ঢাকা, বুধবার   ১৬ অক্টোবর ২০১৯, || কার্তিক ১ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ধর্ষণের অভিযোগে পল্টন থানার ওসি বরখাস্ত

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২৩:০২ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ২৩:০৪ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

এক নারীকে ধর্ষণ ও গর্ভপাতের অভিযোগে পল্টন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) এ নির্দেশ দেওয়া হয়।

জানা যায়, চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ ও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ‘গর্ভপাত’ করানোর অভিযোগে ভুক্তভোগী এক নারী পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. জাবেদ পাটোয়ারী বরাবর অভিযোগ করেন। তার সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ডিএমপি ওসি মাহমুদুল হকের বিরুদ্ধে তদন্ত করে। তদন্তে সত্যতা পাওয়ার পরই সোমবার তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হলো।

আইজিপি বরাবর দেওয়া অভিযোগে বলা হয়েছে, ‘কলেজে পড়ালেখা করা অবস্থায় ওসি মাহমুদুলের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। এরপর তাদের মধ্যে ফোনে কথা হতো। ২০১৭ সালের ২১ সেপ্টেম্বর ওসি তাকে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ঢাকায় ডেকে আনেন। ওই নারী ঢাকায় আসার পর ওসি মাহমুদুল তাকে পল্টনের ক্যাপিটাল হোটেলের একটি রুমে নিয়ে যান। হোটেলে তাকে খাবারের সঙ্গে কিছু মিশিয়ে খাওয়ানো হয়। এরপর ওই নারীকে অচেতন করে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেন। পরে ওই নারীর জ্ঞান ফেরার পর তিনি বিষয়টি বুঝতে পারেন। 

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, এ সময় ওসি তাকে জানান, তিনি তাকে ভালোবাসেন। তাকে বিয়ে করতে চান। স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক ভালো নয় বলে নানা অজুহাতে এমনকি কোরআন শরীফের ওপরে হাত রেখে ওই নারীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেন।

অভিযোগে আরও বলা হয়, বিয়ের কথা বলে পরে ওই নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয় ওসি। গত বছরের ২০ অক্টোবর ওই নারী বুঝতে পারেন, তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন। এ সময় ভুক্তভোগী বিষয়টি মাহমুদুলকে জানালে তিনি বিয়ের প্রলোভনে তাকে গর্ভপাত করতে বাধ্য করেন। 

এসি

 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি