ঢাকা, শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ১ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

চার ঘণ্টার জন্য মুক্তি পেলেন তারেকের বন্ধু মামুন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:০৭ ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মায়ের মৃত্যুতে চার ঘণ্টার জন্য প্যারোলে মুক্তি পেয়েছেন মুদ্রাপাচার মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিতর্কিত ব্যবসায়ী ও তারেক রহমানের বন্ধু গিয়াসউদ্দিন আল মামুন।

বৃহস্পতিবার সকাল নয়টা থেকে বেলা একটা পর্যন্ত তাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়া হয়। মামুনের পরিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল বুধবার ভোরে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ছাড়েন মামুনের মা মোসাম্মত হালিমা খাতুন। মামুনের ভাই বিএনপির সাবেক সাংসদ হাফিজ ইব্রাহিম বিষয়টি জানিয়েছিলেন।

মায়ের মৃত্যুতে মামুনের প্যারোলে মুক্তি চেয়ে আবেদন করেন তাদের আরেক ভাই জালাল উদ্দিন রুমী। 

গতকাল রুমি জানান, মামুন মুক্তি পেলে সকালে তাদের সোবহানবাগের বাসায় আসবেন এবং জানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে মায়ের দাফনে থাকবেন।

কেরাণীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহাবুব আলম গতকাল জানিয়েছেন, ‘গিয়াসউদ্দিন আল মামুনকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়ার কাগজপত্র আমাদের হাতে এসে পৌঁছেছে। প্যারোলের শর্ত হিসেবে তিনি নির্দিষ্ট এলাকার বাইরে যেতে পারবেন না, সার্বক্ষণিক পুলিশ পাহারায় থাকবেন এবং সময় শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কারাগারে এসে পৌঁছাবেন।

বিএনপি নেতা তারেক রহমানের বন্ধু ও ব্যবসায়িক অংশীদার গিয়াস উদ্দিন আল মামুন জরুরি অবস্থার মধ্যে ২০০৭ সালের ৩১ জানুয়ারি গ্রেফতার হন। তখন থেকেই তিনি কারাগারে আছেন।

লন্ডনে অর্থ পাচার মামলায় গত ২৪ এপ্রিল মামুনের সাত বছর কারাদণ্ড দেয় ঢাকার তিন নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক আবু সৈয়দ দিলজার হোসেন। একইসঙ্গে তার ১২ কোটি টাকা অর্থদণ্ডও করা হয়।

এটি ছাড়াও অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনের একটি মামলায় আগে মামুনের ১০ বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আরও একটি অর্থপাচার মামলায় মামুনের কারাদণ্ড হয়েছে সাত বছর। এছাড়া জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় ১৩ বছর কারাদণ্ড হয় তারেক রহমানের বন্ধু মামুনের।

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি