ঢাকা, ২০১৯-০৬-২০ ৯:১৫:২৫, বৃহস্পতিবার

Ekushey Television Ltd.

কেউ দেখতে গেল না এটিএম শামসুজ্জামানকে

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:০২ এএম, ৬ জুন ২০১৯ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ১২:১৪ এএম, ৬ জুন ২০১৯ বৃহস্পতিবার

দেশবরেণ্য অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান বেশ কয়েকদিন ধরেই হাসপাতালে ভর্তি আছেন। শারিরিক অবস্থার কিছুটা উন্নত হলেও হাসলাতালের বিছানাতেই ঈদ কাটাতে হলো তাকে। কিন্তু বছরের এই বিশেষ দিনটাতে তার পাশে পরিবার ছাড়া ছিল না কেউ। এতো জনপ্রিয়তা ও ভক্তবৃন্দ থাকতেও ঈদের দিনে তার পাশে শুধ পরিবার! যা অন্তরকে করে ব্যথাতুর, বিবেককে করে প্রশ্নবিদ্ধ।

এটিএম শামসুজ্জামানের স্ত্রী রুনি জামান বলেন, তার (এটিএম শামসুজ্জামান) শারীরিক অবস্থা এই ভালো তো এই খারাপ। কখন কী হয় বোঝা মুশকিল। তাই চিকিৎসকরাও কোনো ধরনের রিস্ক নিতে চান না। তাই তাকে তার ছাড়পত্র দেয়া হয়নি। উপয় অন্তর না পেয়ে শেষ পর্যন্ত তাকে হাসপাতালের বিছানাতেই ঈদ কাটাতে হলো।

গত ২৬ এপ্রিল রাতে হঠাৎ করেই অসুস্থ বোধ করার সঙ্গে সঙ্গে এটিএম শামসুজ্জামানকে রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর ২৭ এপ্রিল এই বরেণ্য অভিনেতার ফুসফুসে অস্ত্রোপচার করা হয়। তখন তাকে ৭২ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে কেবিনে রাখা হয়েছিল। তারপর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়।

পরে শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে তার লাইফ সাপোর্ট খুলে দেওয়া হয়। কিন্তু পরবর্তীতে তার ফুসফুসে সংক্রমণ দেখা দেওয়ার আশঙ্কা তৈরি হলে ৩০ এপ্রিল তাকে আবার লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, ১৩ মে আনুষ্ঠানিকভাবে এটিএম শামসুজ্জামানের চিকিৎসার সব ধরনের দায়িত্ব নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই অভিনেতার চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ১০ লাখ টাকার চেক হাসপাতালের তহবিলে জমা দেওয়া হয়েছে।

১৯৬১ সালে পরিচালক উদয়ন চৌধুরীর ‘বিষকন্যা’ চলচ্চিত্রে সহকারী পরিচালক হিসেবে এটিএম শামসুজ্জামানের চলচ্চিত্র জীবনের শুরু। প্রথম কাহিনি ও চিত্রনাট্যকার হিসেবে কাজ করেছেন ‘জলছবি’ ছবিতে। এ পর্যন্ত শতাধিক চিত্রনাট্য ও কাহিনি লিখেছেন।

শিল্পকলায় অবদানের জন্য ২০১৫ সালে পেয়েছেন সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা একুশে পদক। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে পাঁচ বারেরও বেশি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন এ অভিনয়শিল্পী।

আরকে//



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি