ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ এপ্রিল ২০২৪

ইতিহাসে স্মরণীয় তারিখটি থাকছে অগোচরে (ভিডিও)

শাকেরা আরজু

প্রকাশিত : ১১:৩১, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২

পৃথিবীর ইতিহাসে স্মরণীয় বাংলা তারিখ ৮ই ফাল্গুন। সনটি ছিল ১৩৫৯। এ দিনে ভাষার জন্য প্রাণ দিয়েছিলেন রফিক জব্বার বরকতসহ অন্য ভাষা সংগ্রামীরা। অথচ এই দীর্ঘ সময়েও রক্তে অর্জিত বাংলা তারিখটি স্মরণ হয় না।

ফেব্রুয়ারি মাস আসে, ফেব্রুয়ারি চলেও যায়। কিন্তু একুশের মর্যাদা রক্ষায় প্রাণ বিসর্জন দেয়া সেই ৮ই ফাল্গুন রয়ে যায় অগোচরে।

বাংলা ভাষা বিশ্বজুড়ে মাতৃভাষার স্বীকৃতি পেলেও ঐতিহাসিক দিনটির বাংলা সন ও তারিখ আজও অবহেলিত।

আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন বলেন, ‘ আন্তর্জাতিকভাবে যেখানেই পালন হয় সেখানে যেন ইংরেজি তারিখের পাশাপাশি এই বাংলা তারিখটি ব্যবহার করা হয়। অর্থাৎ প্রত্যেকটা জায়গায় বাংলাকে আনতে হবে।’

ভাষা আন্দোলনের ৭০ বছরেও প্রতিষ্ঠিত হয়নি ভাষার জন্য প্রাণ দেয়া বাংলা তারিখটি। অনেকেই জানেন না প্রতিবছর ২১ ফেব্রুয়ারির দিনে বাংলা সনের কতো তারিখ কিংবা কোন মাস হয়। 

রিটকারীর আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন বলেন, ‘১০০ জনের মধ্যে ৮০ জন বলতে পারবেন না বাংলা মাসের কয় তারিখ কিংবা কি মাসটা চলছে। এটা কিন্তু আমাদের পার্ট অব লাইফ। একটা সময় ছিল বাংলা মাসে আমাদের হিসাবটা হত। এই বিষয়গুলো আস্তে আস্তে হারিয়ে যাচ্ছে।’

ইংরেজির পাশাপাশি বাংলা তারিখটি পালনের জন্য উচ্চ আদালতে রিট হয়। সরকারি-বেসরকারিভাবে জাতীয় দিবস পালনের ক্ষেত্রে ইংরেজির পাশাপাশি বাংলা সন-তারিখ বাধ্যতামূলকভাবে লেখার কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে উচ্চ আদালত ১০ দিনের রুল জারি করে। অথচ ২ বছরেও জবাব দেননি বাংলা একাডেমিসহ বিবাদীরা।

মনিরুজ্জামান লিংকন বলেন, ‘আমরা পেনডামিকের মধ্যে ছিলাম এবং শুনানী করার জন্য যে কোর্ট এনভায়রনমেন্ট দরকার ছিল সেটা ছিল না। এখন আমরা পেনডামিক থেকে উত্তরণের পথে এবং আদালতে অনেক বিষয় নিয়ে শুনানী হচ্ছে।’

২১ ফেব্রুয়ারির সঙ্গে বাংলায় ৮ ফাল্গুন তারিখ ও সংশ্লিষ্ট সাল লেখার নির্দেশনা চেয়ে করা রিটের শুনানী শেষে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চ এ রুল জারি করেছিলেন।

এএইচ/


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি