ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ৭:২৯:০৬

Ekushey Television Ltd.

অ্যান্ড্রয়ডে থার্ড পারসন শুটিং গেম ব্যাটেলরেজ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৬:০৭ পিএম, ১২ জুন ২০১৮ মঙ্গলবার

অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে চলা স্মার্টফোনের জন্য এসেছে থার্ড পারসন গেম ব্যাটেলরেজ। দলগতভাবে কিংবা বন্ধুদের সাথে খেলা যাবে নতুন এই গেমটি। এছাড়াও ল্যানের মাধ্যমে অপরিচিত গেমারদের বিপক্ষে খেলা যাবে গেমটি। অনলাইনে প্রদর্শন করা যাবে যে মাল্টিপ্লেয়ার অ্যাকশন গেমে গেমার কতখানি অভিজ্ঞ। গেমটি সহজ, উত্তেজনায় ভরপুর এবং একই সাথে রোমাঞ্চকর। এটি তৈরি করেছে দেশীয় গেমিং নির্মাতা প্রতষ্ঠিান টিম রিবুট।  

গেমটির খুঁটিনাটি

চমৎকার এবং অভিনব সব চরিত্র নির্বাচনের সুযোগ থাকছে ব্যাটেলরেজ-এ। রুম বা দল গঠন এবং অন্য দলে যুক্ত হওয়ার সুবিধাও থাকছে এটিতে। গেমে দক্ষতা বৃদ্ধিতে বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র সরবরাহ করা যাবে। গেম খেলার অভিজ্ঞতাকে আরো রোমাঞ্চিত করতে এতে থাকছে একাধিক মানচিত্রের লে আউট।

বন্ধুদের সঙ্গে খেলতে গেমারের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট যুক্ত করার সুযোগ থাকছে এটিতে। থাকছে ল্যান সংযোগের সুবিধা। দক্ষতা বৃদ্ধির সাথে সাথে গেম হালনাগাদ এবং চরিত্র ও অস্ত্র আনলক করার সুযোগ থাকছে ব্যাটেলরেজ-এ।

গেমটি সিঙ্গেল প্লেয়ার ডেথম্যাচ, মাল্টিপ্লেয়ার ডেথম্যাচ ও টিম বা দলগত ডেথম্যাচ মোডে খেলা যাবে। খুব সহজভাবে গেমটির পটভূমি সাজাতে সমর্থ হয়েছে টিম রিবুট। গেমটি রোমাঞ্চকর করার লক্ষ্যে এতে অ্যাকশনে দক্ষতা প্রদর্শন বেশ কঠিন করা হয়েছে। চারপাশ প্রতিপক্ষ দ্বারা ঘিরে থাকা সত্যেও গেমারকে লুকিয়ে থেকে এবং টার্গেট থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রেখে চোখের পলকে প্রতিপক্ষকে ধ্বংস করতে হবে।   

গেমটি খেলার জন্য বন্ধুদেরকে ফেসবুকের মাধ্যমে চ্যালেঞ্জ জানানোর সুবিধা রয়েছে এতে। বর্তমানে তিনটি ভিন্ন ভিন্ন ম্যাপ ব্যবহার করে খেলা যাবে গেমটি। যার মধ্যে একটি ম্যাপ বাংলাদেশের মানচিত্রের উপর ভিত্তি করে সাজানো হয়েছে। বিভিন্ন পর্যায়ে গেমটিতে ২০ ধরনের অস্ত্র বা বন্দুক ব্যবহার করা যাবে। এছাড়াও, এ গেমে পছন্দমতো চরিত্র পরিবর্তনের সুযোগ রয়েছে। শামসু, অপ্সরা ও আসলামসহ প্রায় ২০টি চরিত্র রাখা হয়েছে। গেমটিতে রয়েছে উত্তেজনাপূর্ণ বিভিন্ন ধরনের পটভূমিভিত্তিক আয়োজন। যেখানে গেমারকে বিভিন্ন ধরনের চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়ে নানা ধরনের গিফট বা উপহার আনলক করতে হবে।

টিম রিবুট’র সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও লিড গ্রাফিক্স ডিজাইনার মো. রেজাউল হাসান ইভান বলেন,গেমটির গ্রাফিক্স ও গেমপ্লে­ দুই দিকেই সমানভাবে নজর দেয়া হয়ছে। অত্যন্ত সূক্ষ্মভাবে গেমের প্রতিটি প্রোগ্রামিং করা হয়েছে, যাতে করে গেমটি খেলতে গিয়ে গেমারের মাঝে কোনধরনের বিরক্তিভাব না আসে। বিশ্বব্যাপী গেমটি সুপরিচিত করতে সব ধরনের চেষ্টা করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক মান অর্জন করতে ডেভেলপাররা ব্যাপক পরিশ্রম চালিয়ে যাচ্ছে”।

কো-ফাউন্ডার ও লিড ডেভেলপার জিসান হায়দার জয় গেমটি সম্পর্কে বলতে গিয়ে জানান, ‘বিশ্বব্যাপী গেমারদের মধ্যে প্রতিযোগিতামূলক গেমিং অভিজ্ঞতা প্রদানই হচ্ছে আমাদের মূল লক্ষ্য। অনলাইনে গেমটি খেলার মধ্য দিয়ে গেমাররা একে অপরের সঙ্গে খেলার অভিজ্ঞতা আদান-প্রদান করতে পারবে। দেশে গেম ডেভেলপ নিয়ে আমরা সুদূরপ্রসারী মনোভাব নিয়েই কাজ করছি। আশা করছি আমাদের এ গেমটি সবার ভালো লাগবে যা ভবিষ্যতে গেম নিয়ে অভিনব উদ্ভাবনে উদ্বুদ্ধ করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।’

গেমটি খেলতে সর্বনিম্ন এক জিবি র‌্যামের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমচালিত স্মার্টফোনের প্রয়োজন হবে। গুগল প্লে স্টোর থেকে ব্যবহারকারীরা গেমটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করে খেলতে পারবেন।

টিম রিবুট প্রায় এক বছর ধরে গেমটি তৈরি করে। গেমটি তৈরিতে কো-ফাউন্ডার ও লিড ডেভেলপার হিসেবে ছিলেন জিসান হায়দার জয়, কো-ফাউন্ডার ও লিড গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে ছিলেন রেজাউল হাসান ইভান এবং কো-ফাউন্ডার ও চিফ মার্কেটিং অফিসার হিসেবে আছেন মো. এমদাদুল হক। অন্যান্যদের মধ্যে আছেন গেম ডিজাইনার ফুয়াদ আদনান রহমান, এআই প্রোগ্রামর আবদুল্লাহ আল মামুন, নেটওয়ার্ক প্রোগ্রামার হাবিব, জুনিয়র গেম ডেভেলপার শিপন মজুমদার, ইউআই প্রোগ্রামার হৃদয় কৃঞ্চ বালা, থ্রিডি আর্টিস্ট ও ক্যারেক্টার মডেলিং তানভিরুল হক, অ্যানিমেটর সৈকত আজাদ, ইউএক্স/ইউআই ডিজাইনার হাসান রহিম

//এস এইচ এস//

 



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি