ঢাকা, মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯, || কার্তিক ২৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

‘মোংলা বন্দরকে মৃত বানিয়েছিল খালেদা জিয়া’

মোংলা প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৪:১৬ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মোংলা বন্দরসহ খুলনা ও বাগেরহাটকে খালেদা জিয়া ও এরশাদ গোষ্ঠীরা মৃত বানিয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই অঞ্চলটাকে জীবন দান করেছেন বলে উল্লেখ করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এ বন্দর আগামী তিন চার বছরের মধ্যেই সম্ভাবনার বন্দরে পরিণত করার আশ্বাস দেন প্রতিমন্ত্রী।

বুধবার সকাল ১০ টায় মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের এক সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, মোংলা বন্দর এখন আমাদের দেশীয় বন্দর নাই, এই বন্দরের সুযোগ সুবিধা এখন প্রতিবেশি রাষ্ট্রও গ্রহণ করছে। 

এর আগে সকাল সাড়ে ৯ টায় তিনি বন্দর জেটি এলাকাসহ বন্দরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা পরিদর্শন শেষে বন্দরের সভাকক্ষে উপদেষ্ট সভায় যোগ দেন। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এ্যাডমিরাল এম মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে সভায় মোংলা বন্দরের উন্নয়ন ও আধুনিকায়ন, বন্দর ব্যবহারকারীদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি, পশুর চ্যানেলের নাব্যতা সংরক্ষণসহ নতুন ইকুইপমেন্ট সংযোজনের বিষয়ে আলোচনা হয়।

এছাড়া সভায় মোংলা-খুলনা মহাসড়ক, খানজাহান আলী বিমান বন্দর নির্মাণ, খুলনা-মোংলা রেল লাইন স্থাপন ও পদ্মা সেতু নির্মাণের ফলে এ বন্দরের কার্যক্রম বৃদ্ধির কথা উল্লেখ করা হয়।

বন্দরের উন্নয়নে কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণের গুরুত্বপূর্ণ এ সভায় খুলনা সিটি করপোরেশেনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য ডা. মোজাম্মেল হক, বিভাগীয় কমিশনার, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, বাগেরহাট জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, মোংলা উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বাংলাদেশ শিপিং এজেন্ট এ্যাসোশিয়েসনের চেয়ারম্যান, বারবিডার সভাপতি, ষ্টিভেডর্স এ্যাসোশিয়েসনের সভাপতিসহ বন্দরের পদস্থ কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

পরে প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্মচারী সংঘের (সিবিএ) সধারণ নির্বাচনে নব নির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদের অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হন। এসময় সিবিএর সভাপতি মো. সাইজউদ্দিন মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মো. ফিরোজ মিয়া তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি