ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের বাসা থেকে মদ ও ক্যাসিনো সরঞ্জাম উদ্ধার

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:৪৬ ২৭ অক্টোবর ২০১৯ | আপডেট: ১২:২৯ ২৮ অক্টোবর ২০১৯

রাজধানীর গুলশানে আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের বাসায় অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ মাদক ও ক্যাসিনো সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। আজ রোববার বিকালে গুলশান ২ নম্বরের ৫৭ নম্বর রোডে ১১\এ নম্বর বাসায় অভিযান চালায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক খুরশিদ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি একুশে টেলিভিশনকে বলেন, আজিজ মোহাম্মদ ভাই এর গুলশানের বাসায় অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন ব্রান্ডের বিপুল পরিমাণ মদ, সিসা, অল্প পরিমাণ গাঁজা ও ক্যাসিনো সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে। তার বাসার তৃতীয় তলা ও ছাদে এসব পাওয়া যায়। বাসার ছাদকে মিনি বারের মতো সাজানো হয়েছে।

তিনি বলেন, ক্যাসিনো কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তারা আজিজ মোহাম্মদ ভাই এর কেয়ারটেকার।

অলিম্পিক ব্যাটারি, অলিম্পিক ব্রেড ও বিস্কুট, এমবি ফার্মাসিটিউক্যাল,এমবি ফিল্ম ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানের মালিক আজিজ মোহাম্মদ ভাই।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তার বিরুদ্ধে হত্যা ও মাদক পাচারসহ বেশ কয়েকটি গুরুতর অভিযোগ রয়েছে। ৫০টির মত চলচ্চিত্র প্রযোজনা করেছেন তিনি। ১৯৪৭ এ দেশভাগের পর তাদের পরিবার ভারতের গুজরাট থেকে বাংলাদেশে আসে। তাদের পরিবার মূলত পারস্য বংশোদ্ভুত। তারা ‘বাহাইয়ান’ সম্প্রদায়ের লোক। ‘বাহাইয়ান’ কে সংক্ষেপে ‘বাহাই’বলা হয়। উপমহাদেশের উচ্চারণে এই ‘বাহাই’ পরবর্তীতে ‘ভাই’ হয়ে যায়।

১৯৯৭ সালে জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সালমান শাহকে হত্যা করার অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। যদিও হত্যাকাণ্ডের সময় থাইল্যান্ডে ছিলেন আজিজ। কিন্তু সেটাকে আত্নহত্যা বলেই প্রচার করা হয়। যদিও সালমান শাহ এর পরিবার ও তার ভক্তদের ধারণা এটা হত্যাকাণ্ড। বর্তমানে আজিজ মোহাম্মদ ভাই সপরিবারে থাইল্যান্ডে থাকেন। সেখান থেকেই ব্যবসা পরিচালনা করেন। তার স্ত্রী নওরিন মোহাম্মদ ভাই দেশে এসে ব্যবসা দেখেন। তার ৩ ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে।

জানা যায়, অজিজ মোহাম্মদ নামের সাথে ‘ভাই’ শব্দটি নিয়ে অনেকেই মনে করেন গডফাদার বলেই তাকে ভাই বলে ডাকা হয়। সাধারণত মাফিয়া ডন বা গডফাদারদের ভাই ডাকে তাদের অনুগতরা। কিন্তু আজিজ মোহাম্মদ ভাই, তাকে গডফাদার বলা যায় কিনা সেটা নিয়ে তর্ক থাকলেও ভাই শব্দটি সে কারণে আসেনি। ‘ভাই’ তাদের বংশপদবী। তাঁদের পরিবারের সকলেরই নামের শেষে ভাই পদবী আছে।

টিআ/এসি
  

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি