ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ০:৩৩:৪০

Ekushey Television Ltd.

উত্তাল মার্চে এই দিনে যা ঘটেছিল (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৫৪ এএম, ১২ মার্চ ২০১৮ সোমবার | আপডেট: ১১:২০ এএম, ১২ মার্চ ২০১৮ সোমবার

অগ্নিঝরা ১২ই মার্চ আজ। ১৯৭১ সালের এই দিনে প্রতিবাদ-প্রতিরোধ, বিদ্রোহ আর বিক্ষোভে ফুঁসে উঠে বীর বাঙালী। এ’দিন মজলুম জননেতা মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী দেশবাসীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উপর পূর্ণ আস্থা রাখার আহ্বান জানান। পাকিস্তান ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি- ন্যাপের নেতা ওয়ালী খানও বঙ্গবন্ধুর পক্ষে অবস্থান নেন। লাগাতার অসহযোগ আন্দোলনের কারণে কৌশল বদলাতে থাকে পাকিস্তানী সামরিক জান্তারা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ভাষণেই জাতির সামনে স্পষ্ট বার্তা যায়, বিনাযুদ্ধে পাকিস্তানী হানাদাররা কিছুই মেনে নেবে না। আসবে না হাজার বছরের লালিত স্বপ্ন- স্বাধীনতা। ফলে, ভেতরে ভেতরে আরো সংগঠিত হতে থাকে বাঙালী।

অসহযোগ আন্দোলনের দিন যতই গড়াচ্ছিলো, বঙ্গবন্ধুর প্রতি আস্থা রেখে পাকিস্তানবিরোধী শ্লোগানে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে ঢাকার রাজপথ।

এদিন, বঙ্গবন্ধুর প্রতি পূর্ণ আস্থা রাখার আহ্বান জানান মজলুম জননেতা মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী। পাকিস্তান ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি- ন্যাপের প্রধান ওয়ালী খানও সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের পরামর্শ দেন।

একাত্তরের এই দিনে পূর্ব পাকিস্তান সিভিল সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন বাঙালির স্বাধীনতা আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে। আন্দোলনে অর্থের যোগান দিতে একদিনের বেতন দেয়ার ঘোষণা দেন কর্মকর্তারা। রাস্তায় নেমে আসে নানা শ্রেণীপেশার মানুষ।

এ’দিন চিরপরিচিত শাপলাকে জাতীয় ফুল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। শিল্পী কামরুল হাসানের আহ্বানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবনে এক সভায় দেয়া হয় এই ঘোষণা।

 

 

 



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি