ঢাকা, সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯, || কার্তিক ৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

দৈনিক আমল কণিকা

প্রকাশিত : ১৬:২৩ ২৫ মে ২০১৯

আমাদের প্রত্যেকের উচিত হবে, পবিত্র রমজানের মাহাত্ম ও গুরুত্ব বুঝে রমজান থেকে কল্যাণমণ্ডিত হওয়া। আজ শনিবার উনিশ রমজান। আজকের আমল হোক আল্লাহর মুমিন বান্দা হই, ন্যুনতম জীবনোপকরণে তৃপ্ত থাকি এবং আল্লাহর ভয়ে অশ্রু ঝরিয়ে কাঁদবে সেই চোখ লাভের।

আল্লাহর প্রিয় বন্ধর পার্থিব অবস্থা

আবু উমামা বাহিলি (রাদিয়াল্লাহু আনহু) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) আল্লাহ তায়ালার এ বক্তব্যটি পাঠ করে শুনিয়েছেন, ‘আমার বন্ধুদের মধ্যে আমার কাছে সবচেয়ে সৌভাগ্যবান সেই মুমিন- যার পার্থিব অবস্থা নগণ্য, সালাতের পরিমাণ অধিক, যে উত্তমরূপে স্বীয় রবের দাসত্বকারী, মানুষের কাছে সুপ্ত- যার ফলে লোকেরা তাকে খুব একটা গুরুত্ব দেয় না, যার মৃত্যু হয় দ্রুত, উত্তরাধিকার সম্পদ থাকে অল্প ও (মৃত্যুর পর) কান্নাকাটি করার লোক থাকে কম।’

ন্যুনতম জীবনোপকরণে পরিতৃপ্তিই সফলতার পরিচায়ক

আবদুল্লাহ ইবনু আমর ইবনিল আস (রাদিয়াল্লাহু আনহুমা) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন, ‘সে-ই তো সফল যে (আল্লাহর নিকট) আত্মসমর্পণ করেছে, যতটুকু প্রয়োজন ঠিক ততোটুকু জীবনোপকরণ লাভ করেছে এবং আল্লাহ তায়ালা তাকে যা কিছু দিয়েছেন- তাতেই সে পরিতৃপ্ত হয়েছে।’

ফুদালা ইবনু উবাইদ (রাদিয়াল্লাহু আনহু) থেকে বর্ণিত, তিনি রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম)কে বলতে শুনেছেন, ‘সুসংবাদ তার জন্য যে ইসলামের দিশা পেয়েছে, যতটুকু প্রয়োজন ঠিক ততোটুকু জীবনোপকরণ লাভ করেছে এবং পরিতৃপ্ত হয়েছে।’

আল্লাহর ভয়ে কান্নাকাটি করার চক্ষু লাভের জন্য দোয়া

সালিম ইবনু আবদিল্লাহ (রাদিয়াল্লাহু আনহু) বলেন, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) যেসব দোয়া করতেন তার মধ্যে একটি ছিল- ‘হে আল্লাহ! আমাকে অঝোরে কান্নাকাটি করার দুটি চক্ষু দান করো- যা তোমার ভয়ে অশ্রু ঝরিয়ে কাঁদবে এবং (অন্তরকে) রোগমুক্ত করবে, সেই সময় আসার পূর্বে যখন অশ্রু পরিণত হবে রক্তে আর মাড়ির দাঁত পরিণত হবে জ্বলন্ত কয়লায়।’

তথ্যসূত্র : ইমাম আহমাদ ইবনু হাম্বাল, অনুবাদ: জিয়াউর রহমান মুন্সী, রাসূলের চোখে দুনিয়া গ্রন্থ।

এএইচ/

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি