ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০২৪

উচ্চ রক্তচাপ হলে করণীয় কী : তাসনিম আশিক

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:৫২, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ | আপডেট: ১৬:০১, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

উচ্চ রক্তচাপ প্রায় একটি স্থায়ী রোগ হিসেবে বিবেচিত। এর জন্য চিকিৎসা ও প্রতিরোধ দুটোই জরুরি। তা না হলে বিভিন্ন জটিলতা, এমনকি হঠাৎ করে মৃত্যুরও ঝুঁকি থাকে। এবিষয় বিভিন্ন পরামর্শ নিয়েছে পুষ্টিবিদ তাসনিম আশিক।

উচ্চরক্তচাপ বা হাইপারটেনশন হলো রক্তচাপ যখন স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি থাকে তখন তাকে উচ্চরক্তচাপ বা হাইপারটেনশন বলা হয়।  তবে কেউ রক্তচাপে ভুগছে তা ভেবে থাকলে অন্তত তিন দিন তিনটি ভিন্ন সময়ে অন্তত পাঁচ মিনিট বসে থাকার পর রক্তচাপ মাপা উচিত। যদি তিন বারেই রক্তচাপ স্বাভাবিক রক্তচাপের চেয়ে বেশি পাওয়া যায় তাহলে ধরে নেয়া যায় সে উচ্চ রক্তচাপে ভুগছে।

উচ্চ রক্তচাপ হওয়ার কারণ:

**প্রথমত অতিরিক্ত লবন গ্রহণ। (ধারনা করা হয় ৬০% রোগীর অতিরিক্ত লবণ গ্রহণের কারণে হাইপারটেনশন হয়ে থাকে)

** অতিরিক্ত ওজন

**কাজের চাপ

**বংশগত কারণ

**মদ্যপান ও ধুমপান করা

**মানষিক অবসাদ

**অতিরিক্ত চিন্তা ও অস্থিরতা

**অনিয়ন্ত্রিত খাদ্য গ্রহণ।

উচ্চ রক্তচাপের কারণে শরীরে অন্যান্য অজ্ঞের উপর প্রভাব পরে এবং অন্য যে রোগ গুলো সৃষ্টি হয় সেগুলো হলো:

**স্ট্রোক

**হার্ট এটাক বা মায়োকার্ডিয়াল ইনফার্কশন

**চোখের সমস্যা

**কিডনির সমস্যা ইত্যাদি রোগের ঝুঁকি বেরে যায়।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের উপায়:

উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত রোগীরা বা পরিবারের লোকজন বা যারা রোগীর দেখাশুনা করে থাকেন তারা ভেবে থাকেন যে শুধুমাত্র চিকিৎসক এর দেয়া ঔষুধই যথেষ্ট রোগীকে স্বাভাবিক রাখার ক্ষেত্রে কিন্তু এই ধারণাটি পুরোপুরি সঠিক না। ঔষুধ তাকে খেতে হবে কিন্তু এর পাশাপাশি অবশ্যই রোগীকে প্রতিদিন এর খাদ্যাভাস মেনে চলতে হবে অর্থাৎ সঠিক খাদ্য তালিকা মেনে চলতে হবে। সঠিক খাদ্য গ্রহনের মাধ্যমে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা অবশ্যই সম্ভব।

যে ধরনের খাবার গুলো এড়িয়ে চলা অনেক বেশি জরুরি:

প্রথমত সোডিয়ামযুক্ত খাবার যেমন লবন সেই সাথে লবনাক্ত খাবার :আচার,চানাচুর,চিপস, প্রোসেস করা লবনাক্ত খাবার এবং টেস্টিং সল্ট ও সয়াসস দিয়ে তৈরি করা খাবার এরিয়ে চলতে হবে।

অতিরিক্ত ক্যালরিযুক্ত খাবার, চর্বিযুক্ত খাবার বিশেষ করে গরু-খাসির মাংস ,কলিজা, মগজ, ডুবো তেলে ভাজা খাবার, অধিক চিনি ব্যবহার করে বানানো খাবার, অধিক পরিমান ভাত গ্রহণ প্রভৃতি খাবার থেকে বিরত থাকতে হবে।

উচ্চ রক্তচাপের ক্ষেত্রে পটাশিয়াম যুক্ত খাবার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে রাখতে সাহায্য করে। কারণ পটাশিয়াম সোডিয়ামের মাত্রাকে সঠিকভাবে রাখতে সহায়তা করে যেমন :সবুজ শাক সবজি,কলা, টমেটো,রঙ্গীন সবজি,ডাবের পানি,টমেটো ইত্যাদি খাবার গ্রহণ করলে রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখা সম্ভব।

 

এছারাও স্বাভাবিক যে খাবার গুলো প্রতিদিন তিনবেলা খাবার তালিকায় রাখা হয় যেমন: রুটি,ভাত ,মাছ,মুরগীর মাংস,ডাল ইত্যাদি খাবার রোগীদের ক্যালরি চাহিদামত তারা অবশ্যই গ্রহন করবে কিন্তু অধিক পরিমান যেন না হয় সেটি খেয়াল রাখতে হবে। সঠিক পরিমান ও সঠিক খাদ্য নির্বাচনের মাধ্যমে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ করা অবশ্যই সম্ভব।

লেখকঃ পুষ্টিবিদ তাসনিম আশিক

 

টিআর/


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি