ঢাকা, রবিবার   ২৫ আগস্ট ২০১৯, || ভাদ্র ১০ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

রমজানে বিভিন্ন ব্যথায় করণীয় (ভিডিও)

প্রকাশিত : ১৬:৪০ ৩১ মে ২০১৯

রমজান মাসে মানুষের দৈনন্দিন কার্যক্রমে কিছুটা পরিবর্তন আসে। পরিবর্তনের এ ছোঁয়া খাওয়া-দাওয়া থেকে শুরু করে ইবাদত পর্যন্ত গড়ায়। সবাই চান ব্যথামুক্ত থেকে এ সময় ইবাদত করতে। তাই এ রমজান মাসে কিভাবে ব্যথামুক্ত ইবাদত করবেন? কিভাবে ব্যথা থেকে বাঁচবেন?

এ সংক্রান্ত বিষয়ে নিয়ে একুশে টিভির অন্যতম জনপ্রিয় ‘সিয়াম ও আপনার স্বাস্থ্য’ অনুষ্ঠানে আলোচনা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আলোচনা করেছেন ডা. শফিউল্লাহ প্রধান- বাত, ব্যথা ও প্যারালাইসিস বিশেষজ্ঞ ও কনসালট্যান্ট ডি পি আর সি হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনোস্টিক সেন্টার। উপস্থাপনায় ছিলেন অধ্যাপক ডা. ইকবাল হাসান মাহমুদ। শ্রুতি লেখক- মাহমুদুল হাসান।

ডা. শফিউল্লাহ প্রধান বলেন, বেশিরভাগ মানুষই জীবনের কোনো না কোনো সময় কোমর ব্যথাজনিত সমস্যায় ভুগে থাকেন। আমাদের দেশে প্রতি পাঁচজনের মধ্যে এ সমস্যা দেখা যায়।

অনেকের ধারণা নামাজ পড়লে কোমর ব্যথা বেড়ে যেতে পারে। এ সম্পর্কে ডা. শফিউল্লাহ প্রধান বলেন, এ ধারণাটি সম্পূর্ণ ভুল। বরং নামাজ পড়ার কারণে কোমরের ব্যথা থেকে শুরু করে শরীরের নানা ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

মূলত যারা বসে বসে ডেস্কে কাজ করে। তাদের মধ্যে কোমর ব্যথা দেখা দিতে পারে। অপরদিকে যারা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ের তাদের সাধারণত কোমর ব্যথা হয় না। কেননা এর মাধ্যমে শরীরের অঙ্গগুলোর প্রয়োজনীয় ব্যয়াম পেয়ে থাকে।

ব্যথার বিভিন্ন ধরণের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, মেরুদণ্ডের মাংসপেশির ব্যথা, লিগামেন্ট মচকানো, আংশিক ছিঁড়ে যাওয়া, দুই কশেরুকার মধ্যবর্তী ডিস্ক সমস্যা, কশেরুকার অবস্থানের পরিবর্তন ও মেরুদণ্ডের নির্দিষ্ট বক্রতার পরিবর্তনকে বোঝায়। এর মধ্যে চলাফেরা, জীবিকার ধরণ, খুব বেশি ভার বা ওজন বহন, মেরুদণ্ডের অতিরিক্ত নড়াচড়া, একটানা বসে বা দাঁড়িয়ে কোনো কাজ করা, মেরুদণ্ডে আঘাত পাওয়া সর্বোপরি কোমরের অবস্থানগত ভুলের জন্য এ ব্যথা হয়ে থাকে।

অন্যান্য কারণের মধ্যে বয়সজনিত মেরুদণ্ডে ক্ষয় বা বৃদ্ধি, অস্টিও আথ্রাইটিস বা গিঁটে বাত, এনকাইলজিং স্পনডাইলোসিস, মেরুদণ্ডের স্নায়ুবিক সমস্যা, টিউমার ক্যান্সার, বোন টিবি, মাংসপেশির সমস্যা, স্ত্রীরোগজনিত সমস্যা, এছাড়া অতিরিক্ত ওজন ইত্যাদি।

ব্যথার উপসর্গ সম্পর্কে তিনি বলেন, কোমরের ব্যথা আস্তে আস্তে বাড়তে পারে বা হঠাৎ প্রচণ্ড ব্যথা হতে পারে। নড়াচড়ার কারণে কাজকর্মে ব্যথা তীব্র থেকে তীব্রতর হতে পারে। ব্যথা কোমরে থাকতে পারে বা কোমর থেকে পায়ের দিকে নামতে পারে অথবা পা থেকে কোমর পর্যন্ত উঠতে পারে।
অনেক সময় কোমর থেকে ব্যথা মেরুদণ্ডের পেছন দিক দিয়ে মাথা পর্যন্ত উঠতে পারে। রোগী দাঁড়িয়ে থাকতে পারে না। ব্যথার অন্যতম আধুনিক চিকিৎসা হচ্ছে ফিজিওথেরাপি। এর মাধ্যমে সহজেই ব্যথা দূর করা সম্ভব।

এ সময় অনেকেই বাতের ব্যথায় ভুগছেন। বাতের ব্যথায় হাঁটতে, বসতে, উঠতে অনেকেই কষ্ট পান। এক্ষেত্রে নিয়মিত নামাজ পড়া যেতে পারে। কেননা নিয়মিত নামাজের মাধ্যমে ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। তবে অতিরিক্ত ব্যথা হলে ডাক্তারের পরামর্শ দিতে হবে।

ভিডিও  https://www.youtube.com/watch?v=o-KAHmK73HI

এমএইচ/আরকে

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি