ঢাকা, রবিবার   ১৯ মে ২০২৪

গ্যাস সিলিন্ডার থেকে দুর্ঘটনা এড়াতে করণীয় ৭

প্রকাশিত : ১৫:৫৯, ২৮ মার্চ ২০১৯

বিপদ কখনও বলে আসে না। তাই আগাম সতর্ক হওয়া অত্যন্ত জরুরি! বাড়িকে সুরক্ষিত করার জন্য মজবুত দরজা-জানলা আর লোহার গ্রিল লাগানো ছাড়াও অনেক কিছু করার থাকে। চুরি-ডাকাতির ঝুঁকি এড়াতে দরজায় শক্তপোক্ত তালা বা বাড়ির একাধিক জায়গায় সিসিটিভি ক্যামেরা বসানোর কথাই ভাবেন অধিকাংশ মানুষ। কিন্তু বিপদ বলতে কি শুধু চুরি-ডাকাতির ভয়? শর্ট সার্কিট থেকে একাধিক অগ্নিকাণ্ড ঘটে। তাই নিরাপত্তার খাতিরে বাড়ির বৈদ্যুতিক সংযোগ বা তারের লাইনগুলোর নিয়মিত দেখভাল করা বা প্রয়োজনে পরিবর্তন করা জরুরি! এ ছড়াও বাড়ি-ঘর সুরক্ষিত করতে আর একটা বিষয়ে আগাম সতর্ক হওয়া অত্যন্ত জরুরি। আর সেটা হল আমাদের রান্নাঘরে থাকা গ্যাস সিলিন্ডার। গ্যাস সিলিন্ডার থেকেও যে মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে, সে কথা আমরা প্রায় সবাই জানি।

গ্যাস সিলিন্ডার থেকে দুর্ঘটনা এড়াতে কয়েকটা জরুরি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে। যেমন, গ্যাস সিলিন্ডারের পাইপে কোথাও ফাটা বা ছিদ্র আছে কি না বা গ্যাসের নব ঠিক মতো বন্ধ করা হয়েছে কি না ইত্যাদি। এবার জেনে নিন, গ্যাস সিলিন্ডার থেকে বিস্ফোরণ বা কোনও রকম দুর্ঘটনা এড়াতে কী কী করণীয়-

১. গ্যাস বন্ধ করে রান্নাঘর থেকে বেরনোর আগে অবশ্যই দেখে নিন গ্যাসের পাইপটি যেন কোনভাবেই গ্যাস ওভেনের গরম বার্নারের গায়ে লেগে না থাকে।

২. অনেকেই গ্যাস জ্বালানোর লাইটার বা দেশলাই ব্যবহারের পর সেটি সিলিন্ডারের উপরেই রেখে দেন। খেয়াল রাখবেন, সিলিন্ডার গরম হতে পারে এমন কোনও কাজ করবেন না। গ্যাস ওভেন, সিলিন্ডার বা গ্যাসের পাইপ কখনওই যেন খুব কাছাকাছি এসে না পড়ে! সব সময় এগুলোর মধ্যে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন।

৩. পাইপ পরিষ্কার রাখতে অনেকেই গ্যাসের পাইপের গায়ে কোনও কাপড় বা প্লাস্টিক দিয়ে মুড়ে রাখেন। এমনটা কখনওই করবেন না। কারণ এ ক্ষেত্রে পাইপ থেকে গ্যাস লিক হলেও তা ধরা পড়বে না।

৪. একই পাইপ বছরের পর বছর ব্যবহার করবেন না। নিরাপত্তার খাতিরে প্রতি ২-৩ বছর পর পর গ্যাসের পাইপ বদলে ফেলুন।

৫. অনেকেই পাইপ পরিষ্কার করতে সাবান ব্যবহার করেন। এমনটা কখনওই করবেন না। কারণ এর ফলে মারাত্মক বিপদ ঘটে যেতে পারে। গ্যাসের পাইপ পরিষ্কার করার জন্য শুকনো কাপড় ব্যবহার করুন। পাইপটি খুব নোংরা হলে মোছার কাপড়টি হালকা করে জলে ভিজিয়ে নিন। সেই ভেজা কাপড় দিয়েই পরিষ্কার করুন গ্যাসের পাইপ।

৬. রান্নাঘর থেকে বেরনোর আগে সিলিন্ডারের মুখ সেফটি ক্যাপ দিয়ে ঢেকে রাখুন।

৭. রান্নাঘরে ঢুকেই গ্যাসের গন্ধ পেলে তখনই বাইরে বেরিয়ে আসুন। ওই অবস্থায় কোনও সুইচ বোর্ড বা বৈদ্যুতিন সরঞ্জাম চালু করবেন না। মনে রাখবেন, রান্নার গ্যাস বাতাসের চেয়ে ভারি। ফলে গ্যাস লিক করলেও তা মেঝের কাছাকাছি ঘোরাফেরা করে। তাই প্রাথমিকভাবে কাপড়, তোয়ালে বা হাতপাখার সাহায্যে হাওয়া দিয়ে গ্যাস রান্নাঘরের বাইরে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করতে পারেন। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে বুঝলে বা গ্যাসের গন্ধে সারা বাড়িময় ভরে যাচ্ছে বুঝলে দেরি না করে খবর দিন পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থার হেল্প লাইন নম্বরে।

সূত্র: জি নিউজ

একে//


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি