ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ফোনালাপে যে নিয়মগুলো মানা উচিত

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:৫৫, ১৩ ডিসেম্বর ২০২৩

ফোন এখন দৈনন্দিন জীবনে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত একটি প্রযুক্তি। ফোনে আপনার কথা বলার ধরন অপর প্রান্তের শ্রোতার মনে আপনার বিমূর্ত ছবি দাঁড় করিয়ে দেয়। আপনার সম্পর্কে এই প্রাথমিক ধারণা শ্রোতার মনে দীর্ঘস্থায়ী প্রভাব ফেলতে পারে। তাই সচেতন হোন−কোথায় কখন কাকে কী বলছেন, কীভাবে বলছেন।

ফোন ডায়ালের ক্ষেত্রে যে নিয়মগুলো মানবেন

> কাউকে ফোন করার আগে একমুহূর্ত থামুন। কী বলতে চান তা গুছিয়ে নিন। তারপর ফোন করুন।

> যদি অপর প্রান্ত থেকে কথা না বলেন কিন্তু বোঝা যায় রিসিভ করা হয়েছে, তাহলে যিনি কল করেছেন তিনিই সালাম দিতে পারেন।

> গুরুজন বা সম্মানীয় ব্যক্তি ফোন রিসিভ করে সালাম দিলে আপনি সালামের উত্তর দিন। পাল্টা সালাম দেয়ার প্রয়োজন নেই। যদি উভয়ে একইসাথে সালাম দেন, তাহলে উভয়েই উত্তর দিন।

> অতি জরুরি না হলে ‘অনুরোধের’ নম্বরে ফোন করবেন না।

> কাঙ্ক্ষিত ব্যক্তিকে যদি না পান, যিনি ফোন রিসিভ করেছেন তাকে নিজের পরিচয় দিয়ে বলুন− ‘আমি কি ... (যথার্থ সম্বোধনসহ নামে) সঙ্গে কথা বলতে পারি?’

> অপ্রয়োজনীয় বা তেমন জরুরি নয়−এমন ফোনের জবাব দেয়ার জন্যে দুপুরে খাওয়ার আগে বা অফিস ছুটির আগে−এ সময়গুলো বেছে নিন।

> একবার ফোন করে না পেলে অন্তত পাঁচ মিনিট পর আবার করুন। তখনো না পেলে টেক্সট/ ভয়েস মেসেজ দিন। কল ওয়েটিং দেখলে বার বার কল করে তাকে বিব্রত ও নিজের অসহিষ্ণুতা প্রকাশ করবেন না।

> আপনি ফোন করে থাকলে এবং কোনো কারণে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হলে পুনরায় নিজেই ফোন করুন।

> কাউকে ফোন করলে তার কথা বলার সময় হবে কিনা জেনে নিন। ফোনে আলাপ যতটা সম্ভব সংক্ষিপ্ত করুন। দীর্ঘক্ষণ কথা বলার মতো সময় তার না-ও থাকতে পারে। আর স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেন− ‘বেশি কথা মোবাইলে, কান যাবে অকালে’।

> ফোন করে কথা বলার অনুমতি চাওয়ার ক্ষেত্রে ‘একটু বিরক্ত করি’ না বলে বলুন, ‘আপনি অনুমতি দিলে আমি আপনার সাথে ... মিনিট কথা বলতে চাচ্ছি’।

> রং-নাম্বারে ফোন করে ফেললে ‘দুঃখিত’ বলুন। অপর প্রান্তের ব্যক্তির নাম বা কোন জায়গা তা জিজ্ঞেস করবেন না।

ফোন রিসিভের ক্ষেত্রে যে নিয়মগুলো মানবেন...

> রিং বেজে ওঠার স্বল্পতম সময়ের মধ্যে ফোন রিসিভ করার চেষ্টা করুন।

> স্বাভাবিক কৌতূহল নিয়ে ফোন রিসিভ করুন। অতি উচ্ছ্বাস, বিরক্তি কিংবা বিরস ভাব নয়, স্পষ্ট স্বরে কথা বলুন।

> ফোন রিসিভ করে প্রথমেই ‘হ্যালো’ বা ‘হ্যাঁ!’ বলার পরিবর্তে ‘আসসালামু আলাইকুম’ বলুন ও শুভেচ্ছা বিনিময় করুন। আত্মবিশ্বাস ও বিনয়ের সাথে নিজের পরিচয় দিন।

> সামনে বসা কারো সাথে কথা বলার সময় জরুরি ফোন এলে ‘মাফ করবেন’ বলে তার অনুমতি নিয়ে ফোন ধরুন।

> ফোনে কথা বলার সময় সামনে বসা কারো সাথে কথা বলতে হলে অপর প্রান্তের ব্যক্তির অনুমতি নিন।

> ক্রমাগত রং-নাম্বার থেকে ফোন এলে বিরক্ত হবেন না। কিছুক্ষণ রিসিভার তুলে রাখুন বা ফোন সাইলেন্ট করে দিন।

> যিনি ফোন করেছেন তিনি বিদায়ী সম্ভাষণ জানিয়ে ফোন রাখার পর আপনি ফোন রাখুন।

লেখাটি শহীদ আল বোখারী মহাজাতক-এর "শুদ্ধাচার" বই থেকে নেওয়া

এমএম//


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি