ঢাকা, বুধবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২২, || মাঘ ১২ ১৪২৮

শীতে উপকারী গিজারের রক্ষণাবেক্ষণও জরুরি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:৩০, ১০ নভেম্বর ২০১৯

গ্রামে শুরু হয়েছে শীত, কিন্তু শহর এলাকায় শীত আসে আসে ভাব। তবে সকালে কলের পানি অনেক ঠাণ্ডা থাকে। যার কারণে অনেকেই এই পানিতে গোসল করতে চান না। এই ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করলে সর্দি-কাশি কিংবা জ্বরও হতে পারে ভেবে অনেকেই গিজার ব্যবহার করেন। গিজার হলো ইলেক্ট্রিক ওয়াটার হিটার। এর সাহায্য খুব সহজেই এবং কম সময়ে পানি গরম করে নেওয়া যায়।

শীতকালেই যে শুধু গরম পানির প্রয়োজন হয় তা নয়, সারাবছরই পরিবারের শিশু ও প্রবীণ সদস্যদের গোসলের জন্য গরম পানির প্রয়োজন হয়। আর চটজলদি পানি গরম করে নিতে গিজারের জুড়ি মেলা ভার। তবে শীতকালেই এই যন্ত্রটির ব্যবহার সবচেয়ে বেশি। তবে গিজারটি নিরাপদে ব্যবহারের জন্য সঠিক রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন রয়েছে। কী ভাবে করবেন গিজারের রক্ষণাবেক্ষণ, তা এবার জেনে নিন...

• নতুন গিজার লাগানোর সময় সঠিকভাবে বৈদ্যুতিক সংযোগ হয়েছে কি না অথবা গিজারের পাইপের সংযোগ ঠিক হয়েছে কিনা, সেই দিকে
নজর রাখুন। পাইপগুলো আয়রনের তৈরি হলে বেশি ভাল হয়।

• গিজার কিন্তু স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাজ করে। বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়ার পর পানি গরম হয়ে গেলে নিজে থেকেই তা বন্ধ হয়ে যায়। আপনার গিজারটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাজ করছে কি না সেই দিকে খেয়াল রাখুন।

• গিজারে একটা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পানি গরম হয়, খেয়াল রাখুন তা হচ্ছে কি না। না হলে বুঝবেন গিজারে কোন গোলযোগ আছে।

• পানি গরম হয়ে গেলে গিজারটি বন্ধ রাখুন। এতে যেমন বিদ্যুতের সাশ্রয় হবে, তেমনি গিজারটিও দীর্ঘদিন ভাল থাকবে।

• আর যে বিষয়টি বেশি গুরুত্বপূর্ণ, তাহলো পানি গরম হয়ে গেলে সম্পূর্ণটা গিজার থেকে বের করে নিন। পানি মজুত হতে থাকলে গিজারে
আয়রন জমে গিয়ে তা দ্রুত বিকল হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

• গিজারে কোন ত্রুটি থাকলে তা দ্রুত ঠিক করার ব্যবস্থা করুন। না হলে এটি ব্যবহারের ফলে বিপদ ঘটতে পারে।

এএইচ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি