ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২১:২০:২৭

Ekushey Television Ltd.

অস্ট্রেলিয়ায় বিরল প্রজাতির কুয়োলের জন্ম

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৭:০৮ পিএম, ৯ জুলাই ২০১৮ সোমবার

বিগত ৫০ বছরের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ায় প্রথমবারের মতো জন্ম নিল পূর্বাঞ্চলীয় কুয়োল। শাবকবাহী জীবের মধ্যে বিরল প্রজাতির এই কুয়োলটি অস্ট্রেলিয়ার একটি বনে জন্ম নেয়।

অস্ট্রেলিয়ার নিজ ভূমির এই প্রাণীটি একসময় দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় উপকূল অঞ্চলগুলোতে দেখা যেত। তবে শিয়ালের আক্রমণ আর নানাবিধ রোগের কারণে প্রায় ৫০ বছর আগে এই প্রাণীটি প্রায় বিলুপ্তির দিকে চলে যায়।

চলতি বছরের শুরুর দিকে নিউ সাউথ ওয়েলসের একদল বিজ্ঞানী তাসমানিয়া থেকে প্রাণীটির একটি প্রজাতিকে অস্ট্রেলিয়ার বুডিরি জাতীয় উদ্যানে নিয়ে আসেন। এখন এই প্রজাতির তিন নারী সদস্য তাদের থলেতে শাবক বহন করছে। আগামী তিন মাস নিজেদের থলেতেই বড় হবে শাবকগুলো।

বুডিরি জাতীয় উদ্যানের এক কর্মকর্তা নিক ডেক্সটার এই ঘটনাকে এক গুরুত্বপূর্ণ অর্জন বলে আখ্যায়িত করেন। বার্তা সংস্থা এএফপি’কে তিনি বলেন, “এখন এদের জন্য একটি বাসযোগ্য অবস্থা তৈরি করাই আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। তবে এদের মধ্যে ৩০ শতাংশ মেয়ে কুয়োলের সন্তান থলেতে আসা একটি শুভ ইঙ্গিত। এই প্রকল্পে আমরা প্রতিটি পশুকে জিপিএস কলার দিয়ে অনুসরণ করছি। খুব দ্রুত আমরা এদের বিরুদ্ধে কাজ করা হুমকিগুলোকে সনাক্ত করতে পারব”।

পূর্বাঞ্চলীয় কুয়োলগুলো আকারে বিড়ালের সমান হয় আর তাদের স্বভাব ও জীবনযাপন পদ্ধতি বেশ হাস্যরসাত্মক। বিভিন্ন ধরণের পোকামাকড়ই এদের প্রধান খাদ্য।

অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক নাতাশা রবিনসন বলেন যে, “কুয়োলগুলো যেভাবে বড় হচ্ছে তাতে এগুলো থেকে পরবর্তী প্রজন্ম আসবে। আর সবমিলিয়ে এই প্রজাতিটি নতুন করে এই অঞ্চলে আরও বহু বছর টিকে থাকবে”

গত মার্চ মাসে, তাসমানিয়া থেকে ২০টি কুয়োল নিয়ে এসে বুডিরি জাতীয় উদ্যানে ছাড়া হয়।

সূত্রঃ বিবিসি

//এস এইচ এস//  এআর



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি