ঢাকা, মঙ্গলবার   ১১ আগস্ট ২০২০, || শ্রাবণ ২৮ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

করোনায় হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন প্রয়োগ না করতে ডব্লিউএইচও’র পরামর্শ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:১৪ ৫ জুলাই ২০২০

(ছবি- রয়টার্স)

(ছবি- রয়টার্স)

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কোভিড-১৯ রোগের চিকিত্সায় ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনের ব্যবহার বন্ধ করতে পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এছাড়া এইচআইভি চিকিত্সায় ব্যবহৃত ওষুধ লোপিনাভির/রিটোনাভির দিয়ে চিকিত্সাও বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে সংস্থাটি। মে মাসের শেষে এমন পরামর্শের পর সপ্তাহখানেক পরে সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হলেও গতকাল শনিবার এক বিবৃতিতে আবারও ওষুধটির ব্যবহার বন্ধ রাখার পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাটি। খবর রয়টার্স’র।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গতকালের বিবৃতিতে জানিয়েছে, অন্তর্বর্তীকালীন ব্যবস্থা হিসেবে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া কোভিড-১৯ রোগের চিকিত্সায় হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন এবং লোপিনাভির/রিটোনাভিরের মাধ্যমে চিকিত্সা করা হয়েছিল। কিন্তু এসব ওষুধ মৃত্যু কমাতে কোনো ভূমিকা রাখতে পারেনি। তাই এই ওষুধ দিয়ে চিকিত্সা বন্ধ করা হলো। অনেক দেশ এই ওষুধ ব্যবহার করছে বলে সংস্থাটি উল্লেখ করেছে।

বিবৃতিতে জানানো হয়, আন্তর্জাতিক স্টিয়ারিং কমিটির পরামর্শে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীদের চিকিত্সার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েই এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। 

উল্লেখ্য, হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ মূলত ম্যালেরিয়ার চিকিৎসায় ব্যবহার হয়। করোনা ভাইরাসের এখন পর্যন্ত কোনও স্বীকৃত ওষুধ আবিষ্কৃত না হওয়ায় বিভিন্ন দেশে ওষুধটির পরীক্ষামূলক ব্যবহার চলছে। এক গবেষণায় হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ও ক্লোরোকুইন কোভিড-১৯ রোগীদের মৃত্যুঝুঁকি বাড়তে পারে বলে ইঙ্গিত পাওয়ার পর গত ২৫ মে এর ব্যবহার স্থগিত করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। গত ৩ জুন ঐ সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে সংস্থাটি ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় ওষুধ দুটি ব্যবহারের অনুমোদন দেয়। শনিবার সংস্থাটির পক্ষ থেকে আবার এর ব্যবহার বন্ধ করার পরামর্শ এলো।

এমএস/
 


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি