Ekushey Television Ltd.

গর্ভবতী মায়েদের রোজা রাখার ক্ষেত্রে লক্ষণীয় বিষয়

প্রকাশিত : ২১:১৩ ১০ মে ২০১৯ | আপডেট: ২১:১৬ ১০ মে ২০১৯

পবিত্র রমজান মাসে গর্ভবতী মায়েরা কিভাবে রোজা রাখবেন? এমন প্রশ্ন নিয়ে অনেকে হাজির হন ডাক্তারের কাছে। তাই স্ত্রী রোগ ও গর্ভবতী মায়েদের করণীয় বিষয় নিয়ে পরামর্শ দিয়েছেন ঢাকা কমিউনিটি মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের অধ্যাপক ডা. সারিয়া তাসনিম। তিনি বলেন, গর্ভবতী মায়েরা চাইলে রোজা রাখতে পারেন। তবে তাকে অবশ্যই খাবারের বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। খাবারের চাহিদা পূরণ হচ্ছে কি-না, তা দেখতে হবে।

এছাড়া প্রস্রাবে সমস্যা হচ্ছে কি-না তাও মাথায় রাখতে হবে। তাহলে রোজা রাখা সম্ভব। গর্ভবতী মায়েদের ৫০০ ক্যালোরির বেশি খাবার খেতে হয়। তাই এ ক্ষেত্রে রোজা রাখলেও ভাত ও সবজি খেতে হবে পরিমাণ মতো। এসব খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য হবে না। তবে এটা বেশি খেয়াল রাখা দরকার যতো বেশি ধরনের খাবার খাওয়া সম্ভব ততো বেশি ভিটামিন পাওয়া যাবে। প্রাণীজ ও ভেষজও আমিষ খাবার খেতে হবে। ফলিক এসিডও খাওয়া যেতে পারে। যা গর্ভপাত রোধ করবে।

এছাড়া মাসিকের সময় রোজা রাখার বিধান ইসলামে না থাকলেও কেউ যদি চায় পুরো মাস সে রোজা রাখেবে। তাহলে সে ক্ষেত্রে সে মাসিক শুরু হওয়ার ১০ দিন আগে থেকে ওষুধ খেয়ে রোজার মাসে মাসিক বন্ধ রাখতে পারবে। যার মাধ্যমে ৩০টি রোজায় মাঝে গ্যাপ না দিয়ে পুরো মাস রোজা রাখা সম্ভব। তবে মাসিক বন্ধ রাখার জন্য ওসুধ খেলে, কেউ এটা সহ্য করতে পারবে কি-না সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। তবে এর কারণে পরবর্তী মাসিকের সময় পেটে ব্যাথা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত যাওয়া বা প্রস্রাবে ইনফেকশান অথবা পেটে ব্যাথা হলে সে ক্ষেত্রে কিডনির সমস্যা হতে পারে। তাই এ ক্ষেত্রে কেউ রোজা রাখতে চাইলে অবশ্যই তাকে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। 

 

এনএম/এসএইচ/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি