ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, || আশ্বিন ৪ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ইতিকাফে যে কাজ করা জায়েয

প্রকাশিত : ১৬:০৪ ২২ মে ২০১৯

ইতিকাফের জন্য পুরুষরা মসজিদে যাবেন। আর মেয়েরা বাড়ির নির্দিষ্ট কোন স্থানে থাকবেন। এখানে কুরআন তেলাওয়াত, জিকির-আসকার, বেশি বেশি নফল নামাজ আদায়ে মত্ত থাকবেন মুমিনরা। এর মধ্যে কিছু কিছু প্রাকৃতিক প্রয়োজন এসে যায়। তাই ইতিকাফে বসে কি কি কাজ জায়েয তা জানতে হবে।

জায়েয কাজগুলা হলো :

পেশাব-পায়খানার জন্যে বাইরে যাওয়া জায়েয। মনে রাখতে হবে এসব প্রয়োজন এমন স্থানে পূরণ করতে হবে যা মসজিদের কাছে হয়।

গোসল বা ফরয গোসলের জন্য ইতিকাফের স্থান থেকে বাইরে যাওয়া জায়েয। তবে মসজিদেই গোসল করার ব্যবস্থা থাকলে সেখানেই গোসল করতে হবে।

খানা খাওয়ার জন্য মসজিদের বাইরে যাওয়া যায় যদি খানা নিয়ে আসার কোন লোক না থাকে। খানা আনার লোক থাকলে মসজিদে খাওয়াই জরুরি।

কেউ যদি কোন প্রাকৃতিক প্রয়োজনে যেমন জুমার নামাজের জন্য বের হলো এবং এ সময়ে যে কোন রোগীর সেবা করলো অথবা জানাযায় শরীক হলো- তাতে কোন দোষ হবে না।

যে কোন প্রাকৃতিক ডাকে অথবা শরীয়াতের প্রয়োজনে মসজিদ থেকে বের হওয়া জায়েয।

যদি কেনাবেচার কোন লোক না থাকে এবং বাড়িতে খাবার কিছু না থাকে তাহলে প্রয়োজনমত কেনাবেচা করা ইতিকাফকারীর জন্য জায়েয।

আযান দেয়ার জন্য মসজিদের বাইরে যাওয়া জায়েয।

যদি কেউ ইতিকাফ করার নিয়ত করতে গিয়ে এ নিয়ত করে যে, সে জানাযার জন্য যাবে তাহলে যাওয়া জায়েয হবে। অন্য নিয়ত করলে তার জন্য যাওয়া জায়েব হবে না।

ইতিকাফ অবস্থায় কাউকে দ্বীন সম্পর্কে পরামর্শ অথবা চিকিৎসা সংক্রান্ত পরামর্শ দেয়া জায়েয। বিয়ে করা, ঘুমানো এবং আরাম করা জায়েয।

তথ্যসূত্র : মাওলানা মোফাজ্জল হকের রোজা ইতিকাফ ফিদইয়া ফিতরা গ্রন্থ।

এএইচ/

 

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি