ঢাকা, রবিবার   ১৭ জানুয়ারি ২০২১, || মাঘ ৪ ১৪২৭

 

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি 

প্রকাশিত : ১৯:২৮, ২২ মে ২০২০ | আপডেট: ১৯:৪২, ২২ মে ২০২০

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বিস্তার রোধে ঠাকুরগাঁওয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকান ছাড়া সবই বন্ধ ছিল। রমজান উপলক্ষে ১০ মে থেকে সীমিত আকারে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর চালুর ঘোষণা দেয় সরকার। কিন্তু ঈদকে সামনে রেখে ঠাকুরগাঁওয়ের মার্কেটগুলো বাড়তে থাকে ক্রেতাদের ভীড়। একই সাথে মানা হচ্ছিল না কোন প্রকার স্বাস্থ্যবিধি, তাই জেলা প্রশাসন গত ১৮ মে থেকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত কাপড়ের দোকান, তৈরি পোশাকের দোকান, কসমেটিকসের দোকান ও জুতার দোকান বন্ধ করে দেয়।

কিন্তু সে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কিছু ব্যবসায়ী দোকানের একটি শাটার খুলে এবং স্থান পরিবর্তন করে গোপনে আবাসিক হোটেলে ব্যবসা শুরু করে। বিষয়টি জানতে পেরে শুক্রবার (২২ মে) দুপুরে) জেলা শহরের প্রাণকেন্দ্রের প্রাইম আবাসিক হোটেলে অভিযান চালান সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন।

এসময় হোটেলের বিভিন্ন কক্ষে হাতে-নাতে তৈরী পোশাক বিক্রি করতে দেখেন তিনি। পরে সেখানেই ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে অবৈধ ভাবে আবাসিক হোটেলে কাপড় বিক্রির অভিযোগে প্রাইম আবাসিক হোটেলের মালিক আনোয়ার হোসেন(৬০) কে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন তিনি। এছাড়াও কাপড় ও তৈরি পোশাকের খোলা রাখা রুমগুলোকে তালাবদ্ধ করার নির্দেশ দেন। 

এসময় সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তানভিরুল ইসলামসহ সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স উপস্থিত ছিলেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন জানান, গোপন সংবাদে খবর পেয়ে শহরের প্রাইম নামক আবাসিক হোটেলের ৩য় তলায় অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে তৈরি পোশাকের দোকান খোলা রেখে ব্যবসা করার অভিযোগে প্রতিষ্ঠান মালিককে আর্থিক জরিমানা করা হয়। জনস্বার্থে এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।
কেআই/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি