ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮ ৩:১৮:১০

ব্যাটে ঝড় তুলে আউট হলেন সাকিব

ব্যাটে ঝড় তুলে আউট হলেন সাকিব

ব্যাট হাতে আইপিএলে এখনো নিজেকে সেভাবে তুলে ধরতে পারেননি, বল হাতে যতটা পেরেছেন সাকিব আল হাসান। এর পেছনে যতটা না দায় তার নিজের, তার চেয়ে বেশি দায় পর্যাপ্ত সুযোগ না পাওয়ার। চেন্নাইয়ের বিপক্ষে ব্যাট হাতে সুযোগ পেয়ে ভালোই খেলছিলেন সাকিব। তবে ঝড় তুলে হঠাতই আউট হয়ে যান বাংলাদেশি অলরাউন্ডার।    চেন্নাই সুপার কিংসের করা ১৮২ রানের জবাবে খেলতে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে যায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। মাত্র পঞ্চম ওভারেই দলীয় ২২ রানে তিন উইকেটের পতন ঘটে তাদের। পাঁচ নম্বরে নামেন সাকিব। চাপের মুখে নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দেয়ার বড় একটি সুযোগই ছিল সাকিবের জন্য। বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার শুরুটাও করেছিলেন দারুণ। মুখোমুখি দ্বিতীয় বলেই শেন ওয়াটসনের ওভারে এক্সট্রা কভার দিয়ে মারেন একটি চার, পঞ্চম বলে ফাইন লেগ দিয়ে মারেন ছক্কা। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের সাথে ৪র্থ উইকেটে গড়েন ৫০ রানের জুটি। প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দিয়ে উঠতে থাকে হায়দরাবাদ। কিন্তু ইনিংসের ১১তম ওভারে কর্ন শর্মা আক্রমণে আসতেই ধৈর্য্যহারা হয়ে পড়েন সাকিব। প্রথম দুই বল ডট দেয়ায় তৃতীয় বলে চেষ্টা করেন বাউন্ডারি হাঁকাতে। কিন্তু সাকিবের করা সুইপ শট ব্যাটের উপরের পিঠে লেগে চলে যায় ফাইন লেগে থাকা সুরেশ রায়নার হাতে। থেমে যায় সাকিবের ১৯ বলের ইনিংস। ২ চার এবং ১ ছক্কার মারে ২৪ রান করতে সক্ষম হন তিনি। এসি  
ভালো খেলে দলে ফেরার আশায় আকমল

ভালো খেলে দলে ফেরার আশায় উমর আকমল। আসন্ন ঘরোয়া ক্রিকেটে তিনি ভালো করবেন এমন আশা করছেন তিনি। ফলে নির্বাচকরা তাকে আবার দলে ডাকবেন এমনটায় আশা এই ক্রিকেটারের।ডেভ হোয়াটমোরের দৃষ্টিতে পাকিস্তান দলের সবচেয়ে প্রতিভাবান ক্রিকেটার ছিলেন উমর আকমল। পারফরম্যান্সের জোরে দলে তাকে ফেরানোর জন্য নির্বাচকদের বাধ্য করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। ঘরোয়া এই টুর্নামেন্টে ভালো করবেন, সেই ঘোষণা দিয়ে রাখলেন তিনি, ‘আমি পাকিস্তান কাপে ভালো করব। নির্বাচকদের বাধ্য করব আমাকে আবারও দলে নিতে।’ কোচ মিকি আর্থার উমর আকমলের ব্যাপারে উদাসীন। আকমল বুঝতে পারছেন না কেন তাকে অপছন্দ করেন কোচ, আমি জানি না মিকি আর্থার কেন আমাকে পছন্দ করেন না। আমি তো কোচ হিসেবে তাকে পছন্দ করি। সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন গত বছরের জানুয়ারিতে। টেস্ট খেলেছেন সেই ২০১১ সালে, ওয়াকার ইউনুস কোচ থাকার সময়। তাকে অযথাই টেস্ট দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে এমন অভিযোগ তুলে উমর আকমল বলেন, যদি আপনি আমার সর্বশেষ চারটি টেস্ট ইনিংস দেখেন, আমি তিনটি ফিফটি করেছি (প্রকৃতপক্ষে একটা)। এসএইচ/

নাসিরের অস্ত্রোপচারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়নি বিসিবি

বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার নাসির হোসেন ডান হাঁটুর ইনজুরিতে পড়েছেন।  তার ডান হাঁটুর লিগামেন্ট ছিঁড়ে যাওয়ায় অস্ত্রোপচার যে লাগবে, সেটা গত ১০ এপ্রিল এমআরআই রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পেয়েই বলে দিয়েছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী। কিন্তু প্রায় ১৫ দিন পেরিয়ে গেলেও ডানহাতি এই অলরাউন্ডারের অস্ত্রোপচারের বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি (বিসিবি)। সর্বশেষ গত বুধবার বোর্ড সভায়ও নাসিরের বিষয়ে কোনও আলোচনাই হয়নি। এই বিষয়ে বিসিবি চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, বোর্ডের সিইওর সঙ্গে আমি আলোচনা করেছি। তারা এখনও নাসিরকে অস্ট্রেলিয়াতে পাঠানোর বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি। এমনকি বোর্ডে তার বিষয়ে কোনও আলোচনাও হয়নি। তবে মনে হয় ওর বিষয়ে আলাদা করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তিনি আরও বলেন, নাসিরকে অস্ট্রেলিয়ার যে চিকিৎসক ডেভিড ইয়াংয়ের কাছে পাঠাবো তার কাছ থেকে কোনও সময় পাইনি। তিনিও ব্যাক ইনজুরির কারণে অপারেশন করিয়েছেন। তাই তিনি অনেক দিন থেকেই রোগী দেখতে পারছেন না। উল্লেখ্য, গত ৫ এপ্রিল ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগ (ডিপিএল) শেষ করে ছুটিতে যান নাসির। এরইমধ্যে সিরাজগঞ্জ গিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই ফুটবল খেলার সময় হাঁটুতে চোট পান নাসির। প্রাথমিক চিকিৎসার পর সিরাজগঞ্জ থেকে ঢাকা ফিরলে হাঁটুতে এমআরআই করাতে রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে পাঠানো হয় নাসিরকে। বিসিবির ডাক্তারের কথা অনুযায়ী আগামী ছয় মাসের মত ক্রিকেটের ২২ গজে দেখা যাবে না এই ক্রিকেটারকে। আর সুস্থ হয়ে উঠতে নাসিরের অস্ত্রোপচার করাতে হবে। একে// এআর  

যে কারণে বাদ পড়লেন মোসাদ্দেক

সম্ভাবনাময় ও প্রতিশ্রুতিশীল ক্রিকেটার হিসেবে আলোচনায় ছিলেন মোসাদ্দেক হোসেন। জাতীয় দলে সুযোগ পেয়ে দেখিয়েছেন প্রতিভার ঝলক। কিন্তু গত বছর চোখের সংক্রমণের কারণে একটা লম্বা সময় মাঠের বাইরে ছিলেন এই তরুণ ব্যাটসম্যান। আর এটাই কাল হল তার। সুস্থ হয়ে ফেরার পর জাতীয় দলের হয়ে কয়েকটি ম্যাচ খেলেছেন মোসাদ্দেক। কিন্তু একেবারে খারাপ করেননি। আর ঘরোয়া ক্রিকেটে ব্যাটিং অর্ডারে ওলোট-পালোটের কারণে সেভাবে নিজেকে মেলে ধরার সুযোগই পাননি মোসাদ্দেক। অসুস্থতার ওপর কারও হাত না থাকলেও কার্যত সে কারণেই বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়তে হয়েছে এ ব্যাটসম্যানকে। বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, বোর্ড এবার নীতিগতভাবে আগেই ঠিক করে রেখেছিল, যারা টেস্ট এবং ওয়ানডে দলের নিয়মিত সদস্য- তারাই চুক্তিতে অগ্রাধিকার পাবেন। তাদের রেখেই চুক্তিভুক্ত ক্রিকেটারের তালিকা প্রনয়ণ করা হবে। যাদের চুক্তির আওতায় রাখা হয়েছে তাদের নাম থেকেই বিষয়টি পরিষ্কার। ১০জন হলেন- মাশরাফি, তামিম, মুশফিক, সাকিব, মাহমুদউল্লাহ, মুমিনুল, মেহেদি হাসান মিরাজ, মোস্তাফিজ, রুবেল ও তাইজুল। তবে জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু মনে করেন, মোসাদ্দেকের বাদ পড়ার কারণ পারফরম্যান্স নয়। তিনি বলেন, মোসাদ্দেক তো লম্বা সময় দলের বাইরে ছিল। তার চিকিৎসাও বিসিবি করিয়েছে। তার ক্ষমতা আছে। ভালো করতে থাকলে নিশ্চয়ই চুক্তিতে ঢুকে যাবে। তবে শুধু জাতীয় দলের পারফরম্যান্স নয়। মোসাদ্দেককে বাদ দেওয়ার পেছনে ঘরোয়া ক্রিকেটের পারফরম্যান্সও বিবেচনায় আনা হয়েছে। ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ ও বিসিএলেও ভালো করতে পারেননি। তবে পঞ্চম রাউন্ডের শেষদিনে রাজশাহীতে সেঞ্চুরি করেন এই ডান-হাতি ব্যাটসম্যান। মোসাদ্দেকের আচরণ ও খেলার প্রতি দায়বদ্ধতা নিয়েও অনেকের প্রশ্ন আছে। এই কারণটাই নাকি বড় করে দেখা হয়েছে। প্রধান নির্বাচক অবশ্য বিষয়টা সামনে আনতে চাননি। কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে ছয় ক্রিকেটারের বাদ পড়ার কারণ হিসেবে দেখান হয়েছে বাজে পারফরম্যান্স। কিন্তু মোসাদ্দেকের ক্ষেত্রে সেটা বলা যাবে না। এভাবে চুক্তি থেকে বাদ পড়ায় হতাশ মোসাদ্দেক। তিনি বলেন, চোখের সংক্রমণের কারণে দীর্ঘদিন তো খেলতেই পারিনি। এছাড়া বিপিএলেও ঠিকমতো ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাইনি। ব্যাটিং অর্ডারে ওলোট-পালোট হওয়ায় সমস্যা হয়েছে। আশা করছি এই সমস্যা কাটিয়ে দ্রুতই ছন্দে ফিরব। একে// এআর

টটেনহামকে হারিয়ে এফএ কাপের ফাইনালে ম্যানইউ

সময়টা ভালো যাচ্ছিল না ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। সম্প্রতি পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটিকে প্রিমিয়ার লিগের ট্রফি একপ্রকার হাতে ধরে উপহার দিয়ে এসেছে ইউনাইটেড। চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকেও বিদায় নিতে হয় হোসে মরিনিহোর দলটির। সব হারিয়ে ম্যানইউর একমাত্র ভরসা ছিল এফএ কাপ। সেখানে অবশ্য ঘুরে দাঁড়িয়েছে দলটি। টটেনহামকে ২-১ গোলে হারিয়ে ২০তমবারের মতো এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠে গেল তারা। মূল একাদশের শক্তিশালী দলই মাঠে নামান মরিনিহো। ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে শুরু থেকেই দাপট দেখিয়ে খেলতে থাকে টটেনহাম। হোম গ্রাউন্ডের সুযোগ কাজে লাগিয়ে ম্যাচের ১১ মিনিটেই এগিয়ে যায় তারা। এরিকসনের বাড়ানো বল থেকে গোল করেন ইংলিশ মিডফিল্ডার দেলে আলি। কিন্তু এই গোলের আনন্দ বেশিক্ষণ ছিল না টটেনহাম শিবিরে। ম্যাচের ২৪ মিনিটে পল পগবার ক্রস থেকে অসাধারণ এক হেডে গোল করেন চিলিয়ান ফরোয়ার্ড অ্যালেক্সিস সানচেজ। ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে আট ম্যাচের আটটিতেই গোল করার কৃতিত্ব গড়েন সানচেজ। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে এরিক ডায়ারের শট বারে লেগে ফিরে এলে গোলবঞ্চিত হতে হয় টটেনহামকে। ফলে ১-১ সমতায় শেষ হয় প্রথমার্ধ। বিরতি থেকে ফিরে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে ইউনাইটেড। ৬২ মিনিটে ইউনাইটেডকে গোল এনে দেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার আন্ডার হেরেরা। রোমেলু লুকাকুর কাছ থেকে বল পেয়ে টানা দুই এফএ কাপ ম্যাচে গোল করলেন তিনি। ৭৪ মিনিটে এরিকসনের শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে গোলবঞ্চিত হন তিনি। ম্যাচের শেষ দিকে টটেনহাম আরো কয়েকটি বিক্ষিপ্ত আক্রমণ করলেও সেগুলো গোলের দেখা পায়নি। ফলে ২-১ গোলের ব্যবধানে জয় নিয়ে হাসিমুখেই মাঠ ছাড়ে ইউনাইটেড। সূত্র : গোলডটকম। /এআর/  

কোপা দেল রে’র ৩০তম শিরোপা জিতলো বার্সা

সেভিয়াকে মাটিতে নামিয়ে ৫-০ গোলের বিশাল জয় নিয়ে কোপা দেল রে’র ৩০তম শিরোপা জিতলো বার্সেলোনা। যেখানে তাদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাথলেটিক বিলবাওর কোপা দেল রে শিরোপার সংখ্যা ২৩টি। প্রথম দল হিসেবে টানা চারবছর কোপা দেল রে’র শিরোপা জিতলো মেসিরা। মৌসুম শেষেই ক্লাব ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন ইনিয়েস্তা। মূলত তার বার্সেলোনার ক্যারিয়ারের শেষটা আরও বর্ণিল করে রাঙিয়ে দিতে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা ছিল দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। ম্যাচের শুরুতেই গোল পেয়ে যায় বার্সা। ১৪ মিনিটে সুয়ারেজের অসাধারণ গোলে ১-০ গোলে এগিয়ে যায় ভালভার্দের দল। বার্সা গোলকিপার সিলেসিনের কাছ থেকে পাওয়া লং পাস থেকে কৌতিনহো বল পেয়ে ক্ষিপ্রতার সহিত আক্রমণে গিয়ে ডান পাশ থেকে সুয়ারেজের কাছে বল গেলে সেটিকে গোলে পরিণত করেন এই উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার। ম্যাচের ১৮ মিনিটে সমতায় ফেরার সুযোগ পেয়েছিল সেভিয়া কিন্তু নাভাসের বাড়ানো বলে বার্সার রক্ষণভাগে চারজন সেভিয়া ফুটবলার থাকলেও একজনও তাতে সঠিকভাবে পা ছোঁয়াতে পারেননি। ২৮ মিনিটে ইনিয়েস্তার দুর্দান্ত শট গোলবারে লেগে ফিরে আসলে শেষ ফাইনালের মঞ্চে গোলবঞ্চিত হন এই স্প্যানিশ মিডফিল্ডার। এর ঠিক ৩ মিনিট পরেই বার্সেলোনাকে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন আর্জেন্টাইন যাদুকর মেসি। সমন্বিত এক আক্রমণ থেকে জর্দি আলবার বুদ্ধিদীপ্ত ব্যাকহিল থেকে ৫ম বারের মত কোপা দেল রে’র ফাইনালে গোল করেন মেসি। কোপার ইতিহাসে দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে ৫টি ফাইনালে গোল করার রেকর্ড গড়লেন তিনি। এর আগে অ্যাথলেটিক বিলবাওর তেলমো জারা পাঁচটি কোপা ফাইনালে গোল করেছিলেন। এই জয়ের ফলে শেষ ১০ বছরে ছয়বারই কোপার শিরোপা জিতলো বার্সেলোনা। এসএইচ/

ভলিবলে নেপালের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয়

দুই বছর পর আবারও ঢাকায় ভলিবলের আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট। বঙ্গবন্ধুর নামে সেন্ট্রাল এশিয়ান পুরুষ ভলিবল প্রতিযোগিতা, যেখানে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশসহ আরও পাঁচটি দেশ। প্রথম আসরে কিরগিজস্তানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ, তারকাখ্যাতি পেয়েছিলেন অধিনায়ক আল জাবির। এবারের আসরে আল জাবির নেই অসুস্থতার কারণে। তার বদলে নেতৃত্বে হরশিত বিশ্বাস। উদ্বোধনী ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে জয়ে দারুণ ভূমিকা রেখেছেন নড়াইলের ছেলে হরশিত, তার দারুণ সব স্ম্যাশ আর ব্লকে মিরপুরের ইনডোর স্টেডিয়ামে উল্লাসে মেতেছেন দর্শকরা। দীর্ঘ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শেষে খেলা শুরু হয় এক ঘণ্টা দেরিতে। প্রথম সেটে একটা সময় ১৭-১২ ব্যবধানে এগিয়ে থেকেও ২৬-২৪ পয়েন্টে হেরে যায় বাংলাদেশ। প্রথম সেটটা হারের পর দলের কৌশলে কিছু পরিবর্তন আনেন বাংলাদেশের কোচ আলী পোর আরোজি। আক্রমণের বদলে ব্লকে মনোযোগী হতে বলেন শিষ্যদের, সেই সঙ্গে ফার্স্ট রিসিভটা ভালো করার কৌশল বাতলে দেন। কাজে দেয় কোচের পরামর্শ। পরের দুটি সেট বাংলাদেশ জিতে যায় বেশ বড় ব্যবধানে, ২৫-১৮ ও ২৫-১৪ পয়েন্টে। তৃতীয় সেটে বাংলাদেশ খুঁজে পায় নিজেদের সেরা সাফল্য, একটা সময় ১৪-৪ ব্যবধানে নেপালকে পেছনে ফেলার পর ২৫-১৪ পয়েন্টের বড় ব্যবধানে জিতে চতুর্থ সেটে পা রাখে বাংলাদেশ। খেলা শুরুর আগে ছিল উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে বঙ্গবন্ধু এশিয়ান সেন্ট্রাল জোন পুরুষ ভলিবল প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার। এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন- বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানও। ক্রিকেটের মতো ভলিবলও একদিন বাংলাদেশকে গৌরব এনে দেবে, সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় এমন আশাবাদই প্রকাশ করেছেন বোর্ড সভাপতি। বেলুন উড়িয়ে, ব্যান্ড বাজিয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান যেমন আনন্দ দিয়েছে, তেমনি পীড়া দিয়েছে ডিজিটাল স্কোরবোর্ডের অভাব। এমন আন্তর্জাতিক আয়োজনে ডিজিটাল স্কোরবোর্ড না থাকাটা তো বেমানানই। এসএইচ/

ম্যারাথনে দৌড়ানো কি শরীরের জন্য খারাপ?

লন্ডন আজ রোববার ম্যারাথনে দৌড়বেন অন্তত ৪০ হাজার মানুষ। এর আগে লন্ডন ম্যারাথনে অংশ নিয়ে প্রায় প্রতি বছরই অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে অসুস্থ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। কখনও শোনা যায় মারা যাওয়ার খবরও। এখন প্রশ্ন হলো, ম্যারাথনে দৌড়ানো কি শরীরে জন্য ভালোর চেয়ে মন্দ বেশি করে? লিভারপুল জন মুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়াবিষয়ক বিজ্ঞানী ড. মার্ক লেইক বলছেন, ম্যারাথন দৌড়ানো একটি বিরাট শারীরিক চ্যালেঞ্জ। এর ফলে শরীরের হাড়, মাসলস, লিগামেন্ট এবং ধমনীর ওপর ব্যাপক চাপ সৃষ্টি করে। এমনকি যারা রোজ দৌড়ান, তাদেরও এসব প্রত্যঙ্গে যেকোনও আঘাত সারতে সময় লাগে। এজন্য শরীরের দীর্ঘ প্রস্তুতি প্রয়োজন বলে জানাচ্ছেন ড. লেইক। তবে ড. লেইক যাদের দৌড়ানো বা ম্যারাথনে অংশ নেওয়াকে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করেন তারা হচ্ছেন- ১. যাদের ওজন অতিরিক্ত বেশি ও শারীরিকভাবে সমর্থ নন ২. আঘাতের পূর্ব রেকর্ড আছে ৩. শরীরের গঠনে অসামঞ্জস্য আছে যাদের, যেমন এক পা আরেক পায়ের চেয়ে ছোট ড. লেইক মনে করেন, কোনরকম পূর্ব প্রস্তুতি ছাড়া ম্যারাথনে অংশ নেওয়া বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। এমনকি স্থূলতা কিংবা হৃদরোগের চাইতেও একে বেশি বিপজ্জনক মনে করেন তিনি। তবে, যদি হাতে সময় নিয়ে কেউ যথাযথ প্রস্তুতি নিয়ে ম্যারাথনে অংশ নিতে চান, তাহলে কোনও সমস্যা তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। ড. লেইক মনে করেন, এর ফলে শরীর প্রস্তুত হয় একটি চ্যালেঞ্জ গ্রহণের জন্য। এজন্য তিনি হার ও মাসলের পাশাপাশি হৃদরোগের আগাম খোঁজখবর নেওয়ার পরামর্শ দেন। এ সময়ে আবহাওয়া গরম এবং বাতাসে জলীয় আর্দ্রতার পরিমাণ বেশি থাকে। ফলে এ সময়ে ম্যারাথন দৌড়ানো বেশ কঠিন। কারণ এখন অনেক ঘাম হবে। ড. লেইক বলছেন, ম্যারাথনে দৌড়ে একজন মানুষের চার লিটার পর্যন্ত ঘাম হতে পারে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তাদের শরীর পানিশূন্য হয়ে পড়বে। যে কারণে শরীরকে এ সময় পানি এবং তরল জাতীয় খাবার পানীয় গ্রহণ করতে হবে। তবে, সেজন্য ম্যারাথন রুটে সব মোড়ে থেমে পানি না খাবারই পরামর্শ দেন ড. লেইক। প্রথমবারের মত যারা ম্যারাথনে দৌড়বেন, তাদের জন্য কিছু টিপস- * ম্যারাথনে দৌড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে * অন্তত চার থেকে ছয় মাস প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য সময় রাখা উচিৎ * সপ্তাহে তিন থেকে পাঁচদিন দৌড়াতে হবে, এবং প্রতিবার আগের চেয়ে সময় বাড়াতে হবে * প্রস্তুতির সময় যথাযথ বিশ্রাম এবং আঘাত সারার সময় দিতে হবে * ম্যারাথনের সপ্তাহে প্রচার কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার খেতে হবে, যাতে শরীর সেটা শক্তি হিসবে ব্যবহার করতে পারে। তথ্যসূত্র: বিবিসি। একে// এসএইচ/

গেইল ঝড়ে জয় পেল প্রীতির পাঞ্জাব  

ক্রিস গেইল ও লুকেশ রাহুলের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ইডেন গার্ডেনে নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে বড় জয় পেয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। এ ম্যাচে প্রীতি জিনতার দল ৯ উইকেটে জয় পেয়েছে। এদিন ব্যাট হাতে রীতিমতো তাণ্ডব চালিয়েছেন ক্যারিবীয় মারকুটে ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল ও ভারতীয় রাহুল। মাত্র ২৭ বলে ৬০ রান করেন রাহুল। আর ক্রিস গেইল করেন অপরাজিত ৬২ (৩৮ বল) রান। এর আগে দিনের শুরুতে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক রবিচন্দন অশ্বিন। ব্যাটিংয়ে নেমে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে ক্রিস গেইলদের ১৯২ রানের টার্গেট দেয় নাইট রাইডার্স। ওপেনার ক্রিস লিনের ৭৪ রান ও অধিনায়ক দিনেশ কার্তিকের ৪৩ রানে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান করে স্বাগতিকরা। আর কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে সরণ ও টাই ২টি, এবং মুজিবুর রহমান ও অশ্বিন ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।   জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ৮.২ ওভারে ৯৬ রান তুলে নেই পাঞ্জাব। তারপর বৃষ্টির বাগড়ায় ডার্কওয়ার্থ লুইস পদ্ধতি ১১.১ ওভারে ১২৬ রান করে জয় তুলে নেয় অশ্বিনবাহিনী। এসি   

ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলবে না ভারত

দিবা-রাত্রি টেস্টে সব ধরনের প্রতিশ্রুতি ও দর্শন বাতিল করে দিয়ে এই ধরনের কোন টেস্ট কখনই আর না খেলার ঘোষনা দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। এর ফলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এডিলেডে অনুষ্ঠিতব্য চার ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচটি দিবা-রাত্রির হওয়ায় সেটি আর খেলছে না ভারত।   টাইমস অব ইন্ডিয়া সূত্রে জানানো হয়েছে, চলতি বছরের শেষে এডিলেডে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ভারতের সাথে দিবা-রাত্রির টেস্ট ম্যাচ খেলতে চেয়েছিল। কিন্তু বিসিসিআই ম্যাচটি খেলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। এ ধরনের টেস্ট ম্যাচের কোনো ভবিষ্যত নেই বলেই বিসিসিআই দিবা-রাত্রির কোনো ম্যাচ আর খেলতে চাচ্ছেনা বলে সূত্রটি জানিয়েছে। ২০১৯ সালের আইসিসি বিশ্বকাপের পরে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ শুরু হবার কথা রয়েছে। কিন্তু সেখানে চারদিনের টেস্ট, গোলাপী বল কিংবা দিবা-রাত্রির কোনো টেস্ট অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি। সে কারনেই সূত্রটি জানিয়েছে আইসিসি যদি পুরো বিষয়টি অবহেলা করতে পারে তবে বিসিসিআই কেনো এই ধরনের টেস্টে অংশ নিবে। একইসাথে আগামী অক্টোবরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দিবা-রাত্রির টেস্ট আয়োজন করার থেকেও পিছিয়ে এসেছে ভারত। বিসিসিআই ট্যুর অ্যান্ড ফিকশ্চার কমিটি অক্টোবরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম ম্যাচটি রাজকোটে কৃত্রিম আলোতে আয়োজন করতে চেয়েছিল। বিশেষ করে এই ধরনের টেস্টের অভিজ্ঞতা সঞ্চয়ের জন্য খেলোয়াড়দের অনুরোধেই গোলাপী বলে টেস্ট খেলার পরিকল্পনা করে বিসিসিআই। প্রথমদিকে সংশ্লিষ্টরা এ ব্যপারে চিন্তা করলেও পরবর্তীতে তা বাতিল করা হয়। ভবিষ্যতে এ ধরনের কোনো টেস্ট ম্যাচে যেহেতু ভারত আর অংশ নিবে না সে কারনে দিবা-রাত্রির টেস্ট আয়োজনেরও কোনো কারন নেই। বাসস আর/এসি   

আবারও শামির বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ আনলেন হাসিন  

ভারতের জাতীয় দলের ক্রিকেটার মোহাম্মদ শামির বিরুদ্ধে তার স্ত্রী হাসিন আবারও গুরুতর অভিযোগ আনলেন। হাসিন স্বামীর বিরুদ্ধে বিদেশ অর্থ পাচারের অভিযোগ নিয়ে হাজির হয়েছেন এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটে (ইডি)। ভারতীয় একটি পত্রিকার প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, শুক্রবার আইনজীবীকে নিয়ে ইডির দপ্তরে গিয়েছিলেন হাসিন জাহান। সেখানে কর্মকর্তাদের কাছে তিনি শামির বিরুদ্ধে বিদেশে অর্থপাচারের অভিযোগটি পেশ করেন। হাসিনের অভিযোগ, তার স্বামী বিদেশে অর্থ পাচার করেছেন, আর সেই কাজে শামিকে সাহায্য করেছেন তার পাকিস্তানি বান্ধবী। এ বিষয়ে ইডির কর্মকর্তারা যেন তদন্ত শুরু করেন সেই অনুরোধ করেন হাসিন।    তবে এরই মধ্যে ইডির পক্ষ থেকে হাসিনকে বলা হয়েছে, শামির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ জমা দিতে। তারপরই তারা উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করবেন। স্ত্রী হাসিন জাহানের বিভিন্ন অভিযোগে জেরবার মোহাম্মদ শামি পুলিশের তলবের পরিপ্রেক্ষিতে এরই মধ্যে পুলিশ সদরদপ্তরে গিয়ে কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এসেছেন। হাসিন জাহানের করা কয়েকটি অভিযোগে তাকে ও তার ভাইকে জেরাও করেছে পুলিশ। অবশ্য সব অভিযোগ অস্বীকার করে আসা শামি স্ত্রীর করা নতুন অভিযোগ সম্পর্কে কি বলেন সেটাই এখন দেখার। এসি  

শচীনকে কেনো ধন্যবাদ জানালেন বিরাট?   

টাইম ম্যাগাজিনে ২০১৮-এর ১০০জন প্রভাবশালী ব্যাক্তির তালিকায় রয়েছেন বিরাট কোহলি। ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কের ২০১৭টা দারুণ কেটেছে। শুধু ২০১৭ নয় বেশ কয়েক বছর ধরেই তিনি তার সেরা সময় কাটাচ্ছেন।       এখানেই চমকের শেষ নয়। আসল চমক তো অন্য জায়গায়। টাইম ম্যাগাজিনে বিরাট কোহালির প্রোফাইলের লেখক স্বয়ং শচীন টেন্ডুলকার। আর সে কারণেই শচীনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বিরাট কোহালি। টুইটে তিনি লেখেন, ধন্যবাদ শচীন, আমাকে নিয়ে লেখার জন্য। টাইম ম্যাগাজিনের ১০০ জনের তালিকায় জায়গা পেয়ে আমি গর্বিত।  টেন্ডুলকার সেই সময়ের কথা লিখেছেন, যখন তিনি প্রথম কোহালিকে দেখেছিলেন। তিনি লেখেন, ২০০৮এর অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ভারতের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। যেখান থেকে উঠে এসেছিল ভারতীয় ক্রিকেটের পরবর্তী প্রজন্ম। সেই সময় আমি প্রথম ওকে দেখি ভারতের নেতৃত্ব দিতে। আর আজ বিরাট কোহালির নাম মুখে মুখে ঘোরে।  সচিন লিখেছেন, আমার বাবা বলতেন, তুমি যদি তোমার কাজের প্রতি একনিষ্ঠ হও তা হলে একদিন তোমার নিন্দুকেরা তোমার পথ অনুসরণ করবে।    এমএইচ/এসি   

ওয়ার্নার যখন নির্মাণ শ্রমিক!

ডেভিড ওয়ার্নার। সানরাইজার্স হায়দারাবাদের অধিনায়ক হয়ে আরেকটি আইপিএল জেতার পরিকল্পনা সাজানোর কথা তার। কিন্তু বল বিকৃতির ঘটনায় অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ডের দেওয়া ১২ মাসের নিষেধাজ্ঞা কাটাচ্ছেন তিনি। ওয়ার্নারকে আইপিএল থেকে বাদ দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। এ জন্য হায়দারাবাদের কাছ থেকে ১২ কোটি রুপি বেতনও তাই হাতছাড়া হয়েছে। কিন্তু ওসব নিয়ে ভাবলে কি আর চলে! তাইতো নিজেকে ব্যস্ত রাখতে হয়েছেন শখের নির্মাণ শ্রমিক! ব্যাটের বদলে হাতে ড্রিল আর হেলমেটের বদলে হাতায় নির্মাণ শ্রমিকদের হ্যাট নিয়ে ডেভিড ওয়ার্নার। বৃহস্পতিবার ইনস্টাগ্রামে ওয়ার্নারের নতুন ‘চাকরি’র কথা জানিয়েছেন ক্যান্ডিস ওয়ার্নার। ক্যান্ডিসের ভিডিওতে দেখা যায়, সিডনির সমুদ্র তীরবর্তী একটি ম্যানশনে ড্রিল নিয়ে কাজ করছেন ওয়ার্নার। প্রকল্প পরিচালক পুরোপুরি ভিন্ন অর্থের ট্যাগ হ্যাটে লাগিয়ে তাকে বুঝিয়ে দিয়েছেন। তার যে এখন ক্রিকেট বিহীন সময়টা ভালোই কাটছে সেটিই বোঝোলেন ভক্তদের। নিজের নির্মাণাধীন বাড়ির পেছনেই এখন শ্রম দিচ্ছেন তিনি। প্রায় ১ কোটি ডলারের বাড়িটা বানাচ্ছেন লারলাইন উপসাগর মুখী একটি জমিতে। ২০১৫ সালে ৪০ লাখ অস্ট্রেলিয়ান ডলারে এই ব্যয়বহুল অঞ্চলে জমি কিনেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক সহ-অধিনায়ক ওয়ার্নার। আর/টিকে

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি