিপক্ষের মাঠে গিয়ে সিরিজ খেলবে। সবার সঙ্গে সবার খেলা শেষ হলে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা দুটি দল প্লে অফ ম্যাচ খেলে নির্ধারিত হবে টেস্ট চ্যাম্পিয়ন। এখন যেটি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকা দলকে দেওয়া হয়। ওয়ানডেতেও প্রায় একইভাবে চ্যাম্পিয়ন নির্ধারণ করা হবে। লিগভিত্তিক ক্রিকেটের সুবিধা হলো, সবগুলো দলকে সবার সঙ্গে খেলতে হবে বলে খেলার বৈচিত্র্য বাড়াবে। এখন অনেক সময়ই দেখা যায়, প্রায় একই দুই দল বেশি বেশি সিরিজ খেলছে। আবার লিগে অন্য দলের পয়েন্ট হারানো বা প্রাপ্তির সঙ্গে প্রতিটা দলের স্বার্থ জড়িত থাকে। এতে করে সবগুলো সিরিজের ব্যাপারে কৌতূহল থাকবে সব দেশের সমর্থকদের। ফুটবল লিগগুলোতে যেটা হয়। রিয়াল পয়েন্ট হারাল কি না, খোঁজ রাখে বার্সেলোনা। এর বাইরেও দলগুলো দ্বিপক্ষীয় সিরিজ নিজ উদ্যোগে আয়োজন করে নিতে পারবে। যদিও এই অতিরিক্ত সিরিজগুলোর পয়েন্ট লিগ টেবিলে যোগ হবে না। শুধু র‌্যাঙ্কিংয়ে প্রভাব ফেলবে। দলগুলো যেন দ্বিপক্ষীয় সিরিজগুলো খেলতে পারে, এজন্য ৮ মাসের একটি ফাঁকা জায়গাও রাখা হয়েছে। কিন্তু ভারত-পাকিস্তানের যে সম্পর্ক, সেটি এই সিরিজ চালুর পথে বড় বাধা। ঝামেলা এড়াতে হোম-অ্যাওয়ে সিরিজে ভারত-পাকিস্তানকে মুখোমুখি না করে লিগ সম্পন্ন করার বিকল্প ভেবে রাখা হয়েছে। কিন্তু পিসিবির ভয়টা হলো, নতুন এই কাঠামোতে ভারত-পাকিস্তান যদি পরস্পরের সঙ্গে না খেলে, এর বাইরে দ্বিপক্ষীয় সিরিজেও না খেলে; তাহলে আগামী ১০ বছরের মতো সময়ে ভারতের বিপক্ষে তাদের খেলা হবে না। ভারতের বিপক্ষে খেলার সূচি না থাকলে পিসিবির টিভি স্বত্ব সে রকম দামে বিক্রি হবে না। যে টিভি স্বত্ব থেকে তারা ১৩০ মিলিয়ন ডলার প্রত্যাশা করে। পাকিস্তানের যুক্তিটা হলো, অন্য কোনো দল কি রাজি হবে ভারতকে ছাড়া এতগুলো বছর খেলতে? অস্ট্রেলিয়া বা ইংল্যান্ড? ফলে লিগভিত্তিক ক্রিকেটে যদি না-ও হয়, যে ৮ মাসের ফাঁকা সূচি আছে, তাতে তারা ভারতকে দ্বিপক্ষীয় সিরিজে চায়। এর নিশ্চয়তা না পেলে নতুন কাঠামোতে পিসিবি সই করবে না। ২০০৭ সালের পর ভারত-পাকিস্তান পূর্ণ দ্বিপক্ষীয় সিরিজ হয়নি। ২০০৮ সালে মুম্বাইয়ে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার দায় ভারত সরকার সরাসরি পাকিস্তানের উপর চাপিয়েছে। ভারত সরকার এরপর থেকে তাদের কোনো ক্রিকেট দলকে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে দিতে রাজি হয়নি। যদিও পিসিবি ও বিসিসিআই একাধিক সিরিজ খেলতে সমঝোতা চুক্তি পর্যন্ত করেছিল। সেই চুক্তি আর আলোর মুখ দেখেনি। পিসিবি মামলার উদ্যোগ নিয়েছে। আইসিসি সমঝোতা করার জন্য সালিস কমিটি গঠন করেছে। কিন্তু অগ্রগতি সামান্যই। আগামী সভায় পিসিবি তাই জোর গলায় নিজেদের অবস্থান তুলে ধরবে। যদিও তাদের একার ভোট নতুন প্রক্রিয়াকে থামাতে পারবে কি না, তা নিশ্চিত নয়। যা-ই হোক না কেন, নতুন লিগভিত্তিক ক্রিকেট শুরুর আগে একটা অনিশ্চয়তায় পড়ল। কেআই/ডব্লিউএন
দক্ষিণ আফ্রিকা  যেতে পারছেন না রুবেল!

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের দলে জায়গা করে নিতে পারেননি রুবেল হোসেন। ডানহাতি এই পেসারের মাঠে ফেরার কথা দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ দিয়ে। কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট দল দক্ষিণ আফ্রিকায় পৌঁছে গেলেও এখনো আটকে আছেন রুবেল। ভিসা জটিলতায় আটকে আছে তাঁর দক্ষিণ আফ্রিকা সফর। মূলত দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের নতুন নিয়মের বলি হতে হয়েছে রুবেলকে। নিরাপত্তা সংক্রান্ত সবুজ সঙ্কেত পাওয়ার পরেই সেখানে ভ্রমণের ভিসা দেওয়া হয়ে থাকে। দক্ষিণ আফ্রিকার অভিবাসন নিরাপত্তা এজেন্সির অনাপত্তিপত্র না পাওয়ায় এমিরেটস বিমান তাকে নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, সোমবার পর্যন্ত বৈধ কাগজপত্র হাতে পাননি রুবেল। তাই যথাসময়ে রুবেলের সেখানে পৌঁছানো নিয়ে শুরু হয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনা। বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দীন চৌধুরী গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, দ্রুত সেই কাগজপত্র হয়তো পাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। আমি ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান নির্বাহী হারুন লরগাততে বিষয়টি জানিয়েছি। তিনি আমাকে নিশ্চিত করেছেন বিষয়টি তিনি দেখবেন।নতুন আইন নিয়ে বিসিবির নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, বর্তমানে কিছু দেশে ভ্রমণ করতে গেলে নিরাপত্তা ছাড়পত্র লাগে। আর সেটা সেসব দেশই দিয়ে থাকে। এটা নতুন আইন। মনে হচ্ছে রুবেল সেই ঝামেলাতেই পড়েছেন।বিসিবি সূত্রে আরও জানা গেছে, রুবেলের নাম নিয়েই যত ঝামেলা! দক্ষিণ আফ্রিকায় একই নামের ব্যক্তিকে কালো তালিকাভুক্ত করে রেখেছে তাদের ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ। হয়তো সেই নাম নিয়েই বিপদে পড়েছেন রুবেল! সফরে বাংলাদেশ দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি খেলবে।তথ্যসূত্র ক্রিকবাজ। //এআর

পেছনে পড়েও ভারতকে হারালো যুবারা

কেউ কল্পনাও করতে পারেনি তিন গোলে পিছিয়ে থাকার পরও ম্যাচ নিজের করে নিতে পারবেন বাংলাদেশের যুবারা। কিন্তু সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে নাটকীয় জয় তুলে নিয়েছে লাল-সবুজের বাংলাদেশ দল। সোমবার থিম্পুর চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে নিজেদের প্রথম ম্যাচটি ৪-৩ গোলে জিতে এগিয়ে থাকল মাহবুব হোসেন রক্সির দল। প্রথমার্ধে ৩-০ গোলে পিছিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়ায় যুবারা। জাফর ইকবাল করেন জোড়া গোল। অন্য দুটি গোল মোহাম্মদ সুফিল ও রহমত মিয়ার। আগামী বুধবার মালদ্বীপের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। আর নেপালের বিপক্ষে খেলবে ২৫ সেপ্টেম্বর। তার দুদিন পর স্বাগতিক ভুটানের বিপক্ষে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলবে মাহবুব হোসেন রক্সির দল।

মোসাদ্দেকের ভবিষ্যত অনিশ্চিত!

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুই টেস্টের হোম সিরিজের আগে কন্ডিশনিং ক্যাম্প থেকেই মোসাদ্দেকের দুঃখের দিনের শুরু। ক্যাম্পে অনুশীলন করতে করতে হঠাৎ চোখে কিছু একটা ঢুকে যায়। সাথে সাথে চোখে ব্যথা, পানি পড়া শুরু হয়। অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে আবারও ক্যাম্পে যোগ দেন। অনুশীলন ম্যাচও খেলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত চোখ ভালো না হওয়ায় অস্ট্রেলিয়া সিরিজ থেকে বাদ পড়তে হয় এই তরুণ অল-রাউন্ডারকে। এতদিন পরও তিনি কবে মাঠে ফিরতে পারবেন তা অনিশ্চিতই রয়েই গেছে! ২১ বছর বয়সী এই তরুণের চোখের চিকিৎসার জন্য তাকে ব্যাংকক পাঠিয়েছিল বিসিবি। সেখানেও দ্রুত এই সমস্যা সমাধানের কোনো ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি। গত শনিবার সেখান থেকে দেশে ফিরেছেন মোসাদ্দেক। ব্যাংককে দুটি হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়েছেন তিনি। কিন্তু দুই জায়গা থেকেই বলে দেওয়া হয়েছে, চোখ পুরোপুরি সেরে উঠতে ৩ থেকে ৬ মাস সময় লাগতে পারে। অর্থাৎ, দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ সম্ভবত মিস করতে যাচ্ছেন এই তরুণ খেলোয়াড়। মোসাদ্দেকর বিষয়ে বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী গণমাধ্যমকে বলেন,`আমরা তাকে ব্যাংককে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠিয়েছিলাম। সেখানকার ডাক্তাররা বলে দিয়েছেন এটা সেরে উঠতে ৩ থেকে ৬ মাস সময় লাগতে পারে। নির্দিষ্ট করে কিছু বলতে পারেনি তারা। তবে এটা নিশ্চিত যে,এটা কোনো গুরুতর ইনুজরি নয়। অবস্থার বেশ উন্নতিও হয়েছে। কিছুদিন আগে সারাদিন সমস্যা থাকতই; কিন্তু এখন আর তেমনটা নেই।` ক্রিকেট প্রেমীদের প্রার্থনা, দ্রুতই সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে লাল-সবুজ জার্সিতে মাঠে নামবেন এই তরুণ। কেআই/ডব্লিউএন

এনামুলের ডাবল সেঞ্চুরি

ঘরোয়া আসরগুলোতে সাম্প্রতিক সময়ে এনামুল হকের ব্যাট হাসছে। তারই ধারাবাহিকতা দেখা গেল এবারের জাতীয় ক্রিকেট লিগে। শুধু ব্যাট হাতে উজ্জ্বলতা ছড়াননি, করে ফেললেন ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি। সোমবার  খুলনায় স্থানীয় দলের হয়ে রংপুরের বিপক্ষে ডাবল সেঞ্চুরি করেন তিনি।    খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে চতুর্থ দিনের শুরুতে ২১৬ রান করে আউট হন এনামুল। অবশ্য এর আগে ২০১২ সালে ১৯৩ রান করে অল্পের জন্য ডাবল সেঞ্চুরি পেতে ব্যর্থ হয়েছিলেন তিনি। দীর্ঘদিন পর হলেও ডাবল সেঞ্চুরির দেখা পেলেন তিনি। শুধু ঘরোয়া আসরেই নয়, এটি তাঁর ক্যারিয়ারেরও প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি।    অবশ্য এ ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি পেতে খুবই ঘাম ঝরাতে হয়েছে জাতীয় দলের বাইরে থাকা এই ওপেনারকে। ৩৩০ বলে ১৭ চার আর দুই ছক্কায় ডাবল সেঞ্চুরির ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছান বিজয়। পরে ৩৫৬ বলে ২১৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন অলরাউন্ডার নাসির হোসেনের শিকার হয়ে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এনামুলের পারফরম্যান্স খুবই ভালো। সব মিলিয়ে ৬৩টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন। তাঁর মোট সংগ্রহ ৪,৩৮৯ রান। ১৩টি সেঞ্চুরির পাশাপাশি ২২টি হাফসেঞ্চুরি পেয়েছেন তিনি। এ ছাড়া তার গড় ৪২.৬১। এর আগে ২০১২ সালে ফতুল্লায় ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে ১৯৩ ছিল তার আগের সর্বোচ্চ। সেবার ডাবল সেঞ্চুরি থেকে ৭ রান দূরে এলবিডব্লিউ হয়েছিলেন পেসার তারেক আজিজের বলে। এনামুল ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন দ্বিতীয় দিন দ্বিতীয় সেশনে। সেদিন ৫৯ বলে স্পর্শ করেন হাফ সেঞ্চুরি। তিন অঙ্ক ছুঁয়েছিলেন ১৫৮ বলে। দিন শেষ করেন ১০৫ রানে। এরপর বৃষ্টি বিঘ্নিত তৃতীয় দিনে খেলা হয় মাত্র ৩৯ ওভার। এদিনও টিকে যান এনামুল। দিন শেষ করেন ১৭২ রান নিয়ে।চতুর্থ দিন সকালে পৌঁছে গেলেন কাঙ্ক্ষিত ঠিকানায়। ৩৩০ বলে ছুঁয়ে ফেলেন ডাবল সেঞ্চুরি।//এআর

মাঠেই নেইমার-কাভানি দ্বন্দ্ব!

এডিনসন কাভানি ছিলেন জাতান ইব্রাহিমোভিচ চলে যাওয়ার পর গত মৌসুমের পিএসজির নাম্বার ওয়ান খেলোয়াড়। তবে নেইমার বার্সেলোনা ছেড়ে প্যারিসে আসায় তার ক্ষমতা কিছুটা কমতে শুরু করে। অবশ্য দলের সিনিয়র খেলোয়াড় হিসেবে নেইমারের ওপর আধিপত্য বিস্তার করার চেষ্টা করেন কাভানি। আর এটি নিয়েই উরুগুয়ে ফরোয়ার্ডের সঙ্গে ম্যাচ চলাকালীন দ্বন্দ্ব লেগে যায় নেইমারের। চলতি মৌসুমে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন নেইমার ও কাভানি। এই দুজনের অসাধারণ পারফরম্যান্সের উপর ভর করে পিএসজিও দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে। নতুন মৌসুমে পিএসজির হয়ে পেনাল্টি শট কিংবা ফ্রি-কিক দুটোই নিচ্ছেন কাভানি। এটি নিয়ে রোববার রাতে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন দক্ষিণ আমেরিকার দুই ফরোয়ার্ড। লিঁওর বিপক্ষে পিএসজির হয়ে ফ্রি-কিক নিতে এগিয়ে আসেন কাভানি। কিন্তু বার্সেলোনায় নেইমারের সাবেক সতীর্থ দানি আলভেজ বল নিয়ে বাড়িয়ে দেন নেইমারকে। ব্যাপারটি পছন্দ হয়নি কাভানির। বেশ রাগান্বিত হয়ে পড়েন এই উরুগুয়ে ফরোয়ার্ড। এরপর খেলার ৭৯তম মিনিটে পিএসজি পেনাল্টি পেলে আলভেজ চেয়েছিলেন নেইমার কিক নিক। তবে কাভানি সেটি হতে দেননি। নিজেই এগিয়ে আসেন কিক নিতে। এটি নিয়ে তার সঙ্গে তর্ক লেগে যায় আলভেজ ও নেইমারের। তর্কে জেতেন কাভানিই। তবে স্পট-কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন তিনি। মাঠের খেলায়ও এটি প্রভাব ফেলে। কোনো গোল করতে পারেননি পিএসজির খেলোয়াড়রা। তবে শেষ দিকে দুটি আত্মঘাতী গোলে টানা ষষ্ঠ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ফরাসি জায়ান্টরা। বার্সেলোনায় লিওনেল মেসিই পেনাল্টি কিক নিতে। তবে কখনো কখনো নেইমারকেও কিক নেয়ার জন্য বল এগিয়ে দিতেন। কিন্তু পিএসতে গিয়েই নেইমার পড়েছেন ঝামেলায়। মৌসুমের শুরুতেই জোড়া গোল করার পর নেইমারের সামনে যখন হ্যাটট্রিকের সুযোগ তখনও কাভানি পেনাল্টি কিক নেয়ার জন্য নেইমারকে বল দেননি। মাঠের দ্বন্দ্ব কাভানি-নেইমার কত দ্রুত মিটমাট করতে পারেন সেটাই দেখার বিষয়। আরকে/ডব্লিউএন  

আলাদা হচ্ছেন না পিকে-শাকিরা

ঘর ভাঙছে পিকে আর শাকিরার! গুঞ্জন ভালোই ঢাল পালা মেলছিল। সে গুঞ্জনের তীব্রতা থামাতে পিকে বাধ্য হয়ে ছবি পোস্ট করেন ইনস্টাগ্রামে। ইনস্টাগ্রামে ছবি পোস্ট করে বিচ্ছেদ-গুঞ্জনের তীব্রতা কমিয়েছেন পিকে। জানা গেছে, বয়সে ১০ বছরের তফাত থাকলেও শাকিরা-পিকের জন্মদিন একই। ২ ফেব্রুয়ারির সেই দিনকে প্রতিটি গোলেই মনে করিয়ে দেন পিকে। দুই হাতের দুই আঙুলের উদ্যাপন তাই বিখ্যাত হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ১০ সেপ্টেম্বর একটি আঙুল কম দেখিয়েই ঝামেলা পাকালেন পিকে। এসপানিওলের বিপক্ষে গোল করে নিজের পরিচিত ভঙ্গিতেই দুই হাতকে ‘এক্স’ বানিয়েছিলেন পিকে। কিন্তু ডান হাত দিয়ে দুই আঙুল দেখালেও বাঁ হাতে শুধু মধ্যমা দেখিয়েছেন। এতেই পিকেকে একহাত নিল গণমাধ্যম। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমগুলো ধারণা করে নিল, সুখের ঘরে দুঃখের আগুন। পিকে ও পপশিল্পী শাকিরার সাত বছরের পথচলা থেমে যাচ্ছে! এমনিতেই নিকট অতীতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটু অনুপস্থিত পিকে-শাকিরা। দুজনের যুগল ছবি শেষ দেখা গিয়েছিল মেসির বিয়েতে। এর মাঝে আরেকটি গুঞ্জন শোনা গেছে, বার্সেলোনাতেই নতুন বাড়ি খুঁজছেন শাকিরা। দুইয়ে দুইয়ে ‘চৌদ্দ’ বানাতে সময় লাগেনি সংবাদমাধ্যমে। এত সব গুঞ্জন সামলে জবাব দিতে একটু সময় নিয়েছেন পিকে। ইনস্টাগ্রামে দুই ছেলে মিলান ও সাশার সঙ্গে শাকিরার এক ছবি দিয়ে লিখে দিয়েছেন, রোববার, পরিবারের সঙ্গে একান্ত সময়। পরিবারের তিন সদস্যের চেহারা দেখা যাচ্ছে না বলেই হয়তো শাকিরার গায়ে আবার লিখেও দিয়েছেন, ‘শাকিরা! পিকের এমন পোস্টে গুঞ্জন কিছুটা কমেছে, তবে ওই উদ্যাপনের উত্তর কিন্তু এখনো পাওয়া যায়নি। তথ্যসূত্র: এএস।//এআর

প্রতিপক্ষের আত্মঘাতী গোলে টানা ষষ্ঠ জয় পিএসজির

গত দুই ম্যাচের মতো ছন্দে ছিল না নেইমার, কিলিয়ান এমবাপে ও এদিনসন কাভানিকে নিয়ে গড়া আক্রমণ ত্রয়ী। গোলের দেখা পাননি পিএসজির কেউই। তবে দুটি আত্মঘাতী গোলের সুবাদে লিওঁকে হারিয়ে লিগ ওয়ানে টানা ষষ্ঠ জয় তুলে নিয়েছে উনাই এমেরির দল। রোববার রাতে পিএসজির মাঠে প্রথমার্ধের খেলা কোনো উত্তেজনা ছড়ায়নি। ডান দিক থেকে এমবাপে ও বাঁ দিক থেকে নেইমার আক্রমণের চেষ্টা চালিয়ে ততটা সফল হননি। পায়ের কারিগরি দেখাতে গিয়ে বারবার বলের দখল হারিয়েছেন ব্রাজিলের ফরোয়ার্ড নেইমার। প্রথমার্ধের একমাত্র ভালো সুযোগটা পিএসজি পেয়েছিল শেষ দিকে। এমবাপের কাছ থেকে বল পেয়ে এক ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে নেইমারের নেওয়া শট যায় গোলরক্ষক আন্তনি লোপেসের কাছে। দ্বিতীয়ার্ধে দুই দলের আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলার গতি বাড়ে। ৫৭তম মিনিটে ২১ মিটার দূর থেকে নেওয়া নেইমারের ফ্রি-কিক ডানে ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন লোপেস। ৬৭তম মিনিটে ভাগ্য সহায় না থাকায় এগিয়ে যেতে পারেনি অতিথিরা। নদমবেলের দূরপাল্লার জোরালো শটে বল ক্রসবার কাঁপিয়ে ফিরে। দুই মিনিট পর কাছ থেকে মার্সেলোর হেড ঠেকিয়ে পিএসজির ত্রাণকর্তা গোলরক্ষক আলফুঁস আরিওলা। অবশেষে ৭৫তম মিনিটে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। আর্জেন্টিনার মিডফিল্ডার জিওভানি লো সেলসোর বাঁ দিক থেকে ক্রসে কাভানি পা লাগিয়েছিলেন। এরপর বল মার্সেলোর গায়ে লেগে দূরের পোস্ট দিয়ে জালে ঢুকে যায়। একটু পর ডি-বক্সে এমবাপেকে ফেলে দেওয়া হলে পেনাল্টি পায় পিএসজি। তবে কাভানির স্পটকিক ঠেকিয়ে ব্যবধান বাড়াতে দেননি লোপেস। কিন্তু ৮৫তম মিনিটে আরেকটি আত্মঘাতী গোলে ম্যাচে ফেরার আশা শেষ হয়ে যায় লিওঁর। নেইমারের বাড়ানো বল ধরা এমবাপের সামনে ছিলেন কেবল গোলরক্ষক। বল ফিরিয়েও দিয়েছিলেন; কিন্তু তা ডিফেন্ডার জেরেমি মোরেলের গায়ে লেগে জালে ঢুকে যায়। টানা ছয় জয়ে শীর্ষে থাকা পিএসজির পয়েন্ট ১৮। আরকে//এআর

জয়ের দেখা পেল রিয়াল

টানা দুই ম্যাচে পয়েন্ট হারানোর পর লা লিগায় জয়ের দেখা পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। গ্যারেথ বেল ও বোরহা মায়োরালের গোলে রিয়াল সোসিয়েদাদকে হারিয়েছে জিনেদিন জিদানের দল। রোববার রাতে সোসিয়েদাদের মাঠ আনোয়েতায় ৩-১ গোলে জিতেছে গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। রিয়ালের অন্য গোলটি আত্মঘাতী। ঘরোয়া ফুটবলে পাঁচ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞায় ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। চোট পেয়ে মাঠের বাইরে করিম বেনজেমা। তবে ফরাসি এই ফরোয়ার্ডের জায়গায় সুযোগ পেয়ে উনবিংশ মিনিটে দলকে এগিয়ে দেন বোরহা মায়োরাল।কাসেমিরো বাঁ দিক থেকে বল পাঠিয়েছিলেন ডি-বক্সে। সের্হিও রামোস ঠিকমতো বল নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি। ছুটে এসে জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন ফ্রান্সের এই ফরোয়ার্ড। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে এটাই মায়োরালের প্রথম গোল। ২৮তম মিনিটে কেইলর নাভাসের ভুলে সমতা ফেরায় সোসিয়েদাদ। কেভিন রদ্রিগেসের শট আয়ত্তের মধ্যেই ছিল; কিন্তু বল কোস্টা রিকার এই গোলরক্ষকের হাতে লেগে ঢুকে যায়। ৩৬তম মিনিটে দ্বিতীয় গোল পেয়ে যেতে পারতেন ফরাসি ডিফেন্ডার রদ্রিগেস। কিন্তু তার শট লাগে ক্রসবারে। আর সেখান থেকেই পাল্টা আক্রমণে আবার এগিয়ে যায় রিয়াল। আক্রমণ ঠেকানোর জন্য রিয়ালের ডি-বক্স থেকে নিজেদের ডি-বক্সে ছুটে এসেছিলেন রদ্রিগেস। কিন্তু মায়োরালের শট ঠেকাতে গিয়ে নিজেদের জালেই ঠেলে দেন। ৬১তম মিনিটে পাল্টা আক্রমণে একক প্রচেষ্টায় ব্যবধান বাড়ান বেল। গতিতে সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডার রদ্রিগেসকে হারিয়ে ইসকোর লম্বা পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ছুটে আসা গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে জালে পাঠান ওয়েলসের এই ফরোয়ার্ড। মায়োরালের বদলি নামা লুকাস ভাসকেস ৭৬তম মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়েও সুযোগ কাজে লাগাতে না পারায় ব্যবধান আর বাড়েনি। আরকে//এআর

একমাসে সোয়া এক লাখ জার্সি বিক্রি নেইমারের

মাত্র একমাস আগে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমারকে স্পেনিশ ফুটবল ক্লাব বার্সালোনা থেকে নিজেদের দলে ভিড়িছিলো ফ্রান্সের ক্লাব প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)। এজন্য তাদেরকে গুণতে হয়েছিলো ২২২ মিলিয়ন ইউরো। দলবদলে এ ফি’র পরিমাণ দেখে তখন অনেকেরই চোখ কপালে উঠেছিলো। হওয়ারই কথা। কারণ এর আগে দলবদলের বিশ্বরেকর্ড ছিল ১০৫ মিলিয়ন ইউরো। তার দ্বিগুণেরও বেশি মূল্যে বার্সেলোনা থেকে তাকে কিনতে হয়েছে পিএসজিকে। তবে নেইমার ও পিএসজির সমর্থকরা যেন প্রমাণ করে চলেছেন মূল্যটা বাড়াবাড়ি রকমের নয়। প্যারিসে পা রাখার পর গত এক মাসেই এই ব্রাজিলিয়ান তারকার এক লাখ ২০ হাজার জার্সি বিক্রি করে। নেইমারের জার্সি বিক্রি বাবদ ইতোমধ্যেই প্রায় ৮ দশমিক ৮ মিলিয়ন ইউরো আয় করেছে পিএসজি। নেইমারের পর কিলিয়ান এমবাপ্পে পিএসজিতে যোগ দেয়ার পর জার্সি বিক্রির পরিমাণ আরো বেড়ে যায়। সবমিলিয়ে গত মৌসুমের চেয়ে এবার পিএসজির জার্সি বিক্রি প্রায় ৭৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে নেইমারের জার্সি নির্মাণকারী কোম্পানি পড়েছে মধুর বিড়ম্বনায়। স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কার রিপোর্ট অনুযায়ী, যেই হারে জার্সি বিক্রি হচ্ছে তাতে করে আগামী দুই মাস সমর্থকদের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব নয়। এদিকে পিএসজিতে যোগ দিয়েই নিজের মূল্য বুঝিয়ে চলেছেন নেইমার। এখন পর্যন্ত ফরাসি ক্লাবটির হয়ে পাঁচটি গোল করার পাশাপাশি সমান গোলে অ্যাসিস্ট করেন নেইমার।

টি-টোয়েন্টি র‌্যাংঙ্কিংয়ে শীর্ষ পাঁচে মোস্তাফিজ

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বোলারদের র‌্যাংঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের তরুণ বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমানের। র‌্যাটিং পয়েন্ট ৬৯৫ নিয়ে শীর্ষ পাঁচে উঠে এসেছেন এই কাটার মাস্টার। আর র‌্যাটিং পয়েন্ট ৭৪২ নিয়ে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে রয়েছেন পাকিস্তানি বোলার ইমাদ ওয়াসিম। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা (আইসিসি) এর সর্বশেষ হালনাদকৃত র‌্যাংকিং তালিকায় এ তথ্য উঠে এসেছে। র‌্যাংকিংয়ে দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন যথাক্রমে ভারতের জাসপিত বোমরা ও দক্ষিণ আফ্রিকার ইমরান তাহির। আর বোলিংয়ে নবম স্থানেই রয়েছেন সাকিব আল হাসান। তবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অলরাউন্ডারদের তালিকায় শীর্ষেই রয়েছেন সাকিব আল হাসান।

দুই বছর নিষিদ্ধ চামারা সিলভা

ক্রিকেট সম্পর্কিত সকল কার্যক্রম থেকে চামারা সিলভাকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড। শ্রীলঙ্কার ঘরোয়া ক্রিকেটে টায়ার ‘বি’ প্রথম শ্রেণির ম্যাচে সন্দেহজনক স্কোরিং রেটের কারণেই সাতমাস ধরে চামারা সিলভার ব্যাপারে তদন্ত করে এসএলসি। এরপরই জানা গেছে, ফিক্সিং করেছিলেন সাবেক এই ক্রিকেটার। শুধু চামারা সিলভাই নয়, আরও কয়েকজনকে নিষিদ্ধ করা হয়।  তালুতারা ক্লাবের অধিনায়ক মনোজ দেশাপ্রিয়াকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়। এছাড়া বাকি খেলোয়াড়, কোচ এবং কর্মকর্তাদেরকে ১ বছরের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। গত জানুয়ারিতে কালুতারা ফিজিক্যাল কালচার ক্লাবের বিপক্ষে পানাদুরা ক্রিকেট ক্লাবের ম্যাচ চলাকালীন তৃতীয় দিন এ ঘটনার জন্ম দেন চামারা সিলভা। শুধু তাই নয়, একই সঙ্গে প্রতিটি খেলোয়াড় এবং কোচের জরিমানা করা হয়েছে ৫ লাখ শ্রীলঙ্কান রুপি করে। যে ম্যাচে ফিক্সিংয়ের ঘটনা ঘটে, সেই ম্যাচটি হিসেবের বাইরে নেয়া হয়েছে। ওই ম্যাচের ফল হিসেব করা হবে না। এর অর্থ, শ্রীলঙ্কা পোর্ট অথরিটি ক্রিকেট ক্লাব প্রমোশন পেয়ে টায়ার ‘এ’তে চলে গেলো। রেলিগেশনে পড়লো পানাদুরা এবং কালুতারা ক্লাব। ওই ম্যাচের শেষ দিন ২ উইকেটে ১৮০ রান নিয়ে শুরু করে পানাদুরা ক্লাব। ওটা ছিল তাদের প্রথম ইনিংস। পরে পানাদুরা আরও মাত্র ২২.২ ওভারে ২২৩ রান যোগ করে। রান তোলার গড় ছিল ১০.৩৪ করে। ম্যাচের বাকি দুই ইনিংসও বিপজ্জনকভাবে শেষ হয়ে যায় ওইদিন। দ্বিতীয় ইনিংসে কালুতারা ক্লাব অলআউট হয়ে যায় ১৯৭ রান করে। তারা খেলেছিল ২২.৫ ওভার। দ্বিতীয় ইনিংসে পানাদুরা ৭ উইকেটে ১৬৭ রান করে জয় তুলে নেয়। এই রান তোলার জন্য পানাদুরার হাতে ছিল মাত্র ১৫ ওভার। অথচ তারা জিতে যায় ১৩.৪ ওভারেই। ভুতুড়ে এই কাণ্ডের পরই ম্যাচটির খোঁজে নামে এসএলসি। শেষ পর্যন্ত জানা যায়, ম্যাচটি ছিল পুরোপুরি পাতানো। ডব্লিউএন

রাজশাহী কিংসে মোস্তাফিজ, নাসির সিলেটে

এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) প্লেয়ার্স ড্রাফটে সবচেয়ে আলোচিত তারকা খেলোয়াড়ের নাম মোস্তাফিজুর রহমান। তাই ফ্র্যাঞ্চাইজদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত লটারিতে কাটার মাস্টারকে পেয়েছে রাজশাহী কিংস। এর বাইরে অলরাউন্ডার নাসির হোসেনকে নিয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজদের আগ্রহ খুব একটা কম ছিল না। গতবার ঢাকা ডায়নামাইটসে খেলা  নাসিরকে একবার দলভুক্ত করেছে সিলেট সিক্সার্স। আর তরুণ মেহেদী হাসান মিরাজকে রেখে দিয়েছে তাঁর গতবারের দল রাজশাহী কিংস এবং তারকা পেসার রুবেল হোসেনকে নিয়েছে রংপুর রাইডার্স।  আজ শনিবার রাজধানীর এক হোটেলে প্লেয়ার্স ড্রাফটে আইকনদের বাইরে থাকা খেলোয়াড়দের দল ঠিক করা হয়। এতে ঢাকা ডায়নামাইটস তাদের আইকন সাকিব আল হাসান ছাড়া অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, পেসার মোহাম্মদ শহীদ এবং ওপেনার মেহেদী মারুফকে দলভুক্ত করে। খুলনা টাইটানসের আইকন খেলোয়াড় মাহমুদউল্লাহ। এর বাইরে তারা নিয়েছে পেসার শফিউল ইসলাম, আরিফুল হক ও স্পিনার মোশাররফ হোসেন রুবেলকে। রাজশাহী কিংস আইকন খেলোয়াড় মুশফিকুর রহিমকে ছাড়াও নিয়েছে মুমিনুল হক, মেহেদী হাসান মিরাজ ও ফরহাদ রেজাকে। রংপুর রাইডার্স তাদের আইকন খেলোয়াড় মাশরাফি বিন মুর্তজাকে ছাড়া আরো নিয়েছে, মোহাম্মদ মিঠুন, পেসার রুবেল হোসেন ও স্পিনার সোহাগ গাজীকেও । সিলেট সিক্সার্সের আইকন সাব্বির রহমান। এছাড়া তারা নিয়েছে অলরাউন্ডার নাসির হোসেন, স্পিনার তাইজুল ইসলাম ও উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহানকে। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস তাদের নতুন আইকন খেলোয়াড় হিসেবে নিয়েছে ওপেনার তামিম ইকবালকে। এছাড়া তারা ওপেনার ইমরুল কায়েস, উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান লিটন কুমার দাস ও অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিনকে দলভুক্ত করে। আর চিটাগং ভাইকিংস তাদের আইকন সৌম্য সরকারকে ছাড়া নিয়েছে, পেসার তাসকিন আহমেদ, ওপেনার এনামুল হক বিজয় ও পেসার শুভাশীষ রায়কে। কেআই/ডব্লিউএন

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি