ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯, || কার্তিক ৩০ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

বিরোধীদলীয় নেতা রওশন ও কাদেরকে উপনেতা করে প্রজ্ঞাপন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৬:২৫ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১৬:২৭ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

দলের চেয়ারম্যান ও বিরোধীয় দলীয় নেতার পদ নিয়ে জাতীয় পার্টিতে সৃষ্ট জটিলতার সমাধানের দু’দিনের মাথায় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদকে একাদশ জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা ও দলটির চেয়ারম্যান জিএম কাদেরকে উপনেতা করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়।

নানা নাটকীয়তার পর দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেবর জিএম কাদেরের পরিবর্তে ভাবি রওশন এরশাদকে ওই পদ দেয়ার জন্য গতকাল রোববার সন্ধ্যায় স্পিকারের কাছে চিঠি দেয়া হয়। আর জিএম কাদেরকে বিরোধী দলীয় উপনেতা করার জন্য স্পিকারকে অনুরোধ করা হয়।

সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমদ খান স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জাতীয় সংসদের সরকারি দলের বিরোধিতাকারী সর্বোচ্চ সংখ্যক সদস্য নিয়ে গঠিত সংসদীয় দলের নেতা রওশন এরশাদকে (ময়মনসিংহ-৪) জাতীয় সংসদের কার্যপ্রণালী বিধি (২) (১) (ট) অনুযায়ী বিরোধী দলের নেতা এবং এক উপনেতা (পারিতোষিক ও বিশেষাধিকার) অধ্যাদেশ, ১৯৭৯ মোতাবেক লালমনিরহাট-৩ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ কাদেরকে উপনেতা হিসেবে স্পিকার স্বীকৃতি দিয়েছেন।

এর ফলে টানা দুই সংসদে বিরোধীদলীয় নেতার আসনে বসছেন রওশন। এর আগে দশম সংসদেও তিনি বিরোধীদলীয় নেতার দায়িত্ব পালন করেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি প্রধান বিরোধী দল হলে পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বিরোধীদলীয় নেতা হন। পরে তার মৃত্যুতে এ পদটি শূণ্য ঘোষণা করা হয়।

রোববার সন্ধ্যায় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার শামিম হায়দার পাটোয়ারী ওই চিঠি স্পিকারের দফতরে পৌঁছে দেন। চিঠিতে সই করেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

পরে সংসদ অধিবেশন শেষে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বিরোধীদলীয় নেতা ও উপনেতার নাম জমা দেয় জিএম কাদেরের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল। জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

পরে সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা বলেন, সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ ও উপনেতা জিএম কাদেরকে মনোনীত করার বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে স্পিকারকে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এর আগে বিকালে জাতীয় সংসদের লবিতে জাতীয় পার্টির সংসদীয় দলের সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে রওশন এরশাদ আর উপনেতা হিসেবে জিএম কাদেরের নাম সর্বসম্মতভাবে প্রস্তাব করা হয়।

চলতি অধিবেশনে রওশন এরশাদ বিরোধীদলীয় উপনেতার দায়িত্বে আছেন। তিনি বিরোধীদলীয় নেতার দায়িত্বে আসীন হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সঙ্গে উপনেতার পদটি শূন্য হবে।

সংসদীয় দলের বৈঠক শেষে জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘আমাদের দলের সংসদ সদস্যরা সংসদীয় দলের সভায় বিরোধী দলের নেতা হিসেবে রওশন এরশাদকে মনোনয়ন করে স্পিকারের কাছে চিঠি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এর আগে হত শনিবার রাতে বারিধারা ক্লাবে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন জিএম কাদের। জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতার দায়িত্ব পালন করবেন রওশন এরশাদ।
আর পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে প্রার্থী হবেন তার ছেলে সাদ এরশাদ। এভাবেই সমঝোতায় পৌঁছান জাতীয় পার্টির দুই শীর্ষ নেতা জিএম কাদের ও রওশন এরশাদ।

চলতি বছরের ১৪ জুলাই সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ মারা গেলে, নতুন করে দলে বিভক্তের সুর মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। দলের চেয়ারম্যান কে হবেন তা নিয়ে চলে নানান কানাঘুষা। 

দেবর ভাবির দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে রুপ না নিলেও, দলে ভাঙন সুর অনেকটা প্রকাশ্যে চলে আসে। অনেক সবশেষ তাদের মাঝে সমঝোতা হলেও, বরফ গলতে সময় লেগেছে প্রজ্ঞাপন জারির আগ মূহুর্ত পর্যন্ত। 

আই/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি