ঢাকা, সোমবার   ১৭ জুন ২০২৪

উচ্চ রক্তচাপ নিরব ঘাতক

ছৈয়দ আহমদ তানশীর উদ্দীন

প্রকাশিত : ১০:২৯, ১৭ অক্টোবর ২০২০

উচ্চ রক্তচাপ নিরব ঘাতক বলা হয়ে থাকে। কারণ এটি সঠিক সময়ে চিকিৎসা না করলে মৃত্যু হতে পারে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই হাই ব্লাডপ্রেশার রোগীদের লক্ষণ থাকে না, ফলে মনের অজান্তেই আপনার শরীরে হয়তো বাসা বাঁধছে উচ্চ রক্তচাপ। 

সাধারণত প্রতি ৪ জনে একজন পুরুষ, ৫ জনে একজন নারীর মধ্যে উচ্চ রক্তচাপ থাকে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গবেষণা বলছে, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় উচ্চ রক্তচাপের রোগী ২৫ শতাংশ। এছাড়া আমেরিকায় ১৮ শতাংশ, আফ্রিকায় ২৭ শতাংশ ও ইউরোপে ২৩ শতাংশ। ২০১৯ সালের ডব্লিউএইচ’র প্রতিবেদন বলছে ১ দশমিক ১৩ বিলিয়ন লোক উচ্চ রক্তচাপে ভুগছে।

এতে সহজেই অনুমেয় উচ্চ রক্তচাপ কতটা মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তথ্য প্রযুক্তি উন্নয়ন হওয়ার কারণে আমাদের শারীরিক কসরতের পরিমাণ কমে আসছে।  ফলে আমাদের শরীরে চর্বি বাসা বাঁধছে। বলা হচ্ছে শরীরের রক্তচাপ ১৪০/৯০ হলে ধরে নিতে হবে আপনি উচ্চ রক্তচাপের দিকে যাচ্ছেন। আপনার লক্ষণ থাকুক, না থাকুক আপনি চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন। 

তবে সবার নিয়ম মেনে নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর ব্লাড প্রেশার চেক করা উচিত।

উচ্চ রক্তচাপের লক্ষণ কী কী?
অধিকাংশ ক্ষেত্রেই উচ্চ রক্তচাপের লক্ষণ থাকে না। তবে কারো ক্ষেত্রে কিছু লক্ষণ প্রকাশ পায়। যেমন- সকালে দুর্বলতা, মাথাব্যাথা, নাক দিয়ে রক্তপাত, হৃৎস্পন্দন অনিয়মিত হওয়া, চোখে ঝাপসা দেখা। তাছাড়া মারাত্মক ক্ষেত্রে অতিরিক্ত অবসাদ, হাত পা কাঁপা, বমি ভাব ও বমি হওয়া, অসংলগ্ন কথাবার্তা বলা, উদ্বিগ্ন ও বুকে ব্যাথা ইত্যাদি।

উচ্চ রক্তচাপে ঝুঁকি আছে
হাই ব্লাডপ্রেশার নিয়ন্ত্রণ না করলে মৃত্যু ঝুঁকি বাড়ে। চিকিৎসা না করলে হার্ট অ্যাটাক বা হার্ট ফেইলিউর হয়ে মারা যেতে পারেন। অথবা রক্তনালি ছিড়ে গিয়ে কিংবা ব্লক হয়ে স্ট্রোক করতে পারেন।

শনাক্তকরণঃ সহজে নিজে নিজের ব্লাড প্রেশার চেক করুন। এখন ডিজিটাল বা ম্যানুয়াল মেশিন পাওয়া যায়। ১৪০/৯০ হলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন।

উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের উপায়
১. লবন কম খাওয়া। দৈনিক ৫ গ্রামের কম লবণ খাওয়া উচিত।
২. শাক-সবজি ও ফলমূল খাওয়া
৩.ধূমপান না করা 
৪. চর্বিযুক্ত খাবার না খাওয়া। বিশেষ করে সম্পৃক্ত ফ্যাট ও  ট্রান্স ফ্যাটযুক্ত খাবার খাবেন না। যেমন বার্গার, বিস্কুট, চর্বিযুক্ত মাংস ও মাছ খাওয়া যাবে না। প্রাণীজ ও উদ্ভিদ প্রোটিন খাওয়া যাবে।
৫. মদ্যপান কমানো
৬. শারীরিক ব্যায়াম করা। দৈনিক কমপক্ষে ৩০ মিনিট হাঁটতে হবে।
ব্যায়াম করুন সুস্থ থাকুন, ব্লাডপ্রেশার নিয়ন্ত্রণ করুন। 

লেখক-বিএসসি ইন নার্সিং (চবি), এমপিএইচ ইন নিউট্রিশন(ইবি)

এআই/এমবি


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি